kalerkantho

বুধবার । ১৩ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ১ রজব জমাদিউস সানি ১৪৪১

মৃতের সংখ্যা বাড়ছে

করোনাভাইরাস ব্যাপক ছড়ানোর আশঙ্কা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৩ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



করোনাভাইরাস ব্যাপক ছড়ানোর আশঙ্কা

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচতে চীনে অনেকেই এখন মাস্ক ব্যবহার করছে। ছবিটি মঙ্গলবার চীনের মধ্যাঞ্চলীয় হুবেই প্রদেশের এক রেলওয়ে স্টেশন প্রাঙ্গণ থেকে তোলা। ছবি : এএফপি

চীনে ছড়িয়ে পড়া নতুন করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৭তে দাঁড়িয়েছে। আক্রান্ত হয়েছে অন্তত ৪৪০ জন। ভাইরাসটির রূপান্তর ঘটতে পারে এবং তা আরো ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে দেশটি গতকাল বুধবার সতর্ক করে দিয়েছে। চীনের সীমানা ছাড়িয়ে এ ভাইরাস এরই মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রে পৌঁছে গেছে।

চীনে আতঙ্ক ছড়ানো নতুন এই ভাইরাস অনেকটা সার্সের (সিভিয়ার অ্যাকিউট রেসপিরেটরি সিনড্রোম) মতোই। ২০০২-০৩ সালে সার্স ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে চীন ও হংকংয়ে ৬৫০ জনের মৃত্যু হয়েছিল।

চীনের উহান শহরে প্রথমে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার কথা জানা যায়। সেখানে বর্তমানে বড় আকারের সব সমাবেশ বাতিল করা হয়েছে। লোকজনকে জনসমাবেশ থেকে দূরে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া শহরটির এক কোটি ১০ লাখ নাগরিককে শহর না ছাড়ার জন্যও বলা হয়েছে। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে ভাইরাসের কারণে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হবে কি না সে ব্যাপারে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডাব্লিউএইচও) জরুরি বৈঠকে বসছে। গতকালই এ বৈঠক হওয়ার কথা। যুক্তরাষ্ট্রের পাশাপাশি তাইওয়ান, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া ও ম্যাকাওয়ে এরই মধ্যে ভাইরাসের উপস্থিতি দেখা গেছে।

চীনের সরকার মহামারি আকারে দেখা দেওয়া ভাইরাসটিকে সার্স ধরনের বলে শ্রেণিভুক্ত করেছে। ভাইরাসের উৎসের বিষয়ে এখনো নিশ্চিত করে কিছু জানায়নি। তবে প্রাথমিকভবে এ ভাইরাসের জন্য প্রাণীদের দায়ী করা হচ্ছে। উহান শহরে সামুদ্রিক খাবারের বাজার বলে পরিচিত বাজারে জীবিত প্রাণী বিক্রি করা হয়। সেখান থেকেই এটি ছড়িয়েছে বলে চীনের কর্তৃপক্ষ ধারণা করছে। দেশটির জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের উপমন্ত্রী লি বিন বলেন, ‘ভাইরাসের উৎস জানার জন্য এবং এই রোগের সংক্রমণ রোধে আমরা গবেষণার পদক্ষেপ নেব।’

চীনের সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনটেশনের পরিচালক গাও ফু বলেন, ‘আমরা এরই মধ্যে জানতে পেরেছি, অবৈধভাবে বন্য জন্তু কেনাবেচা হওয়া একটি বাজার থেকে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। এটি একটি কারণ হতে পারে। সুতরাং ভাইরাসটি প্রাণীর মাধ্যম হয়ে মানবশরীরে ছড়িয়ে পড়ছে।’

এদিকে উত্তর কোরিয়া এ ভাইরাসের আক্রমণ রোধে পর্যটক আগমন সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ করেছে। সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা