kalerkantho

রবিবার। ১৮ আগস্ট ২০১৯। ৩ ভাদ্র ১৪২৬। ১৬ জিলহজ ১৪৪০

দুই কোরিয়ার লিয়াজোঁ অফিস উদ্বোধন

দক্ষিণের কাছে ২৬০ কোটি ডলারের অস্ত্র বিক্রি করছে যুক্তরাষ্ট্র

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



উত্তর কোরিয়ার উত্তরাঞ্চলের শহর কায়েসংয়ে দুই কোরিয়া গতকাল শুক্রবার যৌথ লিয়াজোঁ অফিস খুলেছে। আগামী সপ্তায় দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইনের উত্তর কোরিয়া সফরের আগে দুই দেশের মধ্যে সম্পর্ক আরো দৃঢ় করতে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

এদিকে দুই কোরিয়া যখন নিজেদের মধ্যে সম্পর্কোন্নয়নের চেষ্টা চালাচ্ছে, তখন যুক্তরাষ্ট্র দক্ষিণ কোরিয়ার কাছে ২৬০ কোটি ডলারের অস্ত্র বিক্রির চুক্তি অনুমোদন করেছে। যুক্তরাষ্ট্রের ডিফেন্স সিকিউরিটি কো-অপারেশন এজেন্সি গত বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

অন্যদিকে গতকাল শুক্রবার দক্ষিণ কোরিয়া প্রথমবারের মতো ক্ষেপণাস্ত্রবাহী সাবমেরিনের উদ্বোধন করেছে। ৭০০ মিলিয়ন ডলার ব্যয়ে তিন হাজার টন ওজনের দোসান আন চ্যাং-হো সাবমেরিন ক্রুজ এবং ব্যালিস্টিক—উভয় ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়তে পারে।

গতকাল দুই কোরিয়ার লিয়াজোঁ অফিস উদ্বোধন অনুষ্ঠানে দক্ষিণ কোরিয়ার একত্রীকরণমন্ত্রী চো মাইয়োং-গাইউন বলেন, ‘আজ এখানে ইতিহাসের নতুন এক অধ্যায়ের সূচনা হলো। দুই কোরিয়া যৌথভাবে শান্তির আরো একটা প্রতীক তৈরি করল।’ উত্তর কোরিয়ার প্রতিনিধি রি সন গোয়ন বলেন, ‘উত্তর ও দক্ষিণ কোরিয়ার জনগণের দৃঢ়তার ফসল এটি।’

গত এপ্রিলে মুন জায়ে ইন এবং উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের মধ্যে শীর্ষ সম্মেলনের পর থেকে দুই কোরিয়া বিভিন্ন ক্ষেত্রে যৌথভাবে কাজ করার চেষ্টা করছে। এরই ধারাবাহিকতায় আগামী মঙ্গলবার মুন পিয়ংইয়ং সফরে আসছেন। এ নিয়ে এই বছর দুই শীর্ষ নেতার তৃতীয় বৈঠক হতে যাচ্ছে। তিন দিনের সফরে প্রধান বিষয়গুলোর পাশাপাশি দুই শীর্ষ নেতার প্রথম বৈঠক টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচার করা হবে বলে প্রেসিডেন্ট মুনের অফিস থেকে জানানো হয়েছে।

গত জুনে সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিত যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং কিম জং উনের মধ্যে বৈঠকে মুন মধ্যস্থতা করেছিলেন। সে বেঠকে উন কোরিয়া উপদ্বীপকে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ করার বিষয়ে সম্মত হয়েছিলেন। তবে কিভাবে এই কর্মকাণ্ড এগিয়ে নেওয়া হবে, সে ব্যাপারে পিয়ংইয়ং বা ওয়াশিংটন কেউ বিস্তারিত কিছু জানায়নি। ফলে কোরিয়া উপদ্বীপকে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ করার বিষয়টি ঝুলে হয়ে আছে। এ ব্যাপারে গত বৃহস্পতিবার মুন বলেন, ‘উত্তর কোরিয়া পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের ব্যাপারে ইচ্ছুক। অন্যদিকে যুক্তরাষ্ট্র শত্রুভাবাপন্ন সম্পর্কের ইতি টানার পাশাপাশি নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে চায়। কিন্তু দুই পক্ষই চাইছে অন্য পক্ষ আগে কাজ শুরু করুক। এতে বিষয়টি আটকে রয়েছে।’

পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র গ্যাংস্টারদের মতো আচরণ করছে—উত্তর কোরিয়ার এমন অভিযোগে ট্রাম্প ক্ষিপ্ত হয়েছিলেন। এরই ধারাবাহিকতায় ট্রাম্প গত মাসে পূর্বনির্ধারিত যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর পিয়ংইয়ং সফর বাতিল করে দেন। এর পর থেকে অবশ্য উন ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠকের জন্য চিঠি পাঠিয়েছেন। তা ছাড়া উত্তর কোরিয়ার ৭০তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত সামরিক প্যারেডে কোনো আন্তর্মহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রদর্শন করা হয়নি। সূত্র : এএফপি।

মন্তব্য