kalerkantho

বুধবার  । ১৮ চৈত্র ১৪২৬। ১ এপ্রিল ২০২০। ৬ শাবান ১৪৪১

সিনেটে ট্রাম্পের বিচার

রিপাবলিকানদের ‘সাহস’ দেখানোর আহ্বান ডেমোক্র্যাটদের

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৪ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিশংসন প্রশ্নে বুধবার দেশটির কংগ্রেসের উচ্চকক্ষ সিনেটে আনুষ্ঠানিকভাবে বিচার শুরু হয়েছে। এতে বিরোধী ডেমোক্র্যাটরা বলে, ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে নিজের বিজয় সুনিশ্চিত করতে ট্রাম্প ইউক্রেন কেলেঙ্কারি ঘটান। এ কারণে তাঁকে অভিশংসনে রিপাবলিকানদের ‘সাহস’ দেখানো উচিত।

সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি জন রবার্টস এই বিচারে সভাপতিত্ব করছেন। জুরির দায়িত্ব পালন করছেন সিনেটের ১০০ সদস্য। মামলার বাদীর ভূমিকায় আছেন প্রতিনিধি পরিষদের গোয়েন্দাবিষয়ক কমিটির চেয়ারম্যান অ্যাডাম শিফের নেতৃত্বে সাত ডেমোক্র্যাট ম্যানেজার। পুনর্নির্বাচিত হতে ট্রাম্প কিভাবে বিদেশে প্রভাব বিস্তার করেছিলেন, সেটার বর্ণনা দেন অ্যাডাম শিফ। তিনি বলেন, দ্বিতীয় মেয়াদে নিজের ক্ষমতা পাকাপোক্ত করতেই ট্রাম্প ক্ষমতার অপব্যবহার করে বিদেশে চাপ প্রয়োগ করেন। এরপর বিষয়টি প্রকাশ হয়ে গেলে তদন্তপ্রক্রিয়ায় প্রেসিডেন্ট বাধা দেন। শিফের অভিমত, হোয়াইট হাউসে ট্রাম্পের আর জায়গা হবে কি না, সেই সিদ্ধান্ত সিনেটরদের নয়, আমেরিকান ভোটারদের নেওয়া উচিত।

সিনেটরদের উপযুক্ত বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালনের আহ্বান জানিয়ে শিফ বলেন, ‘বেশির ভাগ আমেরিকান বিশ্বাস করে, সিনেট হবে নিরপেক্ষ। জাতীয় নিরাপত্তার নামে ভয়ানকভাবে আচরণবিধি লঙ্ঘনের প্রমাণ আড়াল করতে চান ট্রাম্প। তবে সত্য উন্মোচিত হবেই।’ গত ১৮ ডিসেম্বর কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে অভিশংসন করা হয়। ক্ষমতার অপব্যবহার ও কংগ্রেসের কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগ তুলে তাঁর বিরুদ্ধে এ সিদ্ধান্ত নেয় প্রতিনিধি পরিষদ। তবে সিনেট রিপাবলিকানদের দখলে থাকায় এখানকার বিচারে ট্রাম্প দায়মুক্তি পাবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। এর পরও এ বিচার আগামী নভেম্বরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রিপাবলিকানদের ওপর প্রভাব ফেলবে বলে আশা ডেমোক্র্যাটদের। সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা