kalerkantho

শনিবার । ২৪ আগস্ট ২০১৯। ৯ ভাদ্র ১৪২৬। ২২ জিলহজ ১৪৪০

ক্যাম্পাস ক্লাব

যুক্তিতর্কের মঞ্চ

২৫ জুলাই, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



যুক্তিতর্কের মঞ্চ

ক্যাম্পাস ক্লাবের নিয়মিত আয়োজনে আজ থাকছে বিএএফ শাহীন কলেজ, ঢাকার বিতর্ক ক্লাবের গল্প। বিস্তারিত জানাচ্ছেন জুবায়ের আহম্মেদ

 

আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এসএসসি পাস করে বিএএফ শাহীন কলেজে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হয়েছিল রিফাত মেহেদী। কিন্তু কলেজে ভর্তি হওয়ার পর বিতর্ক করার জন্য তেমন টিম মেম্বার পাচ্ছিল না। একদিন পরিচয় হয় অর্ঘ্য অর্পণের সঙ্গে। অর্ঘ্য তার স্কুলে বিতর্ক করত এবং বিভিন্ন বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করত। তারপর থেকে দুজনেই বিতর্ক চর্চায় একে অন্যকে সাহায্য করত। এদিকে তাদের সঙ্গে যুক্ত হয় আরেক সহপাঠী শফিকুল ইসলাম শাওন ও রাজবাড়ী থেকে আসা আরেক বিতার্কিক ও তাদের পরবর্তী ব্যাচের শিক্ষার্থী ফারহান ইমতিয়াজ নাফি। তাদের আলাপ-আলোচনায় বেরিয়ে এলো, কলেজের শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন জায়গায় বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে পুরস্কার পাচ্ছে। এখন একটি বিতর্ক ক্লাব করলে সবাই বিতর্কচর্চায় উদ্বুদ্ধ হবে এবং বিতার্কিকদের সুযোগ করে দেওয়া যাবে। তাই সবাই মিলে পরিকল্পনা করল কলেজে একটি বিতর্ক ক্লাব খোলার। অবশেষে ২০১৬ সালের ১ অক্টোবর প্রতিষ্ঠিত হয় ঢাকা শাহীন ডিবেটিং ক্লাব (ডিএসডিসি)।

শাহীন কলেজের সঙ্গে বিতর্কের সম্পর্ক অনেক পুরনো। কলেজের প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই শাহীন কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরা বিতর্কচর্চা করত। তবে তখনো কলেজে ক্লাব ছিল না। স্কুল ও কলেজের ছাত্র-ছাত্রী মিলিয়ে বিতর্ক ক্লাবটির বর্তমান সদস্য সংখ্যা ৮৩ জন। সদস্য হওয়ার জন্য প্রথমেই ক্লাবের ফরম সংগ্রহ করতে হয়। ফরম জমা দেওয়ার সময়ই তাদের একটি করে মেম্বারশিপ ব্যাজ দিয়ে দেওয়া হয়। এ বছর ক্লাব তিন বছরে পা দেবে। এই অল্প সময়ে ডিএসডিসির অর্জনের খাতা মোটেও ছোট নয়। জাতীয় পর্যায়ে বেশ কিছু পুরস্কার এনেছে ডিএসডিসির বিতার্কিকরা। ক্লাবের সভাপতি আব্দুল্লাহ আল নোমান বলল, ‘কঠিন পথ পার করে ডিএসডিসি এখন কলেজের সুনামকে উত্তরোত্তর বৃদ্ধি করছে। ক্লাবটি আমার কাছে প্রচণ্ড আবেগের জায়গা। আর বিতর্কচর্চার মাধ্যমেই সত্য বেরিয়ে আসে। আমাদের ক্লাবটি যুক্তিতর্কের চর্চা করছে এবং শিক্ষার্থীদের এ বিষয়ে আগ্রহী করে তুলছে।’ এ বছর রাজবাড়ীতে বিতর্ক প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছিল আব্দুল্লাহ আল নোমান, মরিয়ম সারা, জান্নাতুল ফেরদৌস। সেখানকার কোনো মজার ঘটনা জানতে চাইলে মরিয়ম সারা বলে, ‘বিতর্ক শেষে আমরা সবাই বারান্দায় বসে বিশ্রাম করছিলাম। তখন সেখানকার কিছু শিক্ষার্থী আমাদের ঘিরে ধরে। উদ্দেশ্য আমাদের সঙ্গে সেলফি তোলা। বেশ আনন্দ আর হৈ-হুল্লোড় করেই ছবি তুলেছি। বিষয়টি আমাদের জন্য রীতিমতো বিস্ময়কর ছিল। পরে মনে মনে ভাবলাম আমদের বিতর্ক নিশ্চয় ওদের পছন্দ হয়েছে, তাই এত খাতির।’

শাহীন কলেজ প্রতিবছর আন্ত শাহীন ও আন্ত হাউস বিতর্ক প্রতিযোগিতার আয়োজন করে থাকে। ডিএসডিসি এই পর্যন্ত তিনটি আন্ত শাখা বিতর্ক প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে। এ ছাড়া ঢাকা শাহীন ডিবেটিং ক্লাব এ বছরই প্রথম স্কুল ও কলেজের বিতার্কিকদের নিয়ে জাতীয় পর্যায়ের বিতর্ক উত্সব ‘ডিএসডিসি তর্কযুদ্ধ ২০১৮’ আয়োজন করেছে। এখানে বাংলাদেশের বিভিন্ন জায়গা থেকে স্কুল পর্যায়ের ২৮ ও কলেজ পর্যায়ের ২২টি দল, অর্থাৎ মোট ৫০টি দল অংশগ্রহণ করে। ক্লাবের কো-অর্ডিনেটর রোবায়েত হাসান রক্তিম বলল, ‘যখনই সত্যান্বেষণের আগ্রহ জেগে উঠেছিল, তখনই এক অবিশ্বাস্য প্ল্যাটফর্ম হিসেবে পেয়ে যাই ঢাকা শাহীন ডিবেটিং ক্লাবকে। এটা শুধু ক্লাব নয়, একটি পরিবার। যেখানে অভিভাবক হিসেবে অন্তর্ভুক্ত আছেন আমাদের অধ্যক্ষ, উপাধ্যক্ষ ও ক্লাবের সিনিয়র ভাইয়েরা। বিশেষ করে মাননীয় অধ্যক্ষ কাউসার স্যার পরিবারের কর্তার মতোই সব সময় আমাদের অনুপ্রাণিত করে এসেছেন।’ ঢাকা শাহীন ডিবেট ক্লাবের আয়োজনে আগামী আগস্টে (সম্ভাব্য তারিখ) চতুর্থ আন্ত শাখা বিতর্ক প্রতিযোগিতা ২০১৮ এবং সেপ্টেম্বরের ২৯-৩০ তারিখে (সম্ভাব্য) দ্বিতীয় ডিএসডিসি মিক্সআপ ২০১৮ অনুষ্ঠিত হবে। ক্লাবের মডারেটর ও ভূগোল বিভাগের সহকারী অধ্যাপক মো. সাজ্জাদ হোসেন বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বিতর্ক নিয়ে কাজ করার অনুভূতি সত্যিই অসাধারণ। ওদের সঙ্গে কাজ করাটা আমার কাছে নেশার মতো হয়ে গেছে। সপ্তম ও অষ্টম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ডিবেট দেখে আমি মুগ্ধ। আর ভবিষ্যতে ঢাকা শাহীন বিতর্ক ক্লাবকে দেশের অন্যতম একটি বিতর্ক ক্লাব হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে কাজ করে যাব।’

ক্লাবের অর্জনগুলো

♦          ডিএফএইচ (ডিবেট ফর হিউম্যানিটি) আঞ্চলিক বিতর্ক প্রতিযোগিতা (মিরপুর)-২০১৬—রানার-আপ

♦          ডিএফএইচ আন্ত কলেজ বিতর্ক প্রতিযোগিতা-২০১৭—চ্যাম্পিয়ন

♦          সূর্যসেন স্মারক জাতীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা-২০১৭—চ্যাম্পিয়ন

♦          ডিএফএইচ বিতর্ক মঞ্চ-২০১৭—চ্যাম্পিয়ন

♦          ষষ্ঠ আরডিএ (রাজবাড়ী ডিবেট অ্যাসোসিয়েশন) জাতীয় বিতর্ক উত্সব-২০১৮—চ্যাম্পিয়ন

♦          ১৮তম জাতীয় নবায়নযোগ্য শক্তি আন্ত কলেজ বিতর্ক প্রতিযোগিতা— ২০১৭—চ্যাম্পিয়ন।

♦          প্রথম মোহাম্মদপুর প্রিপারেটরি ল্যাঙ্গুগুয়েজ ডিবেট ফেস্টিভাল-২০১৮—রানার-আপ

মন্তব্য