kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ২ ডিসেম্বর ২০২১। ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩

♦ পরীক্ষা পদ্ধতি ♦ প্রশ্ন বিশ্লেষণ ♦ প্রস্তুতি

বিসিআইসি নেবে ১২৩ জন

সম্প্রতি ১০ ধরনের ১২৩টি পদে (প্রথম শ্রেণির) নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশন (বিসিআইসি)। আবেদন করতে হবে অনলাইনে ২৮ অক্টোবরের মধ্যে। বিগত নিয়োগ পরীক্ষার প্রশ্ন, পদ্ধতি ও প্রস্তুতি সম্পর্কে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার সঙ্গে কথা বলে বিস্তারিত জানাচ্ছেন রবিউল আলম লুইপা

২৩ অক্টোবর, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বিসিআইসি নেবে ১২৩ জন

কোন পদে কত জন : সহকারী ব্যবস্থাপক (প্রসাসন/বাণিজ্যিক) পদে ১৮ জন, সহকারী প্রকৌশলী (কেমিক্যাল/বিদ্যুৎ/যান্ত্রিক) পদে ৬৩ জন, অন্যান্য পদে ৪২ জন।

 

পরীক্ষা পদ্ধতি ও প্রস্তুতি বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশনের (বিসিআইসি) জেনারেল ও টেকনিক্যাল কোরের বিভিন্ন পদে আগে এমসিকিউ ধরনের লিখিত পরীক্ষা ও মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। চলতি বিজ্ঞপ্তিতেও লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার কথাই বলা আছে। সে ক্ষেত্রে এবারও এমসিকিউ পদ্ধতির লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার মাধ্যমে নিয়োগ পরীক্ষা হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। বিগত দুইবারের জেনারেল ও  টেকনিক্যাল উভয় কোরের নিয়োগ প্রশ্ন বিশ্লেষণ করে  দেখা গেছে, এমসিকিউ ধরনের লিখিত পরীক্ষায় বাংলায় ১০-১৫, ইংরেজিতে ১৫-২০, গণিততে ১৫-২০ এবং সাধারণ জ্ঞানে (কম্পিউটার ও  টেকনিক্যাল পদসংশ্লিষ্ট বিষয়সহ) ২০-২৫ নম্বরের এমসিকিউ প্রশ্ন করা হয়েছে। বাংলা ছাড়া অন্যান্য বিষয়ের প্রশ্ন ইংরেজি ভার্সনে হতে পারে। তাই প্রস্তুতির জন্য আপনাকে আইবিএ বা বিজনেস স্টাডিজ ফ্যাকাল্টির ব্যাংক ধাঁচের প্রশ্ন অনুসরণ করতে হবে। বাজারে ফ্যাকাল্টি-ওয়াইজ প্রশ্নব্যাংক বই  থেকে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নিয়োগ প্রশ্ন দেখুন। ইংরেজি ও গণিত বিষয়ে ভালো প্রস্তুতির জন্য সাইফুর’স বা অন্য প্রকাশনীর বই অনুসরণ করতে পারেন। বাংলা প্রস্তুতির জন্য সাহিত্যের চেয়ে ব্যাকরণের ওপর এবং সাম্প্রতিক সময়ের সাধারণ জ্ঞানের ওপর বেশি জোর দিন। পদসংশ্লিষ্ট প্রশ্ন আপনার অনার্সে পঠিত বিষয়ের বেসিক ধারণা থেকেই উত্তর করা সম্ভব।

 

♦ নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ও আবেদনের লিংক : http://bcic.teletalk.com.bd

 

প্রশিক্ষণ, পদায়ন ও সুবিধাদি

বিসিআইসির একজন কর্মকর্তা হিসেবে বিসিআইসি নিয়ন্ত্রিত যেকোনো কারখানা প্রতিষ্ঠান, প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান ও প্রধান কার্যালয়ে আপনার পদায়ন হতে পারে। যোগদানের পর একজন নবীন কর্মকর্তাকে ট্রেনিং ইনস্টিটিউট ফর কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজে (টিআইসিআই) চার সপ্তাহ বা প্রতিষ্ঠান কর্তৃক নির্ধারিত মেয়াদের বুনিয়াদি প্রশিক্ষণসহ দেশে ও দেশের বাইরে বিভিন্ন প্রশিক্ষণে যোগ দিতে হতে পারে।

চাকরির বিভিন্ন পর্যায়ে দক্ষতা ও সিনিয়রিটির ভিত্তিতে একজন কর্মকর্তা সহকারী ব্যবস্থাপক থেকে উপব্যবস্থাপক, ব্যবস্থাপক, উপমহাব্যবস্থাপক, মহাব্যবস্থাপক, ঊর্ধ্বতন মহাব্যবস্থাপক প্রভৃতি পদে; সহকারী প্রকৌশলী থেকে নির্বাহী প্রকৌশলী, উপপ্রধান প্রকৌশলী, অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী, প্রধান প্রকৌশলী, ঊর্ধ্বতন মহাব্যবস্থাপক প্রভৃতি পদে পদোন্নতি পেতে পারেন (অন্যান্য পদেও একইভাবে বিভিন্ন ঊর্ধ্বতন পদ)। বিসিআইসির প্রথম শ্রেণির একজন কর্মকর্তা জাতীয় বেতন স্কেলের নবম গ্রেডে বেতন-ভাতা, প্রভিডেন্ট ফান্ড, পেনশন সুবিধাসহ অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা পেয়ে থাকেন। এ ছাড়া কারখানাভেদে প্রফিট বোনাস, ফুড কনভেনিয়েন্স, কারখানাসংলগ্ন কলোনিতে আবাসন সুবিধা, কলোনির মেডিক্যাল সেন্টারে চিকিৎসা সুবিধাসহ প্রতিষ্ঠান নির্ধারিত অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা এই চাকরির একটি গুরুত্বপূর্ণ বিশেষত্ব; তবে কারখানাকেন্দ্রিক চাকরি হওয়ায় কাজের কমবেশি চাপ থাকতে পারে।

 

এক নজরে বিসিআইসি

১৯৭২ সালের রাষ্ট্রপতির অধ্যাদেশ এবং ১৯৭৬ সালের সংশোধনী বলে ৩টি করপোরেশনকে (বাংলাদেশ সার, রসায়ন ও ভেষজ শিল্প করপোরেশন, বাংলাদেশ কাগজ ও বোর্ড করপোরেশন, বাংলাদেশ ট্যানারিজ  করপোরেশন) একীভূত করে ১ জুলাই ১৯৭৬ তারিখে বাংলাদেশ কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্রিজ করপোরেশন (বিসিআইসি) প্রতিষ্ঠা করা হয়।



সাতদিনের সেরা