kalerkantho

শনিবার । ১০ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ২৮ জমাদিউস সানি ১৪৪১

শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্টের স্বীকারোক্তি

গৃহযুদ্ধে নিখোঁজ সবাই মারা গেছে

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২২ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



গৃহযুদ্ধে নিখোঁজ সবাই মারা গেছে

এই প্রথমবারের মতো শ্রীলঙ্কার সরকার স্বীকার করে নিল, প্রায় তিন দশকের গৃহযুদ্ধকালে যারা নিখোঁজ হয়েছে, তারা সবাই মারা গেছে। খোদ প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপক্ষে এ কথা স্বীকার করেছেন, যিনি ওই গৃহযুদ্ধকালে প্রতিরক্ষামন্ত্রী ছিলেন। গোতাবায়ার এ স্বীকারোক্তির পরিপ্রেক্ষিতে নিখোঁজ ব্যক্তিদের মৃত্যু সনদ সরবরাহের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

প্রায় ৩০ বছরের গৃহযুদ্ধের ইতি টানতে তৎকালীন প্রেসিডেন্ট মাহিন্দা রাজাপক্ষের নেতৃত্বাধীন সরকার লিবারেশন টাইগার্স অব তামিল ইলমের (এলটিটিই) বিরুদ্ধে রক্তক্ষয়ী অভিযান চালায়। এলটিটিই নেতা ভেলুপিল্লাই প্রভাকরণকে হত্যার মধ্য দিয়ে ২০০৯ সালে অভিযানের সমাপ্তি ঘটে। কিন্তু চূড়ান্ত অভিযানকালে কমপক্ষে ৪০ হাজার মানুষ নিখোঁজ হয় বলে দাবি আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনগুলোর। সরকার অবশ্য দাবি করে, বিভিন্ন সময়ের সংঘর্ষে ২০ হাজারের বেশি মানুষ নিখোঁজ হয়েছে এবং শ্রীলঙ্কার পূর্ব ও উত্তরে প্রায় এক লাখ লোকের প্রাণহানি ঘটেছে।

গৃহযুদ্ধ শেষ হওয়ার এক দশক পর সাবেক প্রেসিডেন্ট মাহিন্দার ভাই বর্তমান প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া স্বীকার করেছেন, নিখোঁজ লোকজন আসলে মারা গেছে। জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়ক হানা সিঙ্গারের সঙ্গে এক বৈঠকে তিনি বলেন, প্রয়োজনীয় তদন্ত শেষে নিখোঁজ ব্যক্তিদের মৃত্যু সনদ দেওয়া হবে। শ্রীলঙ্কার সংবাদমাধ্যম কলম্বো গেজেট এ তথ্য জানায়। সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা