kalerkantho

সোমবার । ৩ মাঘ ১৪২৮। ১৭ জানুয়ারি ২০২২। ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

‘আরো ভালো কোথাও চাকরি হলে চলে যাবেন?’

লেনিন আজাদ পলাশ, সহকারী পরিচালক (ব্যাচ-২০১৯) বাংলাদেশ ব্যাংক, আমার ভাইভা ছিল ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে। ভাইভা বোর্ডের চেয়ারম্যান ছিলেন একজন নির্বাহী পরিচালক আর সঙ্গে ছিলেন এইচআরডি-১-এর তৎকালীন মহাব্যবস্থাপকসহ দুজন এক্সটার্নাল। আমার সিরিয়াল ছিল সর্বশেষ জনের ঠিক আগে। সে সময় অন্য আরেকটি প্রতিষ্ঠানে চাকরিতে ছিলাম। সকালে অফিসে হাজিরা দিয়ে পরে ভাইভায় উপস্থিত হয়েছি

৪ ডিসেম্বর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



‘আরো ভালো কোথাও চাকরি হলে চলে যাবেন?’

নমুনা ভাইভা

আমি : Assalamualaikum, sir. May I come in?

চেয়ারম্যান : Yes, come in. Lenin Azad Polash, be seated.

আমি : Thank you, sir.

চেয়ারম্যান : একাই তিনটি নাম দখলে নিয়েছেন দেখছি। কে রেখেছে নাম?

আমি : স্যার, নাম মা রেখেছেন। ছোটবেলা থেকেই ওনাকে প্রচুর বই পড়তে দেখেছি...

এক্সটার্নাল : Can you tell me who came first? Lenin or Stalin?

আমি : Yes sir, I can. Vladimir Lenin served as the first and founding head of government of Soviet Russia from 1917 to 1924 and chief of the Soviet Union from 1922 to 1924. As a soviet political leader, Stalin governed the Soviet Union from 1924 until his death in 1953.

এক্সটার্নাল : What’s the difference between them?

আমি : Lenin was a leader in the Bolshevik revolution and the founder of the USSR, whereas Stalin had a readymade system in place that he took forward with great force.

(ভাইভায় আমার নাম নিয়ে প্রশ্ন আসতে পারে, এমনটা ধরে নিয়ে সম্ভাব্য প্রস্তুতি আগেই নেওয়া ছিল। তাই এসংক্রান্ত প্রশ্ন নিয়ে বিব্রত না হয়ে গুছিয়ে উত্তর দিয়েছি।)

চেয়ারম্যান : কোথায় পড়াশোনা করেছেন?

আমি : জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজে।

এক্সটার্নাল : আপনাদের মনিরুজ্জামান স্যার আছেন?

আমি : জি স্যার, প্রফেসর ড. এ কে এম মনিরুজ্জামান স্যার এখনো আছেন, ম্যানেজমেন্ট ডিপার্টমেন্টসহ স্যার বর্তমানে রিসার্চ ডিরেক্টরের দায়িত্বে আছেন।

মহাব্যবস্থাপক : আপনি এখন কী করেন?

(আমি তখন একটি প্রাইভেট ব্যাংকে ভালো বেতনে চাকরি করতাম। এ কথা জানালাম।)

চেয়ারম্যান : এত ভালো স্যালারি ছেড়ে এখানে অর্ধেক বেতনে কেন আসবেন?

আমি : স্যার, মূল উদ্দেশ্য ডিসিশন মেকিং পাওয়ার এবং ব্যাংকিং ইন্ডাস্ট্রিতে চেঞ্জ আনার স্কোপটা এখানে পাওয়া যাবে। এ ছাড়া কেন্দ্রীয় ব্যাংকার হিসেবে সামাজিক মর্যাদা ও জব সিকিউরিটি তো আছেই। কয়েক বছর ধরে ব্যাংকিং ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করায় এখন রেগুলেটরি বডিতে আসতে পারার সুযোগটা নিতে চাচ্ছি (ব্যাংকিং ইন্ডাস্ট্রি থেকে আসা ক্যান্ডিডেটদের বোর্ড পজিটিভলি নেয় বলে মনে হয়েছে)।

মহাব্যবস্থাপক : তাহলে এর চেয়ে ভালো কোথাও চাকরি হলে তো চলে যাবেন?

আমি : (হেসে বললাম) এখানে হলে আর কোথাও আবেদনই করব না। (বোর্ডের সবাই হাসতে শুরু করল)

এক্সটার্নাল : আচ্ছা, Tell us about the second principle of scientific management.

চেয়ারম্যান : Change management নিয়ে বলুন। Why is it important? (দুটি প্রশ্ন একই সময়ে)

আমি : In case of human resources strategies of an organization, change management process directly affect it based on strategies and goals of the organization through setting up milestones and objectives. (দ্বিতীয় প্রশ্নের উত্তর) Second principle of Scientific Management implies on matching workers to their jobs based on capability and motivation and training them to work at maximum efficiency rather than simply assigning workers to just any job.

মহাব্যবস্থাপক : আজকের পত্রিকা পড়েছেন?

আমি : জি ম্যাম, পড়েছি।

মহাব্যবস্থাপক : লেবার অ্যাক্ট-২০০৬-এর সংশোধনীতে কোন দিকটি বেশি গুরুত্ব পেয়েছে?

আমি : নারীদের কর্ম পরিবেশ ও সুযোগ-সুবিধার বিষয়গুলো বেশি গুরুত্ব পেয়েছে।

এক্সটার্নাল : (মাথা নাড়লেন) আরও কিছু বলুন।

আমি : দুঃখিত স্যার, এই মুহূর্তে মনে পড়ছে না।

চেয়ারম্যান : ঠিক আছে, আপনি আসতে পারেন।

আমি : ধন্যবাদ স্যার, আসসালামু আলাইকুম।

(একজন এক্সটার্নাল স্যার কোনো প্রশ্ন করেননি। ভাইভার পুরো সময়টুকু তিনি অবজার্ভ করছিলেন।)

           

            শ্রুতলিখন : এম এম মুজাহিদ উদ্দীন



সাতদিনের সেরা