kalerkantho

রবিবার । ২৬ মে ২০১৯। ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬। ২০ রমজান ১৪৪০

ইরানের হুমকি নিয়ে বিভক্তি মার্কিন জোটে

‘জরুরি নয়’ এমন কর্মীদের বাগদাদ ছাড়ার নির্দেশ যুক্তরাষ্ট্রের

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৬ মে, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ইরানের হুমকি নিয়ে বিভক্তি মার্কিন জোটে

ইরাক ও সিরিয়ায় নিযুক্ত মার্কিন নেতৃত্বাধীন বাহিনীর মধ্যে ইরানের হুমকির বিষয়ে বিপরীতমুখী মতামত পাওয়া যাচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্র মনে করে মধ্যপ্রাচ্যে তারা ও তাদের সহযোগীরা ইরানের হুমকির মুখে রয়েছে। তবে ওই অঞ্চলে নিযুক্ত এক ব্রিটিশ জেনারেল জানিয়েছেন, তাঁরা মনে করেন না, এমন গুরুতর কোনো পরিস্থিতির উদ্ভব হয়েছে।

ইরানের হুমকির কারণে যুক্তরাষ্ট্র ওই এলাকায় রণতরী পাঠিয়ে সেখানকার শক্তি বৃদ্ধি অব্যাহত রেখেছে।

মধ্যপ্রাচ্যে আইএসবিরোধী অভিযান ‘অপারেশন ইনহারেন্ট রিজলভ’-এর ব্রিটিশ মুখপাত্র মেজর জেনারেল ক্রিস ঘিকা বলেন, ওই অঞ্চলে ইরানের কাছ থেকে গুরুতর কোনো হুমকি রয়েছে বলে মনে করেন না তাঁরা। পেন্টাগন থেকে এক টেলিকনফারেন্সে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ইরাক ও সিরিয়ায় ইরান সমর্থিত বাহিনীর কাছ থেকে কোনো হুমকি নেই। তাঁর এই মন্তব্যের পর তাত্ক্ষণিকভাবে পাল্টা জবাব দিয়েছে মার্কিন সেন্ট্রাল কমান্ড। এর মুখপাত্র ক্যাপ্টেন বিল আরবান বলেন, ‘ইরান সমর্থিত বাহিনী ওই অঞ্চলে হুমকির সৃষ্টি করেছে বলে আমাদের কাছে যুক্তরাষ্ট্র ও এর সহযোগীদের বিশ্বাসযোগ্য তথ্য রয়েছে। জেনারেল ঘিকার মন্তব্য ঠিক তার বিপরীত।’ আর নিজেদের গোয়েন্দা তথ্যের দোহাই দিয়ে এরই মধ্যে ওই এলাকায় ইউএসএস আব্রাহাম লিংকন ক্যারিয়ার মোতায়েন করা হয়েছে। ক্রমেই বাড়িয়ে তোলা হচ্ছে এর শক্তি।

যদিও যুদ্ধ শুরুর কোনো ইচ্ছা নেই বলে কয়েকবারই জানিয়েছে ইরান ও যুক্তরাষ্ট্র। তবে যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে প্রায় প্রতিদিনই নানা ভাষা ব্যবহার করে হুমকি দেওয়া অব্যাহত রয়েছে। গত মঙ্গলবার রাশিয়ার সোচিতে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও আবার বলেন, ‘আমরা আবারও স্পষ্ট করে বলতে চাই, ইরানিরা যদি মার্কিন স্বার্থের ওপর আঘাত হানে তাহলে আমরাও তার সমুচিত জবাব দেব।’ যদিও ইরানের তরফ থেকে ঠিক কী হুমকি রয়েছে সে বিষয়টি এখনো স্পষ্ট করেনি যুক্তরাষ্ট্র।

ফলে যুক্তরাষ্ট্রের হুমকি এবং ইরানের হুমকির বিষয়টি স্পষ্ট না করা পুরো বিষয়টিকে ধোঁয়াটে করে তুলেছে। সমালোচকরা আশঙ্কা প্রকাশ করছেন, যুক্তরাষ্ট্র উদ্দেশ্যমূলকভাবে ওই অঞ্চলের পরিস্থিতিতে উত্তেজনা ছড়াচ্ছে।

ফের ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণের হুমকি ইরানের

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি বলেছেন, তাঁর দেশের পক্ষে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার উপযোগী ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ আবারও শুরু করা কঠিন কিছু নয়। ইরানের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম গতকাল খামেনির বরাদ দিয়ে এ তথ্য জানায়। গত মঙ্গলবার রাতে খামেনি আরো বলেন, কেউই যুদ্ধ চায় না। তবে আক্রান্ত হলে ইরান তার সমুচিত জবাব দেবে।

জরুরি নয় এমন কর্মীদের বাগদাদ ছাড়ার নির্দেশ যুক্তরাষ্ট্রের

অতি জরুরি নয় এমন দূতাবাসকর্মীদের বাগদাদ ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। আরবিলের কনস্যুলেট কর্মীদেরও ইরাক ছেড়ে যেতে বলা হয়েছে। ইরানের সঙ্গে উত্তেজনা বাড়ার প্রেক্ষাপটে এ সিদ্ধান্ত নিল যুক্তরাষ্ট্র। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সতর্ক বার্তায় এ নির্দেশনা দেওয়া হয়।

বৈশ্বিক তেল সরবরাহে হামলা : সৌদি

বিশ্বের শীর্ষ অপরিশোধিত তেল বিক্রেতা সৌদি আরব দাবি করেছে, তাদের দুটি তেলের ট্যাংকার ও পাইপলাইনের ওপর হামলা বৈশ্বিক তেল সরবরাহের ওপর হামলার শামিল। জেদ্দায় বাদশাহ সালমানের নেতৃত্বে এক বৈঠকের পর দেওয়া এক বিবৃতিতে এ অভিযোগ করা হয়।

ইরান ‘আগ্রাসনে’ ট্রাম্পের পাশে থাকবেন নেতানিয়াহু

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, ইরানের বিরুদ্ধে ‘আগ্রাসনে’ ট্রাম্পের প্রতি তাঁর সমর্থন অব্যাহত থাকবে। সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য