kalerkantho

রবিবার । ১ কার্তিক ১৪২৮। ১৭ অক্টোবর ২০২১। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দুর্নীতির মামলা

মহীউদ্দীন খান আলমগীরসহ পাঁচজন খালাস

আদালত প্রতিবেদক   

২৭ এপ্রিল, ২০১২ ০০:০০ | পড়া যাবে ২ মিনিটে



দুর্নীতির মামলায় সাবেক প্রতিমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীরসহ পাঁচজনকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত। গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকার বিভাগীয় বিশেষ জজ আদালতের ভারপ্রাপ্ত বিচারক মো. আবদুল মজিদ এ রায় ঘোষণা করেন। গতকাল রায়ের সময় মহীউদ্দীন খান ছাড়া অন্য আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন। মহীউদ্দীন খান আলমগীর ছাড়া খালাস পাওয়া অন্য আসামিরা হলেন সাবেক এমপি ও মেসার্স মিউচুয়াল ট্রেডিং কম্পানির স্বত্বাধিকারী এম এ সাত্তার ওরফে আবদুর সাত্তার, বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের সাবেক চেয়ারম্যান এয়ার কমোডর (অব.) এম মঞ্জুর আলম, বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের সাবেক সদস্য শাকির উদ্দিন আহমেদ ও গ্রুপ ক্যাপ্টেন এম ইকবাল হোসেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা তদন্ত শেষে ২০০৪ সালের ২০ মার্চ দণ্ডবিধির ৪০৯/১০৯ ও ১৯৪৭ সালের ২ নম্বর দুর্নীতি দমন আইনের ৫(২) ধারায় আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। মামলার অভিযোগপত্রে বলা হয়, ১৯৯৭ সালে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের ফ্লাইট ক্যালিব্রেশন (নিরাপত্তা যন্ত্রের মাধ্যমে ফ্লাইট ওঠা-নামার ব্যবস্থা) কাজের জন্য ঠিকাদার নিয়োগে আইন ভঙ্গ করে তিনটি দরপত্রের স্থলে দুটি দরপত্র আহ্বান করে সর্বনিম্ন দরদাতাকে নিয়োগ না করে সর্বোচ্চ দরদাতা মেসার্স মিউচুয়াল ট্রেডিং কম্পানিকে কাজ দেন। ওই অনিয়মের মাধ্যমে আসামিরা ৪৪ লাখ ৫০ হাজার টাকার দুর্নীতি এবং ওই অর্থ আত্মসাৎ করেন। ২০০৩ সালের ২৬ এপ্রিল তৎকালীন দুর্নীতি দমন ব্যুরোর অফিসার মো. জহিরুল হুদা রাজধানীর বিমানবন্দর থানায় আসামিদের বিরুদ্ধে এ মামলা করেন। ঘটনার সময় ড. মহীউদ্দীন খান আলমগীর বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ছিলেন। মামলার বিচার চলাকালে পাঁচজন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ করা হয়।


সাতদিনের সেরা