kalerkantho

রবিবার। ১৭ নভেম্বর ২০১৯। ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

বিবিসি ফ্যাক্টচেক

ভুয়া ছবি দিয়ে বালাকোট হামলা প্রমাণের চেষ্টা ভারতীয় মন্ত্রীর

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৮ মার্চ, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



পাকিস্তানের বালাকোটে ভারতীয় বিমান হামলা নিয়ে দেশটির ইউনিয়নমন্ত্রী গিরিরাজ সিংয়ের একটি টুইট ভারতজুড়ে ভাইরাল হয়েছে। টুইটে সংযুক্ত ভিডিওতে দাবি করা হয় যে ভারতীয় বিমানবাহিনীর ওই হামলায় একটি জঙ্গিগোষ্ঠীর প্রশিক্ষণ শিবির ধ্বংস হয়েছে। ভারতের একটি নামকরা টেলিভিশন চ্যানেলে ভিডিওটি সম্প্রচার করা হয়। ভিডিওতে বালাকোটের দুটি স্যাটেলাইট চিত্র দেখানো হয়েছে, যার প্রথমটি বিমান হামলার আগের এবং অন্যটি হামলার পরের চিত্র বলে দাবি করা হয়। ফেসবুক, টুইটার এবং ইউটিউবে ভিডিওটি লাখ লাখ বার দেখা এবং শেয়ার করা হয়েছে। ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের পুলওয়ামাতে জইশ-ই-মোহাম্মদের দাবি করা হামলায় ৪০ জন ভারতীয় সেনা নিহত হওয়ার পর ভারত পাকিস্তানের অভ্যন্তরে বিমান হামলা চালায়। তবে হামলার সফলতা প্রমাণের উদ্দেশ্যে তৈরি ভিডিওটির সত্যতা নিয়ে ব্যাপক সন্দেহ তৈরি হয়েছে।

ছবিগুলো কি আসলেই সত্যি? : ভিডিওর প্রথম স্যাটেলাইট চিত্রটি হামলার আগে ২৩ ফেব্রুয়ারি ধারণ করা হয়েছে বলে দাবি করা হয়। যেখানে দ্বিতীয় ছবিটি ২৬ ফেব্রুয়ারি, অর্থাৎ হামলার পরে ধারণ করা বলে দাবি করা হয়েছে। ছবিটিতে দেখতে পাওয়া একটি ধ্বংসপ্রাপ্ত ভবনকে দেখিয়ে বলা হয়, সেটি ভারতীয় বিমানের হামলায় ধ্বংস হয়েছে। তবে বিবিসির ফ্যাক্টচেক দলের অনুসন্ধানে দেখা গেছে, দ্বিতীয় ছবিটি বেশ কয়েক বছর আগে ধারণ করা। ভিডিওতে দেওয়া অক্ষাংশ এবং দ্রাঘিমাংশের সাহায্যে বিবিসি দেখেছে যে ছবিটি তোলা হয়েছে ‘জুম আর্থ’ ওয়েবসাইট  থেকে। এটি আসলে মাইক্রোসফটের বিং ম্যাপের স্যাটেলাইট ছবির ওয়েবসাইট।

ওয়েবসাইটটির প্রতিষ্ঠাতা পল নিভ বিবিসিকে বলেন, ওই ছবিটির সঙ্গে বিমান হামলাকে সংযুক্ত করার সুযোগ নেই। তিনি আরো বলেন, ‘হ্যাঁ, ভবনটিতে বোমা হামলার প্রমাণ হিসেবে ছবিটি ব্যবহৃত হচ্ছে, কিন্তু ঘটনা আসলে সে রকম কিছু নয়। বরং ছবিটি সম্ভবত বেশ কয়েক বছর আগে তোলা এবং তাতে দেখা যাচ্ছে যে ভবনটির নির্মাণকাজ চলছে।’

জম্মুতে গ্রেনেড বিস্ফোরণে হতাহত ৩০ : ভারতের জম্মুতে একটি বাস স্টপেজে গ্রেনেড বিস্ফোরণে একজন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় অন্তত ২৯ জন আহত হয়েছে। সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা