kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৭ ফাল্গুন ১৪২৭। ২ মার্চ ২০২১। ১৭ রজব ১৪৪২

শীতের কার্ডিগান-কটি

জ্যাকেটের মতো সামনের দিক খোলা থাকে। ফলে সহজেই পরে নেওয়া যায়। শীত বেশি অনুভূত হলে বোতাম লাগিয়ে নেওয়া যায়। এবার শীতে নতুন ডিজাইনের কার্ডিগান-কটি এনেছে ফ্যাশন হাউসগুলো। জানাচ্ছেন আতিফ আতাউর

১৮ জানুয়ারি, ২০২১ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



শীতের কার্ডিগান-কটি

মডেল : কর্নিয়া ও নিরব পোশাক : বিশ্বরঙ সাজ : রেড বিউটি স্যালন ছবি : কাকলী প্রধান

আগে বিয়ে কিংবা অনুষ্ঠানেই কটি পরার চল ছিল বেশি। পাঞ্জাবি, শার্ট, কামিজের সঙ্গে ছেলে-মেয়ে উভয়েই কটি পরত। কটির প্রতি ফ্যাশনপ্রেমীদের আগ্রহের কারণে দিন দিন এর পরিসর বেড়েছে। কটির মতো দেখতে রংবেরঙের জ্যাকেট, কার্ডিগান নিয়ে এসেছে ফ্যাশন হাউসগুলো। শুধু বিয়ে কিংবা অনুষ্ঠান নয়; অফিস, পার্টি, আড্ডা, বেড়ানোসহ প্রতিদিনের প্রয়োজনে কটি পরছে তরুণ-তরুণীরা। বিশ্বরঙের স্বত্বাধিকারী ও ডিজাইনার বিপ্লব সাহা বললেন, ‘শুরুর দিকে কটি ছিল শুধু ছেলেদের পোশাক। পাঞ্জাবি অথবা শার্টের সঙ্গে পরা হতো। এরপর ডিজাইনাররা মেয়েদের জন্যও ফ্যাশনেবল কটি নিয়ে আসেন। দেখতে স্টাইলিশ হওয়ায় এবং নতুন লুকের জন্য মেয়েরাও পছন্দ করে বিশেষ ডিজাইনারের কটিগুলো। এরপর প্রতিবছরই শীত উপলক্ষে ছেলে-মেয়ে উভয়ের জন্যই নতুন নতুন কটির ডিজাইন করছি আমরা। শুরুর দিকের কটি ছিল কোমর পর্যন্ত দৈর্ঘ্যের। এখন হাঁটু পর্যন্ত লম্বা কটিও পাওয়া যাচ্ছে। আবার শাড়ির সঙ্গে পরার জন্য ম্যাচিং কটি আনছেন ডিজাইনাররা।’

শীত তো বটেই, কটি পরা যায় অন্য সব ঋতুতেও। শীতের কটির ডিজাইনে ভারী কাপড়কেই প্রাধান্য দিয়েছেন ডিজাইনাররা। ছেলে-মেয়েদের কটির জন্য উলেন, ডেনিম, জিন্স, কটন, সিল্ক, লিনেন, নেট, জর্জেট, শিফন, শাল ও ভিসকস। হালকা শীতসহ অন্য সময় যাতে পরা যায় এমন কটিও মিলবে শোরুমে। জেন্টল পার্কের স্বত্বাধিকারী ও ডিজাইনার শাহাদত্ চৌধুরী বাবু বলেন, ‘নিত্যদিন পরার জন্য তরুণ-তরুণীদের হালকা ডিজাইনের কটি ও কার্ডিগান বেশি পছন্দ। এ ছাড়া পার্টি অথবা বিয়েতে পরার জন্য রয়েছে ভারী কাজের কটি-কার্ডিগান। কটিজাতীয় পোশাকের সুবিধা হচ্ছে—এগুলো ফরমাল, ক্যাজুয়াল, পাঞ্জাবি, শার্ট, শাড়ি, কামিজ অথবা ওয়েস্টার্ন পোশাকের সঙ্গে সহজেই মানিয়ে যায়।’

কিছুদিন আগেও এক রঙের কটির চল ছিল সবচেয়ে বেশি। এখন এর পাশাপাশি চলছে বিভিন্ন রং আর নকশার কটি। কটির কাপড় ও কাটছাঁটেও থাকছে বৈচিত্র্য। কডি ও কার্ডিগানের কাট ও নকশার সঙ্গে সঙ্গে পরিবর্তন আনা হয়েছে ডিজাইনেও। লং কামিজ প্যাটার্নে সালোয়ার-কামিজের মতো দেখতে কটি এনেছে বিভিন্ন হাউস। এ ছাড়া থাকছে শর্ট সালোয়ার-কামিজ টাইপ কটি। ডিজাইনে ভিন্নতা, কাটছাঁটে ভোল বদলে এসব কটি-কার্ডিগানে নতুনত্বের ছাপ রেখেছেন ফ্যাশন হাউসের ডিজাইনাররা। এক লেয়ারের কটির পাশাপাশি একাধিক লেয়ার বা স্তরের কটিও পাওয়া যাচ্ছে ফ্যাশন হাউসগুলোতে। টপ, কামিজ, ওয়েস্টার্ন পোশাকের পাশাপাশি এসব কটি পরা যাবে শাড়ির সঙ্গেও।

এবারকার শীতের কটি-কার্ডিগানের সামনের দুই পাশে নকশার প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে। ডেনিম ও জিন্সের কটির হাতার ওপরে এমব্রয়ডারির মাধ্যমে নকশা ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। আর উলেন কার্ডিগানের পেছনের অংশে থাকছে নকশার প্রাধান্য। কোনোটিতে আলাদা ফিতা যোগ করে দেওয়া হয়েছে ভিন্নমাত্রা। কটির ফিতায়ও থাকছে বৈচিত্র্যময় নকশা। বোতামের পাশাপাশি ফিতার ব্যবহারও কটিগুলোতে বৈচিত্র্য এনেছে। চাইলেই যেমন বেঁধে রাখা যায়, তেমনি না বেঁধেও দুই পাশে ঝুলিয়ে রাখা যায়। সামনে কিংবা কোমরের দুই পাশে জিকজ্যাক স্টাইলে ফিতা বেঁধে পরার মতো কটিগুলোও বেশ স্টাইলিশ।

ফ্লোরাল মোটিফের হালকা ও গাঢ় রঙের বডি ফিটেড হাইনেক ডিজাইনের কটি পাওয়া যাবে ফ্যাশন হাউসগুলোতে। ছেলেদের কটির গলায় ও বাটন লাইনের দুই পাশে মেশিন এমব্রয়ডারির মাধ্যমে নকশা করা। শর্ট, লং, সেমি লং—এই তিন ধরনের কটির চল এখন বাজারে। কটির পাশাপাশি রংবেরঙের কার্ডিগানের চলতি ধারাও এই শীতে বেশ প্রিয় ফ্যাশনসচেতন তরুণ-তরুণীদের কাছে

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা