kalerkantho

শুক্রবার । ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ৫ জুন ২০২০। ১২ শাওয়াল ১৪৪১

রংপুর মেডিক্যাল কলেজ

পিপিই নিয়েছেন কর্তাদের স্বজনরা

রংপুর অফিস   

২ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে কর্মচারীর সংখ্যা ছয় শতাধিক। তাঁরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রোগীদের সেবা দিয়ে আসছেন। অথচ তাঁদের পিপিই না দিয়ে ব্যবহার করছে হাসপাতালের কর্তাদের পরিবারের লোকজন। এমন অভিযোগ করেছেন কর্মচারীরা। এ কারণে গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় তাঁরা পরিচালকের কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ করেছেন।

হাসপাতালের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মশিউর রহমান অভিযোগ করে বলেন, ‘রংপুর মেডিক্যালের ডাক্তার, নার্স ও কর্মচারীদের জন্য বরাদ্দ করা পিপিই নিয়ে চলছে চরম নৈরাজ্য। ডাক্তার, নার্স, আয়া, ক্লিনারসহ অন্য কর্মচারীরা রোগীদের জরুরি সেবাসহ সার্বক্ষণিক সেবা দেন। কিন্তু পর্যাপ্ত মজুত থাকার পরও তাঁদের পিপিই দেওয়া হচ্ছে না। অনেক পিপিই চলে গেছে কর্মকর্তাদের স্বজনদের হাতে। বাধ্য হয়ে কর্মচারীরা পিপিই প্রদানের দাবিতে পরিচালকের কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ শুরু করলে কর্মচারীদের জন্য ৩৩৮টি পিপিই দেওয়া হয়।’ এখনো তিন শতাধিক কর্মচারী পিপিই পাননি বলে জানান তিনি।

হাসপাতালের কয়েকজন নার্স অভিযোগ করে বলেন, একাধিকবার পিপিই চেয়েও পাওয়া যায়নি। জীবন বাঁচাতে অনেকেই পিপিই কিনে কিংবা তৈরি করে নিজেদের সুরক্ষা নিজেরাই করতে বাধ্য হয়েছেন।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. ফরিদুল ইসলাম বলেন, ‘পিপিই পর্যাপ্ত থাকলেও চাহিদা আরো বেশি রয়েছে। সঠিক ব্যক্তিরা যাতে পায় সে জন্যই দেখেশুনে ধীরে ধীরে দেওয়া হচ্ছে।’

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা