kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ ফাল্গুন ১৪২৬ । ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ৩০ জমাদিউস সানি ১৪৪১

সিএনএনের রেকর্ডিং

পরস্পরকে মিথ্যুক বলেছেন ওয়ারেন-স্যান্ডার্স

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৭ জানুয়ারি, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ডেমোক্রেট শিবির থেকে প্রেসিডেন্ট প্রার্থিতাপ্রত্যাশী এলিজাবেথ ওয়ারেন ও বার্নি স্যান্ডার্স প্রেসিডেনশিয়াল বিতর্কের সময় যথারীতি ভদ্রোচিত আচরণ করেছেন, কিন্তু বিতর্ক শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে দেখা যায় অন্য চিত্র। দুজনের মধ্যে উত্তপ্ত বাক্যবিনিময় হয় এবং সেই অবস্থায়ই ঘটনাস্থল ছেড়ে বেরিয়ে যান তাঁরা। কী কথা হয়েছে, তাত্ক্ষণিক জানা যায়নি। তবে পরে সিএনএনের কল্যাণে জানা যায়, পরস্পরকে মিথ্যুক বলেছেন এ দুই প্রবীণ রাজনীতিক।

সংবাদমাধ্যম সিএনএন ও ডে ময়েন রেজিস্টার আয়োজিত গত মঙ্গলবারের প্রেসিডেনশিয়াল বিতর্ক অনুষ্ঠিত হয় আইওয়া অঙ্গরাজ্যের রাজধানী ডে ময়েনের ড্রেক ইউনিভার্সিটিতে। ডেমোক্রেট রাজনীতিকদের ওই বিতর্ক শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে স্যান্ডার্সের দিকে এগিয়ে যান ওয়ারেন। এ সময় স্যান্ডার্সের বাড়িয়ে দেওয়া হাতে হাত রেখে করমর্দন করার পরিবর্তে সরাসরি তাঁর সঙ্গে কথা বলতে শুরু করেন ওয়ারেন। দুজনের কথোপকথন তখনই জানা যায়নি। পরে সিএনএন অডিও রেকর্ডিংগুলো তালিকাবদ্ধ করার সময় ধরা পড়ে দুই পক্ষের উত্তপ্ত বাক্যবিনিময়। আসলে বিতর্ক শেষ হলেও তখনো দুজনের পোশাকে যুক্ত ছিল বিতর্ককালীন দুটি মাইক্রোফোন এবং সে দুটির মাধ্যমে রেকর্ডিং তখনো চালু ছিল।

গত বুধবার ওই সমন্বিত অডিও-ভিডিও প্রকাশ করে সিএনএন। সেখানে স্যান্ডার্সের উদ্দেশে ওয়ারেনকে বলতে শোনা যায়, ‘জাতীয় টেলিভিশনে আপনি মনে হয় আমাকে মিথ্যুক বললেন।’ কথাটা শুনতে পাননি, এমন ভঙ্গিতে স্যান্ডার্স প্রশ্ন করেন, ‘কী?’ জবাবে ওয়ারেন পুনরাবৃত্তি করেন, ‘জাতীয় টেলিভিশনে আপনি মনে হয় আমাকে মিথ্যুক বললেন।’ এরপর স্যান্ডার্সের উত্তর, ‘সেটা আপনিই জানেন। এখন এসব নিয়ে কথা বলার দরকার নেই। আপনি যদি আলোচনায় বসতে চান, তবে আমরা আলোচনা করব।’ ক্ষেপে থাকা ওয়ারেন সঙ্গে সঙ্গে বলেন, ‘যেকোনো সময়।’ আর স্যান্ডার্স বলতে থাকেন, ‘আপনি আমাকে মিথ্যুক বলেছেন।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা