kalerkantho

বুধবার । ২০ নভেম্বর ২০১৯। ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

পাকিস্তানে তীর্থযাত্রায় শত শত ভারতীয় শিখ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১০ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



শিখ ধর্মের প্রতিষ্ঠাতা গুরু নানকের ৫৫০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে পাকিস্তানের উপাসনালয়ে যাওয়ার জন্য অন্তত ৭০০ ভারতীয় শিখ ধর্মাবলম্বী  দেশটিতে প্রবেশ করেছে। গত শনিবার দুই দেশের চুক্তি অনুযায়ী একটি বিশেষ প্রবেশদ্বার দিয়ে পাকিস্তানে প্রবেশ করে তারা। ওই চুক্তিতে প্রতিদিন সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার তীর্থযাত্রীর দেশটিতে প্রবেশের সুযোগ রাখা হয়েছে। ১৯৪৭ সালে দেশভাগের পর এবারই প্রথম ভারতীয় শিখরা পাকিস্তানের গুরদুয়ারায় প্রবেশের সুযোগ পেল। পরস্পরের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রতিবেশী এ দুই দেশের মধ্যে এটি একটি বিরল ঘটনা।

শনিবার ভারতীয় শিখদের উল্লাস করতে করতে পাকিস্তানে প্রবেশ করতে দেখা যায়। প্রবেশদ্বারের পাশে পাকিস্তানের পক্ষ থেকে তাদের জন্য অনেক বাস প্রস্তুত রাখা ছিল। এসব বাস তাদের চার কিলোমিটার দূরে অবস্থিত কার্তারপুরে গুরু নানকের উপাসনালয়ে পৌঁছে দেবে। ধারণা করা হয়, গুরু নানক এখানেই পরলোকগমন করেছিলেন। ফলে বিশ্বের তিন কোটি শিখ ধর্মাবলম্বীর কাছে এ স্থানটি খুবই পবিত্র। পাকিস্তানে প্রবেশের সময় তাই ভারতীয় তীর্থযাত্রীদের অনেকে আবেগে আপ্লুত হয়ে পড়ে। ৭৮ বছর বয়সী তীর্থযাত্রী সুরজিৎ সিং বাজওয়া চোখ মুছতে মুছতে এএফপিকে বলেন, ‘লোকে বলে স্রষ্টা সব জায়গায় আছেন। কিন্তু আজ মনে হচ্ছে, আমি সরাসরি গুরু নানকের আশীর্বাদ পেতে যাচ্ছি।’

তীর্থযাত্রীদের সঙ্গে ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংও পাকিস্তানে প্রবেশ করেন। এ ঘটনাকে একটি ‘বিশেষ মুহূর্ত’ হিসেবে অভিহিত করে তিনি বলেন, ‘আশা করি কার্তারপুর খুলে দেওয়ার ফলে ভারত-পাকিস্তানের পারস্পরিক সম্পর্কে ইতিবাচক পরিবর্তন আসবে।’ এদিকে এ ঘটনায় পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ইমরান খানকে শনিবার তীর্থযাত্রীদের অভ্যর্থনা জানাতে ব্যস্ত সময় পার করতে দেখা যায়। সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা