kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ নভেম্বর ২০১৯। ২৭ কার্তিক ১৪২৬। ১৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

কাশ্মীর সংকট

ভারতের সঙ্গে যুদ্ধ বাধাবে না পাকিস্তান : ইমরান

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ভারতের সঙ্গে যুদ্ধ বাধাবে না পাকিস্তান : ইমরান

পাকিস্তান ও ভারত উভয়ই পরমাণু শক্তিধর দেশ এবং এ দুই দেশের মধ্যে দ্বন্দ্ব বাড়লে তা বিশ্বশান্তির জন্য হুমকি হয়ে উঠতে পারে—এমনটাই বললেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। কাশ্মীর ইস্যু নিয়ে অনবরত মারমুখী বক্তব্য দিতে থাকা এ নেতা গত সোমবার আরো বলেন, পাকিস্তান কখনো যুদ্ধ শুরু করবে না। গভর্নর হাউসে তিন দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক শিখ সম্মেলনের সমাপনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

ইমরানের মতে, ভারত-পাকিস্তান বিস্ফোরোন্মুখ বোমার ওপর বসে আছে। সংকট নিরসনে দারিদ্র্য, বেকারত্ব ও জলবায়ু পরিবর্তনের মতো গুরুতর ইস্যুগুলো সামাধান করতে হবে এবং এ জন্য যৌথ উদ্যোগ প্রয়োজন। তিনি বলেন, ‘(গত বছর আগস্টে) প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব গ্রহণের পর আমি পাক-ভারত সম্পর্কোন্নয়নের সিদ্ধান্ত নিই এবং ভারত এক পা এগোলে আমরা দুই পা এগোব বলে ঘোষণা দিই। আমি নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে কথা বলি এবং ৭২ বছর ধরে চলমান কাশ্মীর সংকটের সমাধানে তাঁকে আলোচনার পরামর্শ দিই।’ কিন্তু মোদি হাম্বড়া ভাব দেখিয়েছেন বলে দাবি ইমরানের।

পাকিস্তানের সরকারপ্রধান আরো বলেন, এক বছর ধরে ভারতের আচরণে মনে হচ্ছে, তারা পরাশক্তি এবং তারা এক গরিব দেশের সঙ্গে কথা বলছে। যারা যুদ্ধের মাধ্যমে সমাধানের কথা ভাবছে, তারা বোকা বলে মন্তব্য করেন ইমরান। যারা যুদ্ধ বাধানোর চেষ্টা করছে, তারা বহু বছর ধরে অনুতাপ করবে বলেও সতর্ক করে দেন তিনি।

ইমরানের এসব বক্তব্যের পরদিন গতকাল মঙ্গলবার তাঁর পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কোরেশি বলেন, কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তান ভারতের সঙ্গে আলোচনা করে শান্তিপূর্ণ সমাধানে পৌঁছাতে চায়। অভ্যন্তরীণ ও বিদেশি ইস্যুগুলো পাকিস্তান পর্যালোচনা করবে বলেও জানান এ কূটনীতিক। কার্যকর পররাষ্ট্রনীতির ব্যাপারে বিশ্বাঙ্গনে পাকিস্তানের সুনাম আছে দাবি করে তিনি বলেন, ‘কাশ্মীর ইস্যু সমাধানের মাধ্যমে আমরা আঞ্চলিক সংকটগুলো সফলভাবে মোকাবেলা করতে পারব।’

গত ৫ আগস্ট সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করে ভারতশাসিত কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা কেড়ে নেওয়া হয় এবং সেখানে কেন্দ্রের শাসন জারি করা হয়। এর পর থেকে কাশ্মীর ইস্যুতে কঠোর ভারতবিরোধী মন্তব্য করে আসছিলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান। বিষয়টি নিয়ে আলোচনার জন্য তিনি জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে চিঠিও দিয়েছেন। পরিষদ বিষয়টি নিয়ে রুদ্ধদ্বার আলোচনা করলেও বেশির ভাগ সদস্য দেশ মন্তব্য করে, কাশ্মীর ভারত-পাকিস্তানের দ্বিপক্ষীয় ইস্যু এবং দুই পক্ষের আলোচনার মাধ্যমে এর সমাধান হওয়া উচিত। এর পরও ইমরানের কঠোর কথাবার্তা অব্যাহত ছিল। তবে গত সোমবার সেই কঠোরতা থেকে খানিকটা সরে এসেছেন তিনি। এরপর গতকাল তাঁর পররাষ্ট্রমন্ত্রী ভারতের সঙ্গে আলোচনার কথাও বলেছেন। সূত্র : ডন, টাইমস অব ইন্ডিয়া।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা