kalerkantho

আসন্ন লোকসভা নির্বাচন

বিজেপির রক্তচাপ বাড়িয়ে জোট ঘোষণা মায়াবতী ও অখিলেশের

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৩ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বিজেপির রক্তচাপ বাড়িয়ে জোট ঘোষণা মায়াবতী ও অখিলেশের

ভারতের এবারের লোকসভা ভোটে ‘গুরু’ আর ‘চেলা’র ঘুম একই সঙ্গে ছুটিয়ে দেবেন বলে জানালেন বহুজন সমাজ পার্টির (বিএসপি) নেত্রী মায়াবতী। আসন্ন লোকসভা ভোটে উত্তর প্রদেশে ‘চিরশত্রু’ সমাজবাদী পার্টির (এসপি) সঙ্গে জোট গড়ার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়ে গতকাল শনিবার মায়াবতী বলেন, ‘গুরু নরেন্দ্র মোদি আর চেলা অমিত শাহের ঘুম ছোটাতেই আমরা এই ঐতিহাসিক ঘোষণা দিলাম। ১৯৯৩ সালে উত্তর প্রদেশে জোট বেঁধেছিল এসপি এবং বিএসপি। তখন উত্তর প্রদেশে সরকার গড়েছিল এই জোট। সেই জোটের নেতৃত্বে ছিলেন কাঁসিরাম ও মুলায়ম সিংহ যাদব। এবার আমরা যে জোট গড়লাম, তা মোদি-শাহের ঘুম ছোটাবে। কারণ, এই জোট সমাজের গরিষ্ঠ অংশের মানুষের জোট। উত্তর প্রদেশের দলিত ও সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মানুষের জোট।’ পরে এসপি নেতা অখিলেশ যাদব বলেন, ‘মায়াবতীর অসম্মান মানেই আমার অসম্মান।’ টুইটারে এই জোটকে স্বাগত জানিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

লখনউয়ে গতকাল দুপুরে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে জোট গঠনের ঘোষণা দেন মায়াবতী ও অখিলেশ সিং যাদব। শুরুতেই বিএসপি নেত্রী বলেন, ‘আজকের মোদি সরকার অহংকারী। তাই তাদের হারতে হবেই। সামনের লোকসভা ভোটে এসপি এবং বিএসপি জোট বেঁধে লড়বে। আর সেটা হলে বিজেপিকে হারানো যাবে অনায়াসেই। তাই আমজনতার কথা মাথায় রেখে এই জোট গড়ে তোলা হলো।’

তবে আসন্ন লোকসভা ভোটে মায়াবতী ও অখিলেশের জোট বাঁধার বিষয়টিকে এদিন গুরুত্ব দিতে রাজি হননি উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। তিনি বলেছেন, ‘তা সে কোনো জোটই হোক বা মহাজোট, ২০১৪ সালের চেয়েও এবার ভালো করবে বিজেপি। বিরোধীদের যেকোনো জোট বা মহাজোটই রাজনৈতিক অস্থিরতার সৃষ্টি করবে। কারণ যাঁরা জোট বাঁধছেন, তাঁরা কেউই একে-অন্যকে পছন্দ করেন না।’ গত লোকসভা ভোটে উত্তর প্রদেশের ৮০টি আসনের মধ্যে ৭৩টিতে জয়ী হয়েছিল বিজেপি আর তার শরিক দল আপনা দল। মুছে গিয়েছিল বিএসপি। এসপি পেয়েছিল পাঁচটি আর কংগ্রেস জয়ী হয়েছিল মাত্র দুটি আসনে। সংবাদ সম্মেলনে মায়াবতী দাবি করেন, এসপি-বিএসপি জোট উত্তর প্রদেশে একটি ভোটও বিজেপির দিকে যেতে দেবে না। কোনো আসনে জিততে হলে ইভিএমে কারচুপি করতে হবে বিজেপিকে।

তিনি জানান, রাজ্যের মোট ৮০টি লোকসভা আসনে কে কোথায় লড়বেন, তা চূড়ান্ত হয়ে গেছে। আমেথি ও রায়বেরেলি আসনে কোনো প্রার্থী দেবে না জোট। কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী ও তাঁর মা সোনিয়া গান্ধীর ওই দুটি আসন ছাড়া আর দুটি আসন ছোট শরিকদের ছেড়ে দেবে এসপি-বিএসপি জোট। বাকি ৭৬টি আসনে জোটের দুই শরিক বিএসপি এবং এসপি ৩৮টি করে আসনে প্রার্থী দাঁড় করাবে। কংগ্রেসের সঙ্গে জোট না করেই আমেথি ও রায়বেরেলি তাদের ছাড়া হচ্ছে, যাতে বিজেপি ওখানে কংগ্রেসকে কোনোভাবেই বিভ্রান্ত করতে না পারে। কেন কংগ্রেসকে নেওয়া হলো না এই জোটে, এদিন তার কারণ জানাতে গিয়ে মায়াবতী বলেন, ‘কেন্দ্রে বিজেপি আর কংগ্রেস, একই মুদ্রার এ-পিঠ আর ও-পিঠ। ওই দুই সরকারের আমলেই প্রচুর দুর্নীতি হয়েছে। বিরোধীদের উত্পীড়ন করে চলেছে বিজেপি। বিজেপি জমানায় নারী ও গরিবদের ওপর অত্যাচার চলছে। আর কংগ্রেসের সময় দেশে জারি হয়েছিল জরুরি অবস্থা। সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা।

মন্তব্য