kalerkantho

শুক্রবার  । ১৮ অক্টোবর ২০১৯। ২ কাতির্ক ১৪২৬। ১৮ সফর ১৪৪১              

কাশ্মীর

৩৭০ ধারা রদে যে যে পরিবর্তন

সূত্র : জি নিউজ   

২১ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



১। জম্মু ও কাশ্মীর রাজ্য

আগে : একটি রাজ্য ছিল ‘জম্মু ও কাশ্মীর’

এখন : দুটি ভাগ হলো—‘জম্মু ও কাশ্মীর’ এবং ‘লাদাখ’। একই সঙ্গে রাজ্যের মর্যাদাও হারাল। নবগঠিত এই দুই অঞ্চলকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে।

 

২। বিশেষ সুবিধা

আগে : ৩৭০ ধারায় জম্মু ও কাশ্মীরকে বিশেষ মর্যাদা ও স্বায়ত্তশাসনের অধিকার দেওয়া হয়েছিল। দেশের অন্যান্য রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের তুলনায় নিয়মের দিক থেকে তুলনামূলক ছাড় পেত কাশ্মীরিরা।

এখন : অন্যান্য কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের মতো এখানেও একই নিয়ম-ধারা চলবে।

৩। পতাকা

আগে : বিশেষ সুবিধাবলে, জম্মু ও কাশ্মীরে ভারতীয় পতাকার পাশাপাশি নিজস্ব পতাকা ছিল।

এখন : এখন রাষ্ট্রের নিয়ম অনুযায়ী দেশের ত্রিরঙা জাতীয় পতাকাই জম্মু ও কাশ্মীরের একমাত্র পতাকা।

 

৪। সম্পত্তি কেনার অধিকার

আগে : ৩৭০ ধারার মধ্যেই ছিল ৩৫ এ ধারা। ফলে এই ধারাও বাতিল হয়েছে। এই ধারা অনুযায়ী অন্য রাজ্যের কেউ জম্মু ও কাশ্মীরে স্থাবর সম্পত্তি কিনতে পারত না। সম্পত্তি কিনতে হলে রাজ্যে অন্তত ১০ বছর থাকার নিয়ম ছিল।

এখন : যেকোনো ভারতীয় নাগরিক জমি কিনতে পারবেন।

 

৫। মহিলাদের উত্তরাধিকার

আগে : কোনো মহিলা জম্মু ও কাশ্মীরের বাইরের কাউকে বিয়ে করলে বাবার সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত হতেন। তার উত্তরাধিকারীরাও সম্পত্তির অধিকার পেতেন না।

এখন : কাশ্মীরের বাইরের কাউকে বিয়ে করলে বাবার সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত হতে হবে না।

 

৬। তথ্য জানার অধিকার

আগে : এর আগে সাংবিধানিক নিয়ম অনুযায়ী তথ্য জানার অধিকারের আওতাভুক্ত ছিল না জম্মু ও কাশ্মীর।

এখন : সারা দেশের মতোই তথ্যের অধিকারের (আরটিআই) আওতাভুক্ত হলো।   

    

           

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা