kalerkantho

বুধবার । ১১ ডিসেম্বর ২০১৯। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৩ রবিউস সানি     

মালদ্বীপের পার্লামেন্টে মোদি

সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান

মোদিকে মালদ্বীপের সর্বোচ্চ সম্মাননা প্রদান

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৯ জুন, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দ্বিতীয়বার ভারতের প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর প্রথম বিদেশ সফরে মালদ্বীপে গিয়ে নরেন্দ্র মোদি সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সব জাতিকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। এ ছাড়া প্রতিবেশী দেশটিকে সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দিয়েছেন তিনি। অন্যদিকে গতকাল শনিবারের এই সফরে মালদ্বীপ তাঁকে দিয়েছে বিদেশিদের জন্য দেশটির সর্বোচ্চ সম্মাননা ‘অর্ডার অব দ্য ডিসটিংগুইশড রুল অব নিশান ইজুদ্দিন’।

সফরে মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম সোলিহর সঙ্গে দেখা করেন মোদি। মোদি এ সময় সোলিহকে একটি ক্রিকেট ব্যাট উপহার দেন। এবারের ক্রিকেট বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী ভারতীয় খেলোয়াড়দের স্বাক্ষর রয়েছে এই ব্যাটে। সাক্ষাতে ভারতের সরকারপ্রধান মালদ্বীপকে ক্রিকেট খাতের পাশাপাশি সব ধরনের ইতিবাচক সহযোগিতার আশ্বাস দেন। গতকাল দুই দেশের মধ্যে সমঝোতা চুক্তিও স্বাক্ষরিত হয়।

সফরসূচির অংশ হিসেবে মোদি গতকাল মালদ্বীপের পার্লামেন্টে ভাষণ দেন। ভাষণে তিনি রাষ্ট্রীয় অর্থায়নে সন্ত্রাসবাদকে সবচেয়ে বড় হুমকি আখ্যা দেন এবং ঐক্যবদ্ধভাবে সন্ত্রাসবাদ মোকাবেলায় সবাইকে আহ্বান জানান। তিনি জলবায়ু পরিবর্তনের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার কথাও বলেন। এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় নবায়নযোগ্য জ্বালানির ব্যবহার একটি ভালো উপায় হতে পারে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

মালদ্বীপের ব্যাপারে মোদির অভিমত, দেশটি টেকসই উন্নয়নের লক্ষ্যে কাজ করছে এবং এতে তিনি আনন্দিত। ভারত ও মালদ্বীপ ‘ভালো প্রতিবেশী’ এবং ‘সত্যিকার বন্ধু’, এমন মন্তব্য করেন তিনি। প্রতিবেশী দেশের অন্যতম প্রাচীন মসজিদ ‘ফ্রাইডে মস্ক’ রক্ষায় ভারত সহযোগিতা করবে বলে তিনি জানান। বক্তৃতা শেষে তাঁকে দাঁড়িয়ে অভিবাদন জানান মালদ্বীপের পার্লামেন্টের সদস্যরা। দুই দিনের বিদেশ সফরের অংশ হিসেবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী মালদ্বীপ থেকে যাবেন শ্রীলঙ্কায়। দুই প্রতিবেশী দেশে সফরের কারণ ব্যাখ্যায় মোদি টুইটে জানিয়েছেন, ভারত সরকারের ‘প্রতিবেশীদের অগ্রাধিকার’ নীতিকে গুরুত্ব দিতেই এই সফর। সূত্র : ইন্ডিয়া টুডে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা