kalerkantho

রবিবার । ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮। ৫ ডিসেম্বর ২০২১। ২৯ রবিউস সানি ১৪৪৩

সার্ধশততম জন্মবার্ষিকীর অনুষ্ঠানের সমাপ্তি

রবীন্দ্রনাথকে সঙ্গী করে এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয়

আজিজুল পারভেজ, দিল্লি থেকে   

৮ মে, ২০১২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



রবীন্দ্রনাথকে সঙ্গী করে এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয়

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সার্ধশততম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ-ভারতের বছরব্যাপী অনুষ্ঠানমালার সমাপ্তি হলো নয়াদিলি্লতে। গতকাল সোমবার দিলি্লর বিজ্ঞান ভবনে আয়োজিত সমাপনী অনুষ্ঠানে দুই দেশের শীর্ষ কর্তা-ব্যক্তিত্বরা কবিগুরু রবীন্দ্রনাথকে সঙ্গী করে এগিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় ঘোষণা করেন। তাঁরা বলেছেন, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর মানবিকতা ও বিশ্বজনীনতার প্রতীক। রবীন্দ্র চর্চার মাধ্যমে পারস্পরিক সম্পর্ক ও আধ্যাত্মিক উন্নয়ন সম্ভব। রবীন্দ্র সার্ধশততম জন্মবার্ষিকীর বছরব্যাপী উৎসব পালন সমাপ্ত হলেও রবীন্দ্রনাথ এ অঞ্চলের প্রতিটি মানুষের হৃদয়ে প্রতি মুহূর্তে থাকবেন বিরাজমান। সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ভারতের উপ-রাষ্ট্রপতি হামিদ আনসারী। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. দীপু মনি। সভাপতিত্ব করেন ভারতের অর্থমন্ত্রী ও রবীন্দ্র সার্ধশততম জন্মবার্ষিকী ভারতীয় জাতীয় উদ্যাপন কমিটির সভাপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। হামিদ আনসারী বলেন, রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সার্ধশততম জন্মবার্ষিকী ভারত-বাংলাদেশের যৌথ আয়োজনে সম্পন্ন হওয়ায় দুই দেশের মানুষের সাংস্কৃতিক ও আধ্যাত্মিক সম্পর্ক আরো নিবিড় হয়েছে এবং অর্থনৈতিক সম্পর্ক জোরদারেও এই উদ্যোগ ভূমিকা পালন করবে। দীপু মনি বলেন, 'রবীন্দ্রনাথকে কোনো ভৌগোলিক সীমারেখায় আবদ্ধ করা সম্ভব নয়। তিনি হচ্ছেন বিশ্ব মানবতার প্রতীক, বিশ্বজনীন কবি। আমাদের সৌভাগ্য যে তাঁর মতো সৃষ্টিশীল মানুষকে আমরা পেয়েছিলাম।' ভারতের অর্থমন্ত্রী প্রণব মুখোপাধ্যায় বলেন, রবীন্দ্রনাথের কর্মের স্থায়িত্ব ধরে রাখতে প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। তিনি ঘোষণা করেন, রবীন্দ্রনাথের কর্ম নিয়ে গবেষণার স্বীকৃতি হিসেবে এ বছর পণ্ডিত রবিশঙ্করকে অ্যাওয়ার্ড দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। রবীন্দ্রনাথকে নিয়ে আরেকটি বিশ্ববিদ্যালয় করার জন্য ১৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে। অনুষ্ঠানের শুরু এবং সমাপ্তি ঘটে কবিগুরু রবীন্দ্রনাথের লেখা দুই দেশের জাতীয় সংগীত বাজানোর মাধ্যমে। গত বছর ৬ মে ঢাকায় বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং ৭ মে দিলি্লতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী ড. মনমোহন সিং এর উদ্বোধন করেন।


সাতদিনের সেরা