kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১২ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৪ রবিউস সানি     

‘পরবর্তী নির্বাচনে লড়তে পারবেন না মোরালেস’

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৬ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



‘পরবর্তী নির্বাচনে লড়তে পারবেন না মোরালেস’

বলিভিয়ার পরবর্তী নির্বাচনে ইভো মোরালেসের প্রার্থী হওয়ার সম্ভাবনা নাকচ করে দিয়েছেন দেশটির অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট জিয়ানিনে আনেজ। মোরালেস সমর্থকদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে গত বৃহস্পতিবার এই ঘোষণা দেন আনেজ।

নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগে বিক্ষোভ শুরু হলে গত রবিবার পদত্যাগ করেন ১৪ বছর ক্ষমতায় থাকা মোরালেস। পরের দিন মেক্সিকোয় রাজনৈতিক আশ্রয় নেন তিনি। এর পরদিন নিজেকে অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেন আনেজ। তাঁর দায়িত্বগ্রহণকে বৈধতা দিয়েছেন দেশটির সর্বোচ্চ আদালত। আনেজ শিগগিরই নতুন নির্বাচনের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

মোরালেসের পদত্যাগের পর থেকে রাজধানীতে বিক্ষোভ করছেন সমর্থকরা। তাঁরা বলছেন, ‘গৃহযুদ্ধের সময় হয়েছে। ফিরো এসো ইভো।’

কিন্তু বৃহস্পতিবার আনেজ বলেন, বলিভিয়ার সংবিধান অনুযায়ী টানা দুই মেয়াদে প্রেসিডেন্ট থাকার পর কোনো ব্যক্তি তৃতীয়বার প্রার্থী হতে পারবেন না। সেই অনুযায়ী, আগামী নির্বাচনে মোরালেস প্রার্থী হতে পারবেন না।

বলিভিয়াজুড়ে এখনো রাজনৈতিক অস্থিরতা বিরাজ করছে। অন্তর্বর্তীকালীন সরকার দাবি করেছে, মোরালেসের ‘মুভমেন্ট ফর সোশ্যালিজম’ পার্টির আইন প্রণেতাদের সঙ্গে তাদের সমঝোতা সংলাপ শুরু হয়েছে। যদিও মোরালেসের সমর্থক আইন প্রণেতারা সিনেটের গত মঙ্গলবারের অধিবেশন বর্জন করেছিলেন। ওই অধিবেশনেই নিজেকে অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেন আনেজ।

আনেজের মন্ত্রিসভার প্রধান হারহেস হুসতিনিয়ানো বলেন, ‘আমরা মোরালেসের দলের আইন প্রণেতাদের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছি। আমাদের বিশ্বাস, আমরা বলিভিয়ায় শান্তি ফিরিয়ে আনতে পারব।’

তবে আনেজের সরকারের সঙ্গে সংলাপের বিষয়টি ‘মুভমেন্ট ফর সোশ্যালিজম’ পার্টির কাছ থেকে তাৎক্ষণিকভাবে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

অনেকের অভিযোগ, এখন বলিভিয়ায় যে সহিংস বিক্ষোভ চলছে, তাতে মোরালেসের ইন্ধন রয়েছে। তবে বৃহস্পতিবার মেক্সিকোর এক টেলিভিশন চ্যানেলে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন মোরালেস। তিনি বলেন, তিন মেয়াদে ক্ষমতায় থাকার সময় তিনি যা করেছেন, এখন তার বাইরে তিনি কিছুই করবেন না। তিনি আরো বলেন, ‘আমি বলিভিয়ার মানুষের ক্ষতি করার কথা কখনো ভাবি না।’

আনেজ বলেছেন, মোরালেস যাতে আগামী নির্বাচনে হস্তক্ষেপ করতে না পারেন, সে জন্য তিনি মেক্সিকো সরকারকে অনুরোধ জানাবেন। এ বিষয়ে মেক্সিকো বলেছে, ‘মেক্সিকোর জনগণ যে বাক্স্বাধীনতা ভোগ করে, একজন শরণার্থীও সেই স্বাধীনতার দাবিদার।’ সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা