kalerkantho

যুক্তরাষ্ট্রের ভারপ্রাপ্ত গোয়েন্দাপ্রধানের নাম ঘোষণা

আরো দুই কর্মকর্তার পদত্যাগ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১০ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



যুক্তরাষ্ট্রের ভারপ্রাপ্ত গোয়েন্দাপ্রধানের নাম ঘোষণা

জোশেফ ম্যাগুয়ার

যুক্তরাষ্ট্রের ভারপ্রাপ্ত গোয়েন্দাপ্রধান হিসেবে সাবেক নৌ কর্মকর্তা জোশেফ ম্যাগুয়ারের নাম ঘোষণা করেছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আগামী ১৫ আগস্ট তিনি ড্যান কোটসের পদে স্থলাভিষিক্ত হবেন। এদিন পদত্যাগ করছেন জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার উপপরিচালক সু গর্ডন। ডেমোক্র্যাটদের অভিযোগ, ট্রাম্প দুজন নিবেদিত গোয়েন্দা কর্মকর্তাকে সরিয়ে দিলেন।

গত ২৮ জুলাই ট্রাম্প প্রশাসন থেকে পদত্যাগের ঘোষণা দেন জাতীয় গোয়েন্দা পরিচালক ড্যান কোটস। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সঙ্গে বিভিন্ন নীতিতে মতবিরোধ দেখা দেওয়ায় কোটস এ সিদ্ধান্ত নেন। এর পরই টেক্সাসের কংগ্রেসম্যান জন র‌্যাটক্লিফকে গোয়েন্দাপ্রধান হিসেবে মনোয়ননের কথা জানান ট্রাম্প। তবে জাতীয় নিরাপত্তার জন্য স্পর্শকাতর পদটির রাজনীতিকীকরণ নিয়ে উদ্বেগ দেখা দেয়। একই সঙ্গে র‌্যাটক্লিফকে সিনেট অনুমোদন দেবে কি না, এ নিয়েও যথেষ্ট সন্দেহ ছিল। এ নিয়ে কঠোর সমালোচনা করেন গোয়েন্দা কর্মকর্তা ও ডেমোক্র্যাটরা। এমন পরিস্থিতিতে র‌্যাটক্লিফকে মনোয়নয়ন দেওয়ার সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেন ট্রাম্প।

সিআইএ, এনএসএসহ যুক্তরাষ্ট্রের ১৭টি গোয়েন্দা সংস্থা তদারকির দায়িত্ব পালন করে থাকেন জাতীয় গোয়েন্দা পরিচালক। ড্যান কোটসের পদে স্থলাভিষিক্ত হতে যাওয়া জোশেফ ম্যাগুয়ার বর্তমানে ন্যাশনাল কাউন্টার টেররিজম সেন্টারের (এনসিটিসি) পরিচালক পদে আছেন। তিনি মার্কিন নৌবাহিনীর সিল টিম-টুর কমান্ডিং অফিসার ছিলেন। এ ছাড়া তিনি নেভাল স্পেশাল ওয়েলফেয়ার সেন্টারের নেতৃত্বে ছিলেন। জোশেফের বিষয়ে ট্রাম্প বলেছেন, ‘তিনি যে দারুণ কাজ করবেন, তাতে আমার কোনো সন্দেহ নেই।’

বৃহস্পতিবার সুউ গর্ডনের পদত্যাগের কথা জানান মার্কিন প্রেসিডেন্ট। সিআইএর অভিজ্ঞ এ কর্মকর্তাকে নিয়ে ট্রাম্প বলেন, ‘দীর্ঘ কর্মজীবনে গর্ডন দারুণ পেশাদারত্ব দেখিয়েছেন। দুই বছর ধরে তাঁকে খুব ভালো করে জানি। তাঁর প্রতি আমার শ্রদ্ধা আছে।’ এ বক্তব্যের খানিক বাদেই টুইটারে নতুন গোয়েন্দাপ্রধানের নাম ঘোষণা করেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তার পদত্যাগ : এদিকে ট্রাম্পের ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে বৃহস্পতিবার পদত্যাগ করেছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বৈদেশিক সেবাসংক্রান্ত কর্মকর্তা চাক পার্ক। দ্য ওয়াশিংটন পোস্টে তিনি এক উপসম্পাদকীয় লিখেছেন। তাতে তিনি পদত্যাগের জন্য ট্রাম্পের নৈরাজ্য ব্যবস্থাকে দায়ী করেছেন। উল্লেখ করেছেন এল পাসোতে নির্বিচারে গুলি চালিয়ে হত্যার ঘটনা। পদত্যাগী কর্মকর্তা বলেন, ‘আমি আমেরিকান মূল্যবোধ যেমন স্বাধীনতা, ন্যায়পরায়ণতা ও সহনশীলতায় বিশ্বাসী। কিন্তু দিন দিন আমি নিজেকে বিরোধী অবস্থানে দেখতে পাচ্ছি।’ সূত্র : টাইম, এএফপি, সিএনএন।

 

মন্তব্য