kalerkantho

বুধবার । ১৩ নভেম্বর ২০১৯। ২৮ কার্তিক ১৪২৬। ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

‘কাতালোনিয়ায় আরেকটি গণভোট অনিবার্য’

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



‘কাতালোনিয়ায় আরেকটি গণভোট অনিবার্য’

ওরিওল হুনকুয়েরাস

দেশদ্রোহের দায়ে সাজাপ্রাপ্ত কাতালান নেতা ওরিওল হুনকুয়েরাস বলেছেন, কাতালোনিয়ার স্বাধীনতার প্রশ্নে গণভোটের যে দাবি উঠেছে, তা অনিবার্য। তাঁর মতে, যে সংকট তৈরি হয়েছে তা অবশ্যই ব্যালটের মাধ্যমে সুরাহা হতে হবে। এদিকে ৯ নেতাকে কারাদণ্ড দেওয়ার প্রতিবাদে স্পেনের বার্সেলোনা শহরে ব্যাপক হয়েছে বিক্ষোভ অব্যাহত রয়েছে।

দেশদ্রোহের দায়ে গত সোমবার স্পেনের আদালত কাতালোনিয়ার স্বাধীনতাকামী যে ৯ নেতাকে কারাদণ্ড দেন, হুনকয়েরাস তাঁদের একজন। সাবেক এই কাতালান ভাইস প্রেসিডেন্টের ১৩ বছরের কারাদণ্ড হয়েছে।

কারাগার থেকে ই-মেইলের মাধ্যমে বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে হুনকুয়েরাস জানান, স্বাধীনতার দাবিকে কেন্দ্র করে যে সংকট তৈরি হয়েছে, তার রাজনৈতিক একটা সমাধান মিলবে বলে তিনি আত্মবিশ্বাসী। তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে আমি নিশ্চিত যে ব্যালটের মাধ্যমেই এই সংকটের সমাধান করতে হবে। আজ হোক, কিংবা কাল; গণভোট দিতেই হবে। আর গণভোট না দিলে আমরা জনগণকে কী জবাব দেব?’

হুনকুয়েরাস বলেন, স্বাধীনতার প্রশ্নে ২০১৭ সালে যে গণভোট হয়েছিল, সেই গণভোটের একজন আয়োজক হিসেবে তিনি অনুতপ্ত নন। কাতালান এই নেতা জানান, তিনিসহ যাঁদের সাজা হয়েছে, সবাই মিলে এই মামলাকে ইউরোপের মানবাধিকারবিষয়ক আদালতে নিয়ে যাবেন।

স্বাধীনতার দাবি থেকে সরে আসবেন না জানিয়ে হুনকুয়েরাস বলেন, ‘কারাদণ্ড এবং নির্বাসন আমাদের আরো শক্তিশালী করে তুলেছে।’ ৯ জনের কারাদণ্ডের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি নিশ্চিত যে এই কারাদণ্ড আমাদের আন্দোলনকে দুর্বল করতে পারবে না, বরং উল্টো ঘটনাই ঘটবে।’

এদিকে ৯ নেতাকে কারাদণ্ড দেওয়ার পর বার্সেলোনাজুড়ে বিক্ষোভ শুরু হয়। পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষ হয় বার্সেলোনসার এল প্রাত বিমানবন্দরে। বাতিল করা হয় বিমানবন্দরের ১১০টি ফ্লাইট। এরই মধ্যে বিভিন্ন শহর থেকে বার্সেলোনা অভিমুখে যাত্রা শুরু করেছেন আন্দোলনকারীরা। আগামী শুক্রবার বার্সেলোনায় সমাবেশ করার পাশাপাশি ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন তাঁরা।

গতকাল কাতালান কর্তৃপক্ষ জানায়, বিমানবন্দরসহ বিভিন্ন এলাকায় পুলিশ ও বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষে অন্তত ১৭০ জন আহত হয়েছে। এর মধ্যে ৪০ পুলিশ কর্মকর্তাও রয়েছেন। সংঘর্ষের ঘটনায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে তিনজনকে।

হোয়ান গুইচ নামের এক বিক্ষোভকারী বলেন, ‘আমি প্রচণ্ড ক্ষুব্ধ। সেই সঙ্গে নিজেকে অসহায়ও মনে হচ্ছে।’ ১৯ বছর বয়সী এই শিক্ষার্থী বলেন, ‘৯ নেতাকে এমন মতাদর্শের কারণে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে, যে মতাদর্শের সঙ্গে আমি একমত।’ সূত্র : এএফপি, গার্ডিয়ান।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা