kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ । ১৪ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

‘করোনা নিয়ে সরেজমিনে কোনো স্টাডি করেছ?’

নমুনা ভাইভা

২০ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



‘করোনা নিয়ে সরেজমিনে কোনো স্টাডি করেছ?’

হৃদয় মাহমুদ চয়ন, তথ্য ক্যাডার (সুপারিশপ্রাপ্ত) ৪০তম বিসিএস

ফরেস্ট্রি অ্যান্ড ইনভায়রনমেন্টাল বিষয়ে আমি পড়াশোনা করেছি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে। ৪০তম বিসিএসের ভাইভায় একটি প্রশ্ন ছাড়া বাকি সব কয়টিরই উত্তর দিতে পেরেছি। আমার ক্যাডার পছন্দক্রমে ছিল পুলিশ, অ্যাডমিন, কাস্টমস, ট্যাক্স, অডিট, তথ্য, খাদ্য ও আনসার

চেয়ারম্যান : তোমার নাম কী?

আমি : স্যার, আমার নাম হৃদয় মাহমুদ চয়ন।

চেয়ারম্যান : চয়ন শব্দের অর্থ কী?

আমি : স্যার, চয়ন শব্দের অর্থ বাছাই করা, নির্বাচন করা।

বিজ্ঞাপন

চেয়ারম্যান : (আমার কাগজপত্র দেখে) তুমি পুলিশে আছ?

আমি: জি স্যার। আমি বাংলাদেশ পুলিশের একজন সাব-ইন্সপেক্টর হিসেবে টাঙ্গাইল জেলা বিশেষ শাখায় কমর্রত আছি।

(আমি আগে থেকেই চাচ্ছিলাম ভাইভাটা যেন পুলিশ এবং আমার পঠিত বিষয়সংশ্লিষ্ট হয়। )

চেয়ারম্যান :  তুমি বাংলাদেশ পুলিশে কবে যোগদান করেছ?

আমি : স্যার, ২০২০ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারিতে আমি এক বছরের মৌলিক প্রশিক্ষণ শেষ করে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে যোগদান করি।

এক্সটার্নাল-১ : করোনার সময় কোথায় ছিলে?

আমি : স্যার, করোনার সময় আমি একজন প্রবেশনারি সাব-ইন্সপেক্টর হিসেবে টাঙ্গাইলের গোপালপুর থানায় কর্মরত ছিলাম।

এক্সটার্নাল-১ : করোনা সম্পর্কে কী জানো, বলো।

আমি : স্যার, আমাদের বর্তমান শতাব্দীর সবচেয়ে ভয়াবহতম সময় আমরা এখন পার করছি। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে শনাক্ত হওয়া করোনাভাইরাসের কারণে এর মধ্যে সমগ্র পৃথিবীতে প্রায় ৫০ লাখ মানুষ মারা গেছে। বাংলাদেশে প্রায় ২২ হাজার মানুষ মারা গেছে।

এক্সটার্নাল-১ : করোনা নিয়ে ফিল্ড লেভেলে কোনো স্টাডি করেছ? কোনো স্টাডি পড়েছ?

আমি : না স্যার, ওই রকম কোনো স্টাডি করা হয়নি। করোনা নিয়ে যতটুকু জানতে পেরেছি, তার সবই প্রায় সংবাদপত্রের মাধ্যমে।

এক্সটার্নাল-১ : আমরা তো অনেক কিছুই শুনছি করোনা নিয়ে, আসলে বাস্তব পরিস্থিতি কী ছিল?

আমি : স্যার, বাস্তব পরিস্থিতি আরো অনেক ভয়ানক ছিল। যেখানে সবাই শুনেছে যে মানুষ মারা যাওয়ার পরে তার স্বয়ং কাছের মানুষগুলো তাকে ফেলে রেখে চলে গিয়েছে, বাস্তবে আসলেই তা ঘটেছে। ছেলে বাবার লাশ নিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশ পুলিশ জানাজা পড়া থেকে শুরু করে লাশ দাফন পর্যন্ত সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছে।

এক্সটার্নাল-১: এটা কি ন্যাচারাল নাকি ম্যানমেইড?

আমি : স্যার, এটা ন্যাচারাল।

এক্সটার্নাল-১ : পুলিশ ডিপার্টমেন্টের চ্যালেঞ্জ কী?

আমি : স্যার, (আমার মতে) পুলিশ ডিপার্টমেন্টের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ ইমেজ সংকট, জঙ্গিবাদ, দুর্নীতি (যদিও স্যার এটার জন্য পুরো ডিপার্টমেন্টকে দায়ী করা যায় না, তবু সামপ্রতিক সময়ে এটা নিয়ে বিভিন্ন মাধ্যমে আলোচনা হয়), ১৮৬১ সালের পুলিশ আইন অনুযায়ী চলতে হয়, বাজেট কম। সম্প্রতি আমি একটি স্টাডি পড়েছি। সেখানে উল্লেখ করা হয়েছে—যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক পুলিশের জন্য গত বছরের বাজেট ছিল প্রায় ১৬ বিলিয়ন ডলার আর বাংলাদেশ পুলিশের জন্য গত বছর বরাদ্দ ছিল মাত্র ৬০০ কোটি টাকা।

এক্সটার্নাল-১ : শুধু পুলিশই না, প্রত্যেক ডিপার্টমেন্টের জন্যই বাংলাদেশে বাজেট কম। বর্তমান পরিবর্তিত বিশ্বব্যবস্থায় একজন জেলা প্রশাসকের কী কী গুণাবলি থাকা উচিত?

আমি: স্যার, তাত্ক্ষণিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ, অধস্তনদের নিয়ন্ত্রণ, ২০৪১ সালে বাংলাদেশ একটি উন্নত দেশে পরিণত হবে। সে ক্ষেত্রে আমি মনে করি সবচেয়ে বড় ভূমিকা পালন করতে হবে একজন জেলা প্রশাসকের। কেননা তাকে সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে হয়।

এক্সটার্নাল-২ : চট্টগ্রাম হিলট্র্যাক্টে কী ধরনের বনাঞ্চল রয়েছে?

আমি: স্যার, চট্টগ্রাম হিলট্র্যাক্টে চিরসবুজ বনাঞ্চল রয়েছে।

এক্সটার্নাল-২ : কী কী গাছ আছে?

আমি : স্যার, গর্জন, বৈলাম, লোহাকাঠ, সেগুন, তেলসুর ইত্যাদি।

এক্সটার্নাল-২ : বায়োডাইভারসিটি কী?

আমি : স্যার, Bio means life, diversity means variety. আমরা বলতে পারি বায়োডাইভারসিটি মানে হচ্ছে variety of life on earth।

এক্সটার্নাল-২ : উদাহরণ দাও।

আমি : Species diversity, genetic diversity, ecosystem diversity.

চেয়ারম্যান : কী কারণে গুরুত্বপূর্ণ?

আমি : স্যার, বায়োডাইভারসিটির জন্যই এক প্রাণী থেকে আরেক প্রাণী আলাদা। এর জন্যই Inter dependency বজায় থাকে।

চেয়ারম্যান : স্পেসিফিকলি বলো।

আমি : স্যার, বায়োডাইভারসিটির জন্যই খাদ্যশৃঙ্খল বজায় থাকে। বায়োডাইভারসিটি না থাকলে খাদ্যশৃঙ্খল ধ্বংস হয়ে যেত। ফলে পৃথিবীর সব প্রাণী ধ্বংস হয়ে যেত, খাদ্যাভাবে কোনো প্রাণের অস্তিত্ব থাকত না।

চেয়ারম্যান : Very good...

এক্সটার্নাল-২ : What is butterfly effects in forest?

আমি : স্যরি স্যার, এটা আমার জানা নেই।

চেয়ারম্যান : Sustainability বলতে কী বুঝো?

আমি :  বর্তমান ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কথা বিবেচনায় রেখে অর্থনৈতিক, সামাজিক উন্নয়নই Sustainability।

এককথায় স্যার, আমরা আমাদের কোনো সম্পদ যে অবস্থায় পাব, ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য আরো ভালো অবস্থায় রেখে যাব, এটাই Sustainability।

চেয়ারম্যান : সামপ্রতিক সময়ে Sustainability নিয়ে এত আলোচনার কারণ কী?

আমি : স্যার, বর্তমানে আমরা খুবই খারাপ সময় অতিবাহিত করছি, যার মূলে রয়েছে জলবায়ু পরিবর্তন, করোনা মহামারি ইত্যাদি। আমরা সব দুর্যোগ পেছনে ফেলে ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য যাতে ভালো একটা পৃথিবী রেখে যেতে পারি, তার জন্য Sustainability নিয়ে এত আলোচনা হচ্ছে।

চেয়ারম্যান : ওকে, তুমি এবার আসতে পারো।

 (সালাম দিয়ে কাগজপত্র নিয়ে চলে এলাম। )

    

     গ্রন্থনা : এম এম মুজাহিদ উদ্দীন



সাতদিনের সেরা