kalerkantho

রবিবার । ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০। ৩ ফাল্গুন ১৪২৬। ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪১

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রোগী বেড়ে ৬৩

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি   

৫ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বেড়েই চলছে। তবে তারা সবাই ঢাকাফেরত। জেলায় এখনো কেউ ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়নি। এ পর্যন্ত ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬৩-তে। তাদের মধ্যে ২০ জনের বেশি চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে।

অন্যদিকে জ্বরে আক্রান্ত হলে জেলার ‘বাংলাদেশ হসপিটাল অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টার’-এ এনএসওয়ান পরীক্ষায় পৌর এলাকার পাইকপাড়ার শিল্পী সরকারের ডেঙ্গু ধরা পড়ে। এ পরিস্থিতিতে তাঁকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু সদর হাসপাতালে করা পরীক্ষায় তাঁর ডেঙ্গু ধরা পড়েনি। এর আগে আরেকটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারে করা তাঁর পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। গতকাল রবিবার পর্যন্ত শিল্পী সদর হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। আর বাংলাদেশ ডায়াগনস্টিক সেন্টারের রিপোর্টে ভুল থাকলে তাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানা গেছে।

জেলা সিভিল সার্জন ডা. মো. শাহ আলম বলেন, ‘ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রোগীদের বিষয়ে খোঁজ রাখা হচ্ছে। শনিবার দুপুর থেকে গতকাল দুপুর পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় আরো ১২ জন রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। তাদের মধ্যে সদর হাসপাতালে পাঁচজন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া মেডিক্যাল কলেজে ছয়জন, নবীনগর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে একজন ভর্তি হয়েছে। হাসপাতালে ডেঙ্গু শনাক্তকরণের প্রয়োজনীয় এনএসওয়ান কিটও আছে।’ তিনি আরো বলেন, ‘ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ডেঙ্গুতে আক্রান্তরা সবাই ঢাকাফেরত। এনএসওয়ান পরীক্ষায় শিল্পী সরকারের ডেঙ্গু ধরা পড়েনি। একটি ডায়াগনস্টিক সেন্টারের রিপোর্টে ডেঙ্গু থাকার বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। রিপোর্টে ভুল থাকলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’ অন্যদিকে ডেঙ্গুরোধে জেলার সর্বত্র সচেতনতামূলক প্রচারণা অব্যাহত আছে। জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন ও পৌরসভা আলাদাভাবে বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে। এগিয়ে এসেছে সামাজিক সংগঠনও। বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান নিজেদের উদ্যোগে পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে।

 

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা