kalerkantho

শুক্রবার । ২১ জুন ২০১৯। ৭ আষাঢ় ১৪২৬। ১৮ শাওয়াল ১৪৪০

সমৃদ্ধ তিন লাইব্রেরি

৯ মে, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



বিইউবিটির তিনটি সমৃদ্ধ লাইব্রেরি আছে। একটি প্রায় দুই হাজার ১০০ বর্গফুটের, ১৫০ আসনবিশিষ্ট। অন্যটি পাঁচ হাজার ৬৭৮ বর্গফুটের, ২৫০ আসনবিশিষ্ট। আরেকটিও পাঁচ হাজার বর্গফুট আয়তনের, আসনও তেমন। স্থায়ী ক্যাম্পাসের এই লাইব্রেরিগুলোতে মোট ২৪ হাজার ২৩৬টি বই, এক হাজার ৫৯০টি জার্নাল, এক হাজার ৪৮২টি সাময়িকী ও ৩১০টি অডিও ভিজ্যুয়াল উপকরণ আছে। লাইব্রেরিতে কম্পিউটার ও অনলাইন ক্যাটালগিং সুবিধা আছে। লাইব্রেরিতে বসে পড়ছিলেন ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগের চতুর্থ সেমিস্টারের ছাত্র সোহাগ উল আনাম চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘আমাদের বিভাগের সব বই লাইব্রেরিতে আছে। আমরা এক সপ্তাহের জন্য দুটি বই বাসায় নিয়ে পড়তে পারি। অনলাইনেও বইয়ের অ্যাকসেস পাওয়া যায়।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি লাইব্রেরিয়ান বিনয় কুমার রায় বলেন, ‘আমাদের কাছে সবগুলো বিভাগের সংশ্লিষ্ট সব বই ও জার্নাল আছে। সোমবার ছাড়া প্রতিদিন সকাল সাড়ে ৮টা থেকে রাত সাড়ে ৯টা পর্যন্ত লাইব্রেরিগুলো খোলা থাকে। সোমবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত খোলা থাকে।’ তিনি জানালেন, ‘বিইউবিটি লাইব্রেরি কোহা আইএলএস সফটওয়্যার ব্যবহার করে। কোহা হলো বিশ্বের প্রথম উন্মুক্ত লাইব্রেরি ব্যবস্থাপনা সফটওয়্যার। এটির মাধ্যমে আমরা পৃথিবীর এক হাজার ৫০০ বিখ্যাত লাইব্রেরি ও তথ্যপ্রতিষ্ঠানের তথ্য-উপাত্ত ব্যবহার করতে পারি।’

মন্তব্য