kalerkantho

শনিবার । ১৬ শ্রাবণ ১৪২৮। ৩১ জুলাই ২০২১। ২০ জিলহজ ১৪৪২

রোদ বা বৃষ্টি সঙ্গে থাক ছাতা

এই রোদ এই বৃষ্টি—দুই রকম আবহাওয়াতেই দারুণ সঙ্গী ছাতা। এজন্য এ সময় সঙ্গে একটি ছাতা রাখুন। এই মৌসুমে বাজারে মিলছে নানা নকশার ছাতা। খবর জানাচ্ছেন আতিফ আতাউর

২১ জুন, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



রোদ বা বৃষ্টি  সঙ্গে থাক ছাতা

ছবি : আলিফ

আকাশে মেঘের ঘনঘটা দেখে রেইনকোট ব্যাগে নিয়ে বের হয়েছিলেন উত্তরার জসীমউদ্দীন রোডের বাসিন্দা শফিকুর রহমান। পথেই ঝিরিঝিরি বৃষ্টি। ব্যাগ থেকে রেইনকোট বের করে বৃষ্টি থেকে রক্ষা পান। খানিক পরই আকাশে রোদের ঝলকানি। বৃষ্টির পরের ঝকঝকে আকাশে বেশ তাতিয়ে উঠে রোদ। একটা ছাতার ছায়া পেলে যেন বাঁচেন তিনি।

রোদ-বৃষ্টির এমন লুকোচুরির দিনে এই অভিজ্ঞতার কথা জানালেন তিনি। এখন তাই রোদ হোক বা বৃষ্টি; সঙ্গে একটি ছাতা নিয়ে বের হন শফিকুর। ছাতা এমন সঙ্গী, যেটি রোদ ও বৃষ্টি দুটিতেই বর্মের মতো কাজ করে। এখন আবহাওয়াও এমন যে কোনো তাল নেই। সকালে ঝলমলে রোদ দেখে বের হলেন, পথেই হঠাত্ বৃষ্টি এসে বাগড়া দিতে পারে। তাতে কী? ছাতা থাকলে ওসবে থোড়াই কেয়ার!

ছাতার বাহার

বাজারে ছোট, বড়, মাঝারি বিভিন্ন আকারের ছাতা পাওয়া যায়। ছোটদের জন্য রয়েছে কার্টুন ডিজাইনের ছোট আকৃতির ছাতা। ছাতার যেমন চাহিদা তেমনি তার নকশার বাহার। কালো, নীল, লাল, ছাইসহ বিভিন্ন একরঙা ছাতা তো পাবেনই। আরো আছে রঙবেরঙের প্রিন্টের ছাতা। কোনোটিতে পুঁতি বা জরির কাজ। কোনো কোনো ছাতার ডিজাইন এমন যে ভাঁজ করে ছোট্ট ব্যাগেও পুরে রাখা যায়। ফলে সব সময় বহনেও বাড়তি অসুবিধা হয় না। এ ছাড়া এখন স্বচ্ছ রঙা ছাতাও পাওয়া যাচ্ছে বাজারে। বৃষ্টির মৌসুম দেখে ছাতা কিনতে এসেছিলেন তিতুমীর কলেজের বাংলার শিক্ষার্থী নাহিদা সুলতানা নুহা। এমন একটি স্বচ্ছ ছাতা বেছে নিলেন তিনি। বললেন, ‘বান্দবীকে দেখেছি এমন ছাতা ব্যবহার করতে। স্বচ্ছ ছাতায় যেমন বৃষ্টি থেকে বাঁচা যায় তেমনি আবার আশপাশের দৃশ্য দেখতেও কোনো অসুবিধা হয় না।’ তবে যেমন ছাতাই কিনুন, খেয়াল রাখবেন, সেটি টেকসই আর মজবুত হয়।

ছাতা কেনার সময়

সুবাস্তু আর্কেড মলের ছাতা বিক্রেতা রহমতুল্লাহ দিলেন ছাতা কেনা সংক্রান্ত কিছু পরামর্শ। তাঁর মতে, প্রথমেই ছাতার কাপড়ের দিকে নজর দিন। টেকসই ও বৃষ্টিরোধক কি না ভালোভাবে যাচাই করুন। ছাতার বাটন ঠিকমতো কাজ করে কি না দেখে নিন। ছাতা খুলে সেলাইয়ের অংশ ও রডের সংযোগ স্থান ঠিকঠাক আছে কি না দেখুন। সাধারণত ছাতার শিকের সংখ্যা যত বেশি হয় ছাতাটি তত মজবুত হয় বলে ধরে নেওয়া হয়। এ জন্য শিকের সংখ্যা দেখেও ছাতা কিনতে পারেন। এমন আকৃতির ছাতা বেছে নিন, যাতে আপনার শরীর বৃষ্টি অথবা রোদ থেকে ঠিকমতো রক্ষা পায়। কেনার সময় কোনো ওয়ারেন্টি বা গ্যারান্টি আছে কিনা জেনে নিন। থাকলে ওয়ারেন্টি অথবা গ্যারান্টি কার্ড বুঝে নিতে ভুলবেন না।

ছাতা ব্যবহারের পর

প্রতিবার ছাতা ব্যবহার শেষে ঠিকমতো বন্ধ করে গুছিয়ে রাখুন। বৃষ্টিতে ছাতা ব্যবহারের পর কিছুক্ষণ মেলে রাখুন, যাতে পানি শুকিয়ে যায়। এরপর বন্ধ করে ছাতার কাভার লাগিয়ে রেখে দিন। ছাতা বন্ধ করার সময় ভাজগুলোর প্রতি লক্ষ রাখুন। ভাজ এলোমেলো হলে ছাতার লোহার রড ভেঙে যেতে পারে। কোনো কারণে সেলাই খুলে গেলে বা রড ভেঙে গেলে সঙ্গে সঙ্গে মেরামত করে নিন।

কোথায় পাবেন কেমন দাম

বসুন্ধরা সিটি শপিং মল, নিউ মার্কেট, গুলিস্তান, গাউছিয়া, মৌচাক, যমুনা ফিউচার পার্ক, সুবাস্তু আর্কেড শপিং মল, গুলশান ডিসিসি মার্কেট, ইস্টার্ন প্লাজাসহ ঢাকার ছোট-বড় সব মার্কেটেই ছাতা কিনতে পাওয়া যায়। দেশি ও বিদেশি বিভিন্ন ব্র্যান্ডের ছাতা পাবেন। ছোটদের বাহারি ডিজাইনের ছাতার দাম পড়বে ৩০০-৭৫০ টাকা, মেয়েদের বিভিন্ন ফ্যাশনেবল ছাতা পাওয়া যাবে ৩৫০-৯০০ টাকার মধ্যে। একরঙা একটু মজবুত ও টেকসই ছাতা পাওয়া যাবে ৪০০-১২০০ টাকার মধ্যে। ভাঁজ করা ছাতার দাম ৩০০ থেকে ৮০০ টাকা।