kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

২ নিরাপত্তা কর্মকর্তার সাক্ষ্য

ইউক্রেনের ওপর চাপ সৃষ্টিতে উদ্বেগ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১০ নভেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ইউক্রেনের ওপর চাপ সৃষ্টিতে উদ্বেগ

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির ওপর ট্রাম্পের চাপ সৃষ্টির আগে এ বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন হোয়াইট হাউসের দুই জাতীয় নিরাপত্তা কর্মকর্তা। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে চলমান অভিশংসন তদন্তের শুনানিতে এ তথ্য জানিয়েছেন ওই দুই কর্মকর্তা। ফিয়োনা হিল ও আলেকজেন্ডার ভিন্ডম্যান নামের ওই কর্মকর্তাদের দাবি, ট্রাম্পের কথোপকথনের দুই সপ্তাহ আগে গত ১০ জুলাই তাঁরা হোয়াইট হাউসের অ্যাটর্নি জন আইসেনবার্গের কাছে উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

হিল বলেন, জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টনের নির্দেশনা অনুযায়ী তিনি সেটি করেন। বোল্টন ইউক্রেনের ওপর চাপ সৃষ্টির বিষয়ে ঘোর বিরোধী ছিলেন।

হিল ও ভিন্ডম্যান বলেছেন, হোয়াইট হাউসের চিফ অব স্টাফ মিক মুলাভ্যানি ও ইউরোপীয় ইউনিয়নবিষয়ক উপদেষ্টা গর্ডন সন্ডল্যান্ড ইউক্রেনের ওপর চাপ দেওয়ার পেছনে বিশেষ ভূমিকা রাখেন। জো বাইডেনের ছেলের বিষয়ে তদন্ত করতে ১০ জুলাই অনুষ্ঠিত বৈঠকে ইউক্রেনের কর্মকর্তাদের চাপ দেন সন্ডল্যান্ড।

এ নিয়ে খুবই রাগান্বিত হন বোল্টন। এর পরও মুলাভ্যানির পরামর্শে দ্বিতীয় বৈঠক করেন সন্ডল্যান্ড। সেই সময় বোল্টন হিলকে বলেছেন, ‘আপনি যান এবং আইসেনবার্গকে বলুন, সন্ডল্যান্ড ও মুলাভ্যানি যা করছেন, এসবে আমি নেই। এ বিষয়ে আপনি যা শুনেছেন এবং আমি যা বলেছি, সেসব তুলে ধরুন।’

গত ২৫ জুলাই ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে ট্রাম্পের ওই ফোনালাপ হয়। এতে আগামী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের সম্ভাব্য প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেনকে কোণঠাসা করতে তাঁর ছেলের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরুর জন্য ট্রাম্প চাপ সৃষ্টি করেন বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ইস্যুতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসন তদন্ত প্রকাশ্যে শুনানির প্রস্তাব সম্প্রতি কংগ্রেসের হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভে পাস হয়। হাউসের এ পদক্ষেপের মধ্য দিয়ে ট্রাম্পকে অভিশংসিত করার প্রক্রিয়া এক ধাপ এগিয়েছে বলে মনে করছেন পর্যবেক্ষকরা। অবশ্য ডেমোক্র্যাটদের এ অগ্রগতিতে ভীত নন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগে তাঁর বিরুদ্ধে তদন্ত পরিচালনার ঘটনাকে তিনি ইতিবাচকভাবে কাজে লাগানোর চেষ্টা করছেন। সূত্র : এএফপি।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা