kalerkantho

সোমবার । ১৮ নভেম্বর ২০১৯। ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

১০৩৯ কর্মী নেবে দুই উন্নয়ন সংস্থা

বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা আরডিআরএস পাঁচ ধরনের পদে ৬৩৩ জন এবং শক্তি ফাউন্ডেশন চার ধরনের পদে ৪০৬ জন কর্মী নিয়োগ দেবে। ১১ অক্টোবর প্রথম আলোতে এ-সংক্রান্ত দুটি পৃথক বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে। নিয়োগ কর্তৃপক্ষের কাছে এ দুই প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের খোঁজ নিয়ে বিস্তারিত লিখেছেন ফরহাদ হোসেন

১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৫ মিনিটে



জোনাল কো-অর্ডিনেটর (ক্ষুদ্রঋণ) পদে পাঁচজন নেবে আরডিআরএস বাংলাদেশ। যোগ্যতা স্নাতকোত্তর পাস। ঋণ ব্যবস্থাপনায় ১০ বছর এবং জোনাল কো-অর্ডিনেটর পদে পাঁচ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। আঞ্চলিক ব্যবস্থাপকের পদ রয়েছে আটটি। স্নাতকোত্তর পাসের সঙ্গে ঋণ কার্যক্রম ব্যবস্থাপনায় তিন বছরসহ মোট আট বছরের অভিজ্ঞতা লাগবে। এলাকা ব্যবস্থাপক নেবে ২০ জন। স্নাতকোত্তর পাসসহ ঋণ কার্যক্রম পরিচালনায় দুই বছরসহ মোট পাঁচ বছরের অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। শাখা ব্যবস্থাপকের পদে রয়েছে ১০০টি। স্নাতকোত্তর পাসের সঙ্গে ঋণ কার্যক্রমে শাখা ব্যবস্থাপক পদে এক বছরসহ মোট চার বছরের অভিজ্ঞতা লাগবে। মাইক্রোফিন্যান্স অর্গানাইজার নেবে ৫০০ জন। স্নাতক পাস হলেই আবেদন করা যাবে। তবে মহিলা প্রার্থীদের বেলায় এইচএসসি হলেই চলবে। এ পদে বাইসাইকেল চালনা জানা থাকতে হবে। ব্যবস্থাপক পদগুলোর জন্য মোটরসাইকেল চালনার বৈধ লাইসেন্স থাকতে হবে।

অন্যদিকে একই তারিখে প্রকাশিত শক্তি ফাউন্ডেশনের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এরিয়া সুপারভাইজার দরকার ৩০ জন। যোগ্যতা ন্যূনতম স্নাতক পাস। বয়স সর্বোচ্চ ৪৫ বছর। শাখা ব্যবস্থাপক দরকার ৭৫ জন। ন্যূনতম স্নাতক পাস এবং বয়স সর্বোচ্চ ৪০ বছর। এ দুই পদে মাইক্রোফিন্যান্স কর্মসূচিতে ম্যানেজার বা এরিয়া সুপারভাইজার পদে দুই বছর কাজ করার অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। ক্রেডিট অফিসার নেবে ৩০০ জন। ন্যূনতম স্নাতক হলেই আবেদন করা যাবে। ক্যাশিয়ার (শক্তি ফার্মা) নেবে একজন। ‘ডি’ অথবা ‘সি’ গ্রেডে ফার্মাসিস্ট পাস এবং ক্যাশ ম্যানেজমেন্টে অভিজ্ঞ। এরিয়া সুপারভাইজার এবং শাখা ব্যবস্থাপক পদে কম্পিউটার চালনায় অভিজ্ঞ হতে হবে।

 

আবেদন যেভাবে

আরডিআরএস বাংলাদেশের আবেদন পাঠানো যাবে ২০ অক্টোবর পর্যন্ত। আবেদনপত্রে সচল মোবাইল নম্বর, সিভি, দুই কপি পাসপোর্ট সাইজের রঙিন ছবিসহ আবেদন লিখতে হবে সমন্বয়কারী (ক্ষুদ্রঋণ-মানবসম্পদ) বরাবর। আবেদন পাঠানোর ঠিকানা সমন্বয়কারী (ক্ষুদ্রঋণ-মানবসম্পদ) আরডিআরএস বাংলাদেশ, জেল রোড, রাধাবল্লভ, রংপুর। খামের ওপর পদের নাম উল্লেখ করতে হবে। অন্যদিকে শক্তি ফাউন্ডেশনের আবেদন পাঠানোর শেষ তারিখ ৩১ অক্টোবর।

সিনিয়র ডিরেক্টর বরাবর লেখা আবেদনে যোগাযোগের নম্বর, ঠিকানা ও প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ পূর্ণ সিভি পাঠানোর ঠিকানা—সিনিয়র ডিরেক্টর, এইচআর ডিপার্টমেন্ট, শক্তি ফাউন্ডেশন ফর ডিসঅ্যাডভান্টেজড উইমেন, বাড়ি নম্বর-৪, ব্লক-এ, সেকশন-১১, পল্লবী, মিরপুর, ঢাকা-১২১৬। খামের ওপর পদের নাম ও যে এলাকায় কাজ করতে আগ্রহী তা উল্লেখ করতে হবে।

 

বাছাই পরীক্ষা যেমন হবে

নির্ধারিত তারিখের মধ্যে প্রাপ্ত সব আবেদন প্রাথমিক যাচাই-বাছাই করে প্রার্থীদের ডাকা হবে পরীক্ষার জন্য। দুই প্রতিষ্ঠানেই পদভেদে লিখিত ও ভাইভা পরীক্ষা নেওয়া হয়। আরডিআরএস বাংলাদেশের অফিস সূত্রে জানা যায়, সব পদেই প্রাথমিক নির্বাচিত প্রার্থীদের নেওয়া হয় লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা। পদভেদে নিয়োগ কমিটি লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার নম্বর নির্ধারণ করে থাকে। তবে নিয়োগ কর্তৃপক্ষ পদ অনুসারে প্রাপ্ত আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে পরীক্ষার বিষয়াদি ও নিয়োগ পরীক্ষার পদ্ধতি নির্ধারণ করবে। শক্তি ফাউন্ডেশনের জ্যেষ্ঠ পরিচালক (মানবসম্পদ ও প্রশাসন) আসমা বেগম জানান, এরিয়া সুপারভাইজার এবং শাখা ব্যবস্থাপক পদের জন্য ৫০ নম্বরের লিখিত ও ১০০ নম্বরের ভাইভা নেওয়া হবে। ক্রেডিট অফিসার পদে ১০০ নম্বরের শুধু ভাইভা পরীক্ষার মাধ্যমে যোগ্য প্রার্থী বাছাই করা হবে।

 

পরীক্ষার জন্য তৈরি তো?

আরডিআরএস বাংলাদেশ প্রশাসন সূত্র জানায়, লিখিত পরীক্ষায় চাওয়া পদের শিক্ষাগত যোগ্যতা, অভিজ্ঞতা, কাজের পরিধি ও ঋণ কার্যক্রমের নানাবিধ বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়। থাকে পদসংশ্লিষ্ট দায়িত্ব ও যোগাযোগ দক্ষতার ওপর প্রশ্ন। এ ছাড়া মাঠপর্যায়ে কাজের বিষয়ে প্রশ্ন করা হয়ে থাকে। ভাইভা বোর্ডে প্রার্থীর যোগ্যতা, দক্ষতা, অভিজ্ঞতার পাশাপাশি দেখা হয় উপস্থিত বুদ্ধিমত্তা ও উপস্থাপনের দক্ষতা। সাধারণ জ্ঞানের পরিধি, যোগাযোগ দক্ষতা, ঋণ কার্যক্রমে স্বচ্ছ ধারণা, সাংগঠনিক দক্ষতা—এসব বিষয়ে জানতে চাওয়া হয়। পছন্দের পদে নিজেকে যোগ্য প্রার্থী হিসেবে উপস্থাপন করতে চাইলে এসব বিষয়ে আপডেট থাকতে হবে। শক্তি ফাউন্ডেশনের নিয়োগকর্তার মাধ্যমে জানা যায়, প্রার্থীদের লিখিত পরীক্ষায় প্রশ্ন করা হয় ক্ষুদ্রঋণ কার্যক্রমের নানা বিষয়ে। এ ছাড়া কম্পিউটার বিষয়ে এবং পদসংশ্লিষ্ট পূর্বের কাজের বিষয়ে লিখিত পরীক্ষায় প্রশ্ন আসে। সব পদের ভাইভায় দেখা হয় কাজের দক্ষতা, পূর্বের কাজের রেকর্ড, নেতৃত্ব দেওয়ার দক্ষতা, কম্পিউটার ব্যবহারের দক্ষতা এবং ঋণ কার্যক্রমের নানা ধরনের উপস্থিত দক্ষতা। এরিয়া সুপারভাইজার, শাখা ব্যবস্থাপক পদে মোটরবাইক চালনা এবং ক্রেডিট অফিসার পদে বাইসাইকেল চালনা দেখা হয়। উপস্থিত বুদ্ধিমত্তা, সাধারণ জ্ঞান এবং পূর্বের কাজের বিষয়ে ভালো ধারণা রাখতে পারলে শক্তি ফাউন্ডেশনে খুব সহজেই কাজের সুযোগ মিলতে পারে বলে জানান নিয়োগকর্তা।

 

বেতন-ভাতা ও অন্যান্য সুবিধা

আরডিআরএস বাংলাদেশে নিয়োগপ্রাপ্ত সব পদের শিক্ষানবিশকাল ছয় মাস। শিক্ষানবিশ সময়ে বেতন আলোচনার মাধ্যমে নির্ধারণ করা হবে।

স্থায়ীকরণে সংস্থার নিয়ম অনুসারে নির্ধারিত স্কেলে বেতন ও প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটি, বার্ষিক ইনক্রিমেন্ট, উৎসবভাতা, চিকিৎসা সহায়তা, মোবাইল বিলসহ অন্যান্য সুবিধা পাওয়া যাবে। দক্ষতা দেখাতে পারলে মিলবে পদোন্নতিও।

শক্তি ফাউন্ডেশনের বেলায় এরিয়া সুপারভাইজার, শাখা ব্যবস্থাপক এবং ক্রেডিট অফিসার পদে শিক্ষানবিশকাল ছয় মাস। সফলতার সঙ্গে শিক্ষানবিশকাল শেষে সংস্থার পলিসি অনুসারে বেতন পাওয়া যাবে। এ ছাড়া বার্ষিক ইনক্রিমেন্ট, তিনটি উৎসবভাতা, প্রভিডেন্ট ফান্ড, গ্র্যাচুইটি, স্বাস্থ্য অনুদান, সপ্তাহে দুই দিন ছুটি, ক্রেডিট অফিসার পদে আবাসন সুবিধাসহ অন্যান্য সুবিধা পাওয়া যাবে।

 

যোগাযোগ

 ► আরডিআরএস বাংলাদেশ, জেল রোড, রাধাবল্লভ, রংপুর। ওয়েব : rdrsbangla.net

 

 ► শক্তি ফাউন্ডেশন ফর ডিসঅ্যাডভান্টেজড উইমেন, বাড়ি-৪, ব্লক-এ, সেকশন-১১, পল্লবী, মিরপুর, ঢাকা-১২১৬।

ওয়েব : www.shakti.org.bd

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা