kalerkantho

মঙ্গলবার। ২০ আগস্ট ২০১৯। ৫ ভাদ্র ১৪২৬। ১৮ জিলহজ ১৪৪০

প্রত্যর্পণ বিল নিয়ে ক্ষোভে ফুঁসছে হংকং

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৪ জুন, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



প্রত্যর্পণ বিল নিয়ে ক্ষোভে ফুঁসছে হংকং

হংকংয়ে বিক্ষোভকারীদের বসানো ব্যারিকেড গতকাল সরিয়ে ফেলে পুলিশ। ছবি : এএফপি

বিচারের জন্য নাগরিকদের চীনের কাছে হস্তান্তরের সুযোগ রেখে প্রস্তাবিত বিলকে কেন্দ্র করে হংকংয়ের পরিস্থিতি চরম উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে। বিক্ষোভকারীরা আন্দোলনের নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করেছে। আগামী রবিবার বিশাল সমাবেশ করার ঘোষণা দিয়েছেন নেতারা। গত বুধবার পূর্বনির্ধারিত বিক্ষোভে পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের ব্যাপক সংঘর্ষের পর নেতারা এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন। বুধবারের সমাবেশে অংশগ্রহণকারীদের রাস্তা থেকে সরিয়ে দিতে পুলিশ ব্যাপক হারে কাঁদানে গ্যাস, রাবার বুলেট ও জলকামান ব্যবহার করে।

আগের দিন সংঘর্ষের পর গতকাল বৃহস্পতিবারও হংকংয়ের গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলোতে কয়েক হাজার বিক্ষোভকারী জড়ো হয়। দিন গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে পর্যবেক্ষকদের ধারণা। তবে আগের দিনের তুলনায় বিক্ষোভকারীর সংখ্যা অনেকটা কম এবং আগের দিনের মতো পুলিশের সঙ্গে এখন পর্যন্ত কোনো সংঘর্ষ হয়নি।

সরকার প্রস্তাবিত আইন বাতিল করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে এবং এই প্রতিবাদকে ‘দাঙ্গা’ বলে বর্ণনা করেছে। এদিকে এই আন্দোলন স্থানীয় সরকারের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের মুখোমুখি স্থানে দাঁড় করিয়ে দিয়েছে। যদিও সরকার আন্দোলনের উত্তাপকে স্তিমিত করতে পার্লামেন্টে বিলের ওপর বিতর্ক স্থগিত করেছে তবে আন্দোলনকারীরা তাদের আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। এ ছাড়া আগামী রবিবার সমাবেশ এবং সোমবার শহরে ধর্মঘট আহ্বান করেছে।

হংকংয়ের বেইজিংপন্থী প্রধান নির্বাহী ক্যারি লাম বুধবারের সহিংসতার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। তিনি দ্রুত আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনার আহ্বান জানিয়েছেন এবং ওই দিনের প্রতিবাদকে সংঘবদ্ধ দাঙ্গা আখ্যায়িত করেছেন।

হংকংয়ে এই আন্দোলনের মূল নেতৃত্ব দিচ্ছে সিভিল হিউম্যান রাইটস ফ্রন্ট (সিএইচআরএফ)। সংস্থাটির কর্মকর্তা জিমি শ্যাম বলেন, ‘হংকংয়ের জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আমরা শেষ পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যাব। আমরা আগামী রবিবারের সমাবেশের জন্য এরই মধ্যে আবেদন করেছি। যখন আমরা চাপের মোকাবেলা করব তখন আমরা আরো শক্তিশালী হব।’ সূত্র : এএফপি।

 

মন্তব্য