kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৯ নভেম্বর ২০১৯। ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বাবরি মসজিদ মামলার রায় আসন্ন

অযোধ্যায় ১৪৪ ধারা জারি

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৫ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ভারতে অযোধ্যায় রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদসংক্রান্ত মামলার রায় যেকোনো দিন ঘোষণা করতে পারেন দেশটির শীর্ষ আদালত। সুপ্রিম কোর্টে এই মামলার চূড়ান্ত পর্যায়ের শুনানি চলছে। আগামী ১৭ অক্টোবর বৃহস্পতিবার শুনানি শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। তার আগেই অযোধ্যায় ১৪৪ ধারা জারি করা হলো। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, নিরাপত্তার স্বার্থেই ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। শনিবার গভীর রাত থেকে কার্যকর ১৪৪ ধারা আগামী ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত জারি থাকবে। সুপ্রিম কোর্ট চাইছেন ১৭ নভেম্বর ভারতের বর্তমান প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের পদত্যাগের আগেই এই মামলার বিষয়ে একটি সিদ্ধান্তে পৌঁছতে।

সংবাদ সংস্থা এএনআই জেলা ম্যাজিস্ট্রেট অনুজ কুমার ঝার উদ্ধৃতি দিয়ে জানায়, ‘অযোধ্যা জমি মামলার রায় প্রত্যাশায় ১০ ডিসেম্বর পর্যন্ত জেলায় জেলায় ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। আসন্ন উৎসবগুলো বিবেচনায় নিয়েই ওই ১৪৪ ধারা জারির সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’ শনিবার গভীর রাতে অনুজ কুমার ঝা এক টুইট বার্তায় বলেন, ‘অযোধ্যায় যাঁরা বাস করছেন এবং বাইরে থেকে এখানে যাঁরা আসছেন তাঁদের সবার নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করেই এই আদেশ জারি করা হয়েছে।’

এদিকে বিশ্ব হিন্দু পরিষদ (ভিএইচপি) অযোধ্যায় ১৪৪ ধারা জারির বিষয়ে নিজেদের হতাশা প্রকাশ করেছে এবং দীপাবলি উপলক্ষে ওই বিতর্কিত জমিতে মাটির প্রদীপ জ্বালানোর অনুমতি চেয়েছে। ভিএইচপির মহন্ত নয়ন দাস বলেন, ‘পুরো অযোধ্যা যখন দীপাবলিতে আলোকিত হবে, তখন রাম লাল্লা কেন অন্ধকারে থাকবে? আমরা বিভাগীয় কমিশনারের সঙ্গে দেখা করে এই বিতর্কিত স্থানে প্রদীপ জ্বালানোর জন্যে অনুমতি চাইব।’

৭২ দিন পর কাশ্মীরে চালু পোস্টপেইড মোবাইল

প্রায় আড়াই মাস পর গতকাল সোমবার দুপুর ১২টা থেকে জম্মু ও কাশ্মীর উপত্যকায় ফের চালু হয়েছে পোস্টপেইড মোবাইল পরিষেবা।

গত ৫ আগস্ট সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিল করে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা প্রত্যাহার করা এবং রাজ্যকে ভেঙে দুই ভাগ করা হয়। সেই দিন থেকেই উপত্যকায় সরকারি নিয়ন্ত্রণের কড়াকড়ি চলছে। সূত্র : এনডিটিভি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা