kalerkantho

দুর্নীতি মামলায় মরিয়ম গ্রেপ্তার

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৯ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দুর্নীতি মামলায় মরিয়ম গ্রেপ্তার

চৌধুরী চিনিকল দুর্নীতিতে জড়িত থাকার অভিযোগে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের মেয়ে এবং পাকিস্তান এমএলএনের সহসভাপতি মরিয়ম নওয়াজকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বাবা নওয়াজ শরিফের সঙ্গে দেখা করে ফেরার পথে তাঁকে গ্রেপ্তার করে ন্যাশনাল অ্যাকাউন্টেবিলিটি ব্যুরো (এনএবি)। এ সময় একই অভিযোগে তাঁর চাচাতো ভাই ইউসুফ আব্বাসকেও গ্রেপ্তার করা হয়।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এনএবি জানায়, গ্রেপ্তারের পর তাঁদের দুজনকে এনএবির হেডকোয়ার্টারে রাখা হয়েছে। আইন অনুযায়ী রিমান্ডে নেওয়ার জন্য আজ শুক্রবার তাঁদের লাহোরের একটি জবাবদিহি আদালতে হাজির করা হবে। এর আগে ডাক্তারদের একটি দল তাঁদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করবে। দুর্নীতি মামলা ইস্যুতে গতকাল এনএবির সামনে হাজির হওয়ার কথা ছিল মরিয়মের। কিন্তু সেখানে না গিয়ে বাবার সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ায় তাঁর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়।

এদিকে মরিয়মকে গ্রেপ্তারের ঘটনায় পাকিস্তানের রাজনৈতিক মহলে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। মরিয়ম আওরঙ্গজেব, আহসান ইকবালসহ পিএমএলএনের অন্যান্য নেতা ও সমর্থকরা এ ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন। দলটির সভাপতি শেহবাজ শরিফ এক বিবৃতিতে এ গ্রেপ্তারকে ‘ভুল পদক্ষেপ’ হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, ‘নওয়াজ শরিফ ও তাঁর নাতি-নাতনিদের সামনেই মরিয়মকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বিষয়টি একই সঙ্গে নিন্দনীয়, লজ্জাজনক ও অনুশোচনাযোগ্য। সরকার অন্ধের মতো রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করছে।’

পাকিস্তান পিপলস পার্টির চেয়ারম্যান বিলওয়াল ভুট্টো জারদারিও এ ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন। সরকারের কঠোর সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘অত্যাচারী একনায়ক জিয়াউল হক রাজনৈতিক প্রতিপক্ষদের পরিবারের নারীদের বিরুদ্ধে মামলা করে হয়রানি করতেন। নতুন পাকিস্তানে এ ধারা আবার ফিরে এসেছে বলে মনে হচ্ছে। এ নির্লজ্জ কাজের জন্য ইতিহাস ইমরান খানকে মনে রাখবে।’

প্রসঙ্গত, গত বছরের অক্টোবরে নওয়াজ শরিফ, মরিয়ম নওয়াজ, শাহবাজ শরিফ ও মৃত আব্বাস শরিফের পরিবারের বিরুদ্ধে চৌধুরী চিনিকলের মাধ্যমে বিদেশে অর্থপাচারের অভিযোগ এনে তদন্ত শুরু করে এনএবি। সূত্র : ডন।

 

মন্তব্য