kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৪ নভেম্বর ২০১৯। ২৯ কার্তিক ১৪২৬। ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

ভূখণ্ড ফেরত চেয়ে ইসরায়েলকে জর্দানের চিঠি

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৩ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



১৯৫০ ও ১৯৬০-এর দশকে দখল করা এবং পরবর্তী সময় চুক্তির মাধ্যমে ইজারা নেওয়া দুটি ভূখণ্ড ইসরায়েলের কাছে ফেরত চেয়ে চিঠি দিয়েছে জর্দান। গত রবিবার এ তথ্য জানিয়েছেন জর্দানের বাদশাহ দ্বিতীয় আব্দুল্লাহ। ১৯৯৪ সালে দুই দেশের মধ্যে সম্পাদিত শান্তিচুক্তির অধীনে বাকুরা ও গুমার নামের ভূখণ্ড দুটি ইসরায়েলকে ইজারা দেওয়া হয়েছে বলে দেখানো হয়। আম্মানের চিঠির জবাবে ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, তিনি চান বাকুরা ও ঘুমার নামের ভূখণ্ড দুটির বর্তমান অবস্থা বজায় থাকুক।

এর আগে গত শুক্র ও শনিবার জর্দানের রাজধানী আম্মানে দুই ভূখণ্ড ফেরত পাওয়ার দাবিতে রাস্তায় বিক্ষোভ করে শত শত জর্দানবাসী। জনগণের চাপের বিপরীতে ভূখণ্ড দুটির স্থিতিশীলতা অব্যাহত রাখতে যুক্তরাষ্ট্রের দিক থেকে বাদশাহ আব্দুল্লাহর ওপর চাপ আসতে পারে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক ভাষ্যকাররা।

জর্দানের সরকারি সংবাদ সংস্থা পেত্রা জানায়, বাদশাহ বলেছেন, ‘আমরা ইসরায়েলকে জানিয়েছি যে বাকুরা ও গুমারের (দুই ভূখণ্ড) বিষয়ে শান্তিচুক্তির পরিশিষ্ট কার্যকরের বিষয়টি চূড়ান্ত করতে চাই।’ তিনি জোর দিয়ে বলেন, বাকুরা ও গুমার জর্দানের ভূমি এবং তা জর্দানের অধীনেই থাকবে। তিনি বলেন, ‘বাকুরা ও গুমার বরাবরই আমাদের অগ্রাধিকারের শীর্ষে রয়েছে। সুতরাং আমরা বাকুরা ও গুমারের ব্যাপারে শান্তিচুক্তির পরিশিষ্টের কার্যকারিতার সমপ্তি ঘটাতে চাই।’

শান্তিচুক্তির পরিশিষ্ট ধারার অধীনে ইসরায়েলকে বাকুরা ও গুমার নামের দুটি ভূখণ্ড ২৫ বছরের জন্য লিজ দেওয়া হয়। তাতে ভূখণ্ড ফেরত পেতে এক বছরের নোটিশ পিরিয়ড রাখা হয়। আগামী বছর ২৫ বছরের মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার আগে ইসরায়েলকে চিঠি দিল জর্দান।

ভূখণ্ড দুটির মধ্যে গুমার আকাবা প্রদেশের দক্ষিণাঞ্চলে চার বর্গকিলোমিটার এলাকা নিয়ে বিস্তৃত। ১৯৬৭ সালে ছয় দিনের যুদ্ধে গুমার দখল করে নিয়েছিল ইসরায়েল। আর ছয় বর্গকিলোমিটার আয়তনের বাকুরার অবস্থান হচ্ছে জর্দানের উত্তরাঞ্চলে ইরবিদ প্রদেশে, যা ১৯৫০ সালে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী জোরপূর্বক দখল করে। ১৯৯৪ সালে দুই দেশের চুক্তি অনুযায়ী ভূখণ্ড দুটি ইসরায়েলকে সাময়িকভাবে ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া হয়।

ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহু চিঠি পাওয়ার তথ্য নিশ্চিত করে বলেছেন, তিনি জর্দানের অনুরোধ পেয়েছেন। তিনি বলেন, ‘আমাদের দুই দেশের চুক্তির অংশ হিসেবে জর্দান ২৫ বছর শেষে এলাকা দুটি ফেরত পাওয়ার অধিকার রাখে। আমরা বর্তমান চুক্তি দীর্ঘায়িত করার সম্ভাবনা নিয়ে আলোচনা শুরু করব।’ সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা