kalerkantho

শুক্রবার  । ১৮ অক্টোবর ২০১৯। ২ কাতির্ক ১৪২৬। ১৮ সফর ১৪৪১              

ইমরান খান বললেন

পাকিস্তানে জঙ্গি সংস্কৃতির কোনো স্থান নেই

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৩ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পাকিস্তানে জঙ্গি সংস্কৃতির কোনো স্থান নেই

পাকিস্তানে জঙ্গিঘাঁটি এবং জঙ্গি সংস্কৃতির কোনো স্থান নেই বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। সন্ত্রাসীদের বিষয়ে বিশ্বব্যাপী পাকিস্তানের সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি হওয়ায় ইসলামাবাদে সম্পাদক ও শীর্ষস্থানীয় সাংবাদিকদের সঙ্গে আলোচনাকালে তিনি এ কথা বলেন।

ইমরান খান বলেন, ন্যাশনাল অ্যাকশন প্ল্যানের বিষয়ে সব রাজনৈতিক দল সম্মত হয়েছে এবং এখন থেকে জঙ্গি দল নিষিদ্ধ। পাকিস্তানের মাটিতে এই ধরনের কর্মকাণ্ড তাঁর সরকার মেনে নেবে না। সে কারণে তাদের বিরুদ্ধে আরো ব্যবস্থা নেওয়া হবে। জঙ্গিদলের ঘাঁটি ও সংস্কৃতির ইতিহাস সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘এসব দল আফগানিস্তানে সোভিয়েত ইউনিয়নের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের নেতৃত্বাধীন আফগান যুদ্ধের সময় থেকে রয়েছে এবং এখান থেকে দশকের পর দশক ধরে তারা তাদের কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে। কিন্তু এই ধরনের দলের জন্য এই দেশে কোনো স্থান নেই। পাকিস্তান একটি শান্তিপ্রিয় দেশ বলে বিশ্ববাসীর সামনে নিজেদের প্রমাণ করতে চায়। পাকিস্তান স্বল্প এবং দীর্ঘ নীতির মাধ্যমে সন্ত্রাস ও জঙ্গি কার্যক্রম মুছে ফেলার জন্য আন্তরিক।

আলোচনায় ইমরান খান বলেন, ‘পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ঘৃণার রাজনীতির ওপর ভর করে ভারতের এনডিএ সরকার আসন্ন নির্বাচনে জয় পেতে চায়।’ ইমরান খান সতর্ক করে দিয়ে আরো বলেন, ‘ভারতের নির্বাচন শেষ না হওয়া পর্যন্ত লাইন অব কন্ট্রোলে (এলওসি) নিরাপত্তা ঝুঁকি রয়েছে। ভারত ফিন্যানশিয়াল অ্যাকশন টাস্ক ফোর্সে (এফএটিএফ) আমাদের কালো তালিকাভুক্ত করার জন্য চেষ্টা করছিল এবং সত্যিই যদি তাদের চেষ্টা সফল হতো তাহলে আমরা বড় ধরনের অর্থনৈতিক সমস্যার মুখে পড়তাম।’

ইমরান খান বলেন, ‘আমাদের দেশের সেনাবাহিনী সব সময় প্রস্তুত এবং যেকোনো ধরনের সামরিক আগ্রাসনের যুগোপযোগী জবাব দেবে।’ সেই সঙ্গে তিনি যেকোনো পরিস্থিতির জন্য দেশবাসীকে প্রস্তুত থাকার জন্য বলেছেন। দেশের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘অনেক আগেই নিষিদ্ধ সংগঠনগুলো আমাদের দেশ থেকে নিশ্চিহ্ন হয়ে যাওয়া উচিত ছিল। কিন্তু তা হয়নি, তবে তাঁর সরকার এই দলগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছে। সরকার তাদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে আনতে প্রচুর অর্থ ব্যয় করছে।’

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা