kalerkantho

সোমবার । ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ১  জুন ২০২০। ৮ শাওয়াল ১৪৪১

সিরিয়া থেকে সেনা প্রত্যাহার হবে ধীরে ধীরে : ট্রাম্প

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৪ জানুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ধীরে ধীরে ‘নির্দিষ্ট সময় ধরে’ সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনাদের প্রত্যাহার করা হবে বলে মন্তব্য করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেনা প্রত্যাহার করা হলেও সিরিয়ার যুক্তরাষ্ট্র সমর্থিত কুর্দি যোদ্ধাদের রক্ষা করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

গত বুধবার হোয়াইট হাউসে মন্ত্রিসভার এক বৈঠক চলাকালে তিনি এসব কথা বলেন। গত মাসে সিরিয়া থেকে সেনা প্রত্যাহারের পরিকল্পনা ঘোষণা করলেও এদিন ট্রাম্প সেনা প্রত্যাহারের কোনো নির্দিষ্ট সময়সীমা জানাননি। যুক্তরাষ্ট্রের শীর্ষ জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টাদের পরামর্শের বিরুদ্ধে গিয়ে আইন প্রণেতা ও যুক্তরাষ্ট্রের মিত্র যারা ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিরুদ্ধে অভিযানে অংশ নিচ্ছে তাদের সঙ্গে কোনো আলোচনা না করেই সিরিয়া থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণাটি দিয়েছেন তিনি।

তাঁর এই সিদ্ধান্তের কারণে যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রী জিম ম্যাটিস পদত্যাগ করেন। মন্ত্রিসভার বৈঠকে ট্রাম্প বলেছেন, তিনি কখনোই সিরিয়া থেকে দুই হাজার মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের জন্য কথিত চার মাসের সময়সীমা বেঁধে দেননি। তিনি বলেন, ‘আমরা বের হয়ে আসছি এবং বুদ্ধিমানের মতো বের হয়ে আসব। আমি কখনোই বলিনি আমরা কালকে বের হয়ে আসছি।’ গত মাসের ঘোষণার পর সাম্প্রতিক দিনগুলোতে ট্রাম্প সিরিয়া থেকে তাড়াহুড়া করে সেনা প্রত্যাহারের বিষয় থেকে পিছিয়ে এসেছেন বলে ধারণা পাওয়া যাচ্ছে, এর বদলে সেনা প্রত্যাহার ধীরগতিতে হবে বলে জোর দিচ্ছেন তিনি।

গত সোমবার এক টুইটে তিনি বলেছেন, ‘আমরা ধীরে ধীরে আমাদের সেনাদের তাদের পরিবারের সঙ্গে মিলিত হওয়ার জন্য বাসায় ফিরিয়ে আনব।’ ট্রাম্প জানিয়েছেন, কুর্দিরা ইরানের কাছে তেল বিক্রি করায় তিনি অসন্তুষ্ট, কিন্তু তিনি তাদের রক্ষা করতে চান। ট্রাম্প বলেন, ‘অল্প পরিমাণ তেল তারা ইরানের কাছে বিক্রি করছে, এটি আমার পছন্দ নয়; আমরা তাদের ইরানের কাছে বিক্রি না করতে বলেছি। এতে আমি খুশি না। তবু আমরা কুর্দিদের রক্ষা করতে চাই। আমরা কুর্দিদের রক্ষা করতে চাই, কিন্তু আমি চিরদিনের জন্য সিরিয়ায় থাকতে চাই না। ওটি মরুভূমি এবং ওটি মৃত্যু।’

দুই দিনের সংঘর্ষে নিহত ৪৮

সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় এলাকাগুলোতে বিদ্রোহীদের সঙ্গে ইসলামপন্থী জিহাদিদের সংঘর্ষে গত দুই দিনে ৪৮ জন নিহত হয়েছে। গত বুধবার মানবাধিকার সংস্থা সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস এ তথ্য জানায়।

সংস্থাটির প্রধান রামি আবদেল রহমান জানান, নিজেদের পাঁচ সদস্যকে হত্যার অভিযোগে তুর্কি সমর্থিত নুরেদাইন আল-জিংকি নামের বিদ্রোহী সংগঠনটির বিরুদ্ধে আলেপ্পোতে গত মঙ্গলবার অভিযান শুরু করে আল-কায়েদা সমর্থিত হায়াত তাহারির আল-শামস (এইচটিএস)। বুধবার তা পার্শ্ববর্তী ইদলিব প্রদেশের উত্তর ও দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে ছড়িয়ে পড়লে ৪৮ জনের মৃত্যু হয়। সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা