kalerkantho

রবিবার । ২ অক্টোবর ২০২২ । ১৭ আশ্বিন ১৪২৯ ।  ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

আটা সংরক্ষণ করবেন যেভাবে

কিছু নিয়ম মেনে আটা ও ময়দা সংরক্ষণ করলে অনেক দিন ভালো থাকে। আটা সংরক্ষণের উপায় সম্পর্কে জানালেন সেরা রাধুনী ১৪২৭ এর প্রথম রানার আপ ও রন্ধনশিল্পী নাদিয়া নাতাশা। লিখেছেন মোনালিসা মেহরিন

১৫ আগস্ট, ২০২২ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



আটা সংরক্ষণ করবেন যেভাবে

দীর্ঘদিন খোলা অবস্থায় রেখে দিলে আটা ও ময়দা নষ্ট হয়ে যায়। এ জন্য নিয়ম মেনে আটা ও ময়দা সংরক্ষণ করতে হবে। সকালের নাশতায় রুটি খাওয়ার অভ্যাস অনেকেরই। বিশেষ করে ডায়াবেটিকসহ কিছু রোগীকে নিয়মিত আটার তৈরি রুটি খেতে হয়।

বিজ্ঞাপন

এ জন্য অনেকেই বারবার কেনার চেয়ে একবারে বেশি আটা কিনে ঘরে রেখে দেন। এরপর প্রতিদিন অল্প অল্প করে ব্যবহার করেন।

আটা সঠিকভাবে সংরক্ষণ করতে হয়। না হলে এমন আটায় তৈরি খাবারের গুণাগুণ কমে যায়। অনেক সময় নষ্ট আটায় তৈরি খাবার স্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকিপূর্ণও হতে পারে। যাঁরা নিয়মিত আটার তৈরি খাবার খান তাঁদের বেলায় হয়তো এমনটা হয় না। যাঁরা আটা সংরক্ষণ করে রাখেন তাঁদের ক্ষেত্রে সমস্যা বেশি হয়।

তাই একসঙ্গে বেশি আটা ও ময়দা কেনার আগে ব্যবহার ও চাহিদার দিকে মনোযোগ দিন। কেননা সংরক্ষণ করে খাওয়া যায় এমন খাবার যেমন—চিনি কিংবা মধু বাদে যেকোনো খাবারই একসময় নষ্ট হয়ে যায়।

তবে অন্যান্য খাদ্যপণ্যের তুলনায় আটা ও ময়দা এমনিতেই বেশ কিছুদিন কোনো ধরনের প্রিজারভেটিভ ছাড়াই ভালো থাকে। কারণ আটা ও ময়দায় আর্দ্রতার পরিমাণ থাকে খুব কম। পাশাপাশি তাপ দিয়ে উত্পাদন করায় তা অনেক দিন ভালো থাকে। এ জন্যই প্যাকেটের গায়ে আটা, ময়দা ব্যবহারের মেয়াদ বেশ দীর্ঘকালীন উল্লেখ করা থাকে। এই মেয়াদ কেবলমাত্র প্যাকেটজাত অবস্থায়ই কার্যকর। প্যাকেট থেকে খুলে যত্রতত্র রেখে দিলে এই মেয়াদ কার্যকর নয়। প্যাকেটে বায়ুনিরোধী হিসেবে আটা ও ময়দা সংরক্ষণ থাকে। এ জন্য আটা ও ময়দা সংরক্ষণ করার সঠিক উপায় জানা থাকা জরুরী।

আটা ও ময়দা যেসব কারণে নষ্ট হয়

মাছ, মাংস, সবজির মতো আটা ও ময়দাও কিন্তু কাঁচাজাতীয় খাবার। হয়তো দেখে তা মনে হওয়ার জো নেই। আদতে কিন্তু তাই। এ জন্য এমন খাদ্যপণ্য সংরক্ষণের ক্ষেত্রে সচেতন হতে হবে। খোলা অবস্থায় রাখলে বাতাসে আটা ও ময়দা নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা বেশি। আটার ধরন ও মানের ওপরও তা কত দিন ভালো থাকবে নির্ভর করে।

সাদা আটা বা ময়দা তুলনামূলক বেশিদিন ভালো থাকে। কারণ এর থেকে ব্র্যান সরিয়ে ফেলা হয়। এই ব্র্যানেই থাকে তেল। যে আটা বা ময়দায় যত বেশি চর্বি তা নষ্ট হওয়ার মাত্রাও তত বেশি।

নষ্ট আটা ও ময়দার লক্ষণ

আটা ও ময়দা নষ্ট হয়ে গেলে তাতে তেলজাতীয় গন্ধ সৃষ্টি হয়। তা ছাড়া আটার রং পরিবর্তন হতে পারে, জমাট বেঁধে যেতেও দেখা যায়। আটা নষ্ট কি না তা বোঝার সহজ উপায় পোকার সংক্রমণ। ক্ষুদ্র হলেও এই পোকা খালি চোখে দেখা যায়।

সঠিকভাবে সংরক্ষণ

বাজার থেকে প্যাকেটজাত আটা কিনে এনে প্যাকেট খোলা অবস্থায় রাখা যাবে না। দীর্ঘদিন সংরক্ষণ করতে চাইলে কাগজ কিংবা প্লাস্টিকের ব্যাগ আটা ও ময়দা ভালো রাখার জন্য যথেষ্ট নয়। এ জন্য বায়ুরোধক কাচ, ধাতু বা প্লাস্টিকের কৌটা বা পাত্র ব্যবহার করতে হবে। আটা বা ময়দার পাত্র শুকনা স্থানে সংরক্ষণ করতে হবে। আটা পাত্রে ভরে মুখ আটকিয়ে ফ্রিজেও সংরক্ষণ করে রাখা যাবে।

তবে আটা বেশিদিন সংরক্ষণ করে না খাওয়াই ভালো। তাতে আটা বা ময়দার স্বাদ অক্ষুণ্ন নাও থাকতে পারে। পুরনো আটা বা ময়দায় তৈরি যেকোনো খাবার নতুন বা টাটকা আটা-ময়দার তুলনায় কম হয়। তাই সবচেয়ে ভালো হয় বাজার থেকে কম পরিমাণ কিনে কয়েক দিনেই খেয়ে শেষ করে ফেলা।



সাতদিনের সেরা