kalerkantho

সোমবার। ১৯ আগস্ট ২০১৯। ৪ ভাদ্র ১৪২৬। ১৭ জিলহজ ১৪৪০

মালদ্বীপে আজ প্রেসিডেন্ট নির্বাচন

‘সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে না’

পর্যবেক্ষক সংস্থা এএনএফআরইএল

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে না, কারণ প্রেসিডেন্ট আব্দুল্লাহ ইয়ামিন প্রতিদ্বন্দ্বীদের ঠেকাতে কালাকানুন জারি করেছেন—এমন মন্তব্য করেছে পর্যবেক্ষণ সংস্থা এশিয়ান নেটওয়ার্ক ফর ফ্রি ইলেকশনস (এএনএফআরইএল)। আজ রবিবার মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ঠিক এর আগমুহূর্তে বর্তমান প্রেসিডেন্টের অধীনে নির্বাচন অনুষ্ঠান নিয়ে এমন আশঙ্কাজনক মন্তব্য করল সংস্থাটি।

বিবৃতিতে এএনএফআরইএল বলে, ‘সাম্প্রতিক ঘটনাক্রমে নিশ্চিত হয়ে গেছে যে ২৩ সেপ্টেম্বর সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ প্রেসিডেন্ট নির্বাচন সম্ভব নয়। এএনএফআরইএল এর নিন্দা জানাচ্ছে।’ তাদের অভিযোগ, মালদ্বীপের নির্বাচন কমিশন তাদের স্বীকৃতি দিয়েছে এবং নির্বাচন পর্যবেক্ষণের অনুমতি দিয়েছে, অথচ সংস্থার পর্যবেক্ষকদের মালদ্বীপের ভিসা দেওয়া হয়নি। এ ব্যাপারে সংস্থার বক্তব্য, ‘মনে হচ্ছে, মালদ্বীপ কর্তৃপক্ষ যে পর্যবেক্ষকদের বন্ধুভাবাপন্ন ভাবছে, কেবল তাদেরই ভিসা দিচ্ছে।’ অথচ এএনএফআরইএলের নাম ভাঙিয়ে মালদ্বীপ আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বৈধতা অর্জনের চেষ্টা করছে, এমন অভিযোগ করে সংস্থাটি।

কেবল এএনএফআরইএল নয়, মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন নির্বাসিত নেতা মোহামেদ নাশিদ। শ্রীলঙ্কায় অবস্থানরত এই রাজনীতিক মালদ্বীপের নির্বাচনকে স্বীকৃতি না দিতে আন্তর্জাতিক অঙ্গনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। সন্ত্রাসবাদের অভিযোগে সাজাপ্রাপ্ত হওয়ায় মালদ্বীপের এই সাবেক প্রেসিডেন্ট এবারের নির্বাচনে অংশ নিতে পারেননি।

নাশিদ হচ্ছেন মালদ্বীপের প্রথম গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট, যিনি ২০০৮-১২ মেয়াদে দেশ শাসন করেন এবং বিতর্কিত পরিস্থিতিতে ক্ষমতা ছেড়ে দেন। সন্ত্রাসবাদের অভিযোগে ১৩ বছরের কারাদণ্ডপ্রাপ্ত এ নেতা বর্তমানে নির্বাসনে রয়েছেন। জাতিসংঘের অভিমত, নাশিদের বিরুদ্ধে কারাদণ্ডের এ রায় প্রদান রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এবং এ রায় বাতিল করে নাশিদকে ক্ষতিপূরণ প্রদানে প্রেসিডেন্ট ইয়ামিনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে এ সংস্থা।

সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য