kalerkantho

শুক্রবার । ৩ বৈশাখ ১৪২৮। ১৬ এপ্রিল ২০২১। ৩ রমজান ১৪৪২

এই প্রথম প্রিলি দিচ্ছেন?

৬ মার্চ, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



জেনে রাখুন

- আপনার রেজিস্ট্রেশন নম্বর অনুযায়ী পরীক্ষার কেন্দ্র নিশ্চিত করুন। হাতে সময় রেখে পরীক্ষার কেন্দ্রে যাবেন। পিএসসির নির্দেশনা অনুযায়ী, পরীক্ষা শুরুর পর কোনো পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষা হলে প্রবেশ করতে দেওয়া হয় না।

- পরীক্ষার হলে একাধিক কালো কালির কলম নিয়ে যাবেন। মোবাইল, ক্যালকুলেটর, হাতঘড়ি সঙ্গে নিয়ে যাবেন না। এগুলো নিয়ে গেলে নিজ দায়িত্বে বাইরে রাখতে হবে এবং হারানোর দুশ্চিন্তা আপনার পরীক্ষায় বিরূপ প্রভাব ফেলবে। সব কেন্দ্রের প্রতিটি কক্ষে পিএসসি থেকে দেয়ালঘড়ি সরবরাহ করা হয়।

- ওএমআর শিটে রেজিস্ট্রেশন নম্বর ও হাজিরা পাতায় অ্যাডমিট কার্ডের অনুরূপ স্বাক্ষর দিন।

- প্রশ্নপত্র ও উত্তরপত্রে আগে থেকেই সেট কোড বসানো থাকবে। কক্ষ প্রত্যবেক্ষক (Invigilator) আপনাকে একই সেটের প্রশ্নপত্র ও উত্তরপত্র দিয়েছে কি না মিলিয়ে নেবেন। সেট না মিললে আপনার সঠিক উত্তর কোনো কাজেই আসবে না।

- ওএমআর শিটে উত্তরের সিরিয়াল ওপরে-নিচে ক-খ-গ-ঘ নাকি পাশাপাশি ক-খ-গ-ঘ সেটি খেয়াল করুন (৩৫তম বিসিএসে অনেক প্রার্থীই ৫-৬টি প্রশ্নোত্তরের বৃত্ত ভরাট করার পর সিরিয়ালের বিষয়টি লক্ষ করেছেন)।

- প্রশ্নোত্তর করার সময় অনেকেই ১ নম্বর প্রশ্ন থেকে উত্তর শুরু করেন, আবার অনেকেই নির্দিষ্ট বিষয় (যেমন—বাংলাদেশ বিষয়াবলি) অনুযায়ী উত্তর দেন। কিভাবে উত্তর দেবেন, সেটি আপনার সিদ্ধান্ত। কিন্তু প্রত্যেক বিষয়ের সব প্রশ্নের উত্তর করার জন্য আপনাকে আগে থেকেই সময় নির্ধারণ করতে হবে। সম্ভব হলে এক ঘণ্টা ৩০ মিনিটের মধ্যে সব উত্তর শেষ করুন। শেষ ৩০ মিনিট না পারা প্রশ্নগুলো নিয়ে ভাবার সময় পাবেন। কোনো প্রশ্ন না পারলে সেটি নিয়ে অযথা সময় নষ্ট না করে, সেটিতে বিশেষ চিহ্ন দিয়ে পরের প্রশ্নে চলে যান। একটি কঠিন প্রশ্ন নিয়ে বেশি সময় নষ্ট করার কারণে অনেক সহজ প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার সময় না পেলে ক্ষতিটা আপনারই হবে। কিছু প্রশ্ন সময় নষ্ট করে। তাই কিছু নম্বর ছেড়ে আসার মানসিকতা রাখুন। পুরো নম্বর পেতে হবে, এমনটি নয়।

- ধারণা না থাকলে সেই প্রশ্নের উত্তর না দেওয়াই ভালো। ১০টি প্রশ্ন আন্দাজ করে উত্তর দিয়ে যদি ৩টি সঠিক হয়, তাহলে ঝুলিতে ৩ নম্বর যোগ হবে। কিন্তু মোট নম্বর থেকে ৩.৫০ (৭ঢ০.৫০) নম্বর বাদ যাবে। তাই উত্তরগুলো আন্দাজ করতে হবে হিসাব করে।

- প্রশ্ন যত কঠিনই হোক, পরীক্ষার পুরো সময় মাথা ঠাণ্ডা রেখে শেষ পর্যন্ত উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করে যাবেন। মনে রাখবেন, আপনার জন্য যে প্রশ্নটা কঠিন, সেটা অনেকের জন্যই কঠিন!

মন্তব্য