kalerkantho

শুক্রবার । ২৪ জানুয়ারি ২০২০। ১০ মাঘ ১৪২৬। ২৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১     

উত্তর সিরিয়ায় বিমান হামলা তুরস্কের

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১০ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



সিরিয়ায় পশ্চিমা সমর্থিত কুর্দি মিলিশিয়াদের শক্তি খর্ব করতে এবং তাদের সীমান্ত এলাকা থেকে তাড়াতে সামরিক অভিযান শুরু করেছে তুরস্ক। গতকাল বুধবার অভিযানের শুরুতে উত্তর-পূর্ব সিরিয়ায় কুর্দি মিলিশিয়া গোষ্ঠী এসডিএফের অবস্থানে বিমান হামলা চালানো হয়েছে। এতে দুজন বেসামরিক মানুষের প্রাণহানির খবর জানিয়েছে এসডিএফ।

তুরস্ক রাতভর সীমান্তে বিপুল সংখ্যায় সেনা সমাবেশ এবং সাঁজোয়া যান জড়ো করে। তুরস্কের সেনাদের সঙ্গে রয়েছে তাদের সমর্থিত সিরিয়ান আরবদের বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলোর জোট সিরিয়ান ন্যাশনাল আর্মির কয়েক হাজার মিলিশিয়া।

এসডিএফ তুরস্কের এই অভিযান প্রতিহত করার অঙ্গীকার করেছে। সিরিয়ায় সেনা অভিযান চালানো হবে বলে গতকাল দুপুরে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়িপ এরদোয়ান ঘোষণা দেওয়ার পরপরই এসডিএফ নিরীহ মানুষের ওপর হামলা বন্ধে উত্তর-পূর্ব সিরিয়ায় নো ফ্লাই জোন তৈরির জন্য যুক্তরাষ্ট্রকে অনুরোধ জানায়। তুর্কি সেনাদের প্রতিরোধে সীমান্তের দিকে এগোতে সাধারণ কুর্দিদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সিরিয়ায় আইএস দমনে যুক্তরাষ্ট্রের মিত্র হিসেবে লড়াই করা এসডিএফ।

এরদোয়ান ‘অপারেশন পিস স্প্রিং’ নামের এই সেনা অভিযান শুরুর ঘোষণা দিয়ে টুইট করেন, ‘আমাদের দক্ষিণ সীমান্তে সন্ত্রাসের একটি করিডর যাতে তৈরি না হয় তা নিশ্চিত করা এবং সেখানে শান্তি প্রতিষ্ঠাই তুরস্কের এই অভিযানের উদ্দেশ্য।’ উত্তর-পূর্ব সিরিয়ায় যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত এসডিএফকে তুরস্ক একটি সন্ত্রাসীগোষ্ঠী হিসেবে বিবেচনা করে। তুরস্ক মনে করে, এসডিএফ তুরস্কের অভ্যন্তরে তৎপর কুর্দি বিচ্ছিন্নতাবাদীদের উসকানি দিচ্ছে।

এসডিএফ সতর্ক করে বলেছে, তাদের নিয়ন্ত্রিত এলাকায় তুর্কি সামরিক অভিযানে চরম মানবিক বিপর্যয় ঘটবে। এই অভিযানে হাজার হাজার নিরপরাধ বেসামরিক লোকজনের রক্ত বইবে। সূত্র : বিবিসি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা