kalerkantho

মঙ্গলবার । ১২ মাঘ ১৪২৭। ২৬ জানুয়ারি ২০২১। ১২ জমাদিউস সানি ১৪৪২

হালকা শীতের পোশাক

দুপুরে গরম, বিকেলে রোদ নরম। সন্ধ্যা ঘনাতেই হিমেল হওয়া। এ সময় এমন পোশাক বেছে নিন, যা হালকা গরম কিংবা শীত দুটিতেই দেবে আরাম। ডিজাইনারদের সঙ্গে কথা বলে এবার শীত পোশাকে ছেলেদের আয়োজন জানাচ্ছেন আতিফ আতাউর

৩০ নভেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে




হালকা শীতের পোশাক

মডেল : ইমন , পোশাক : জেন্টল পার্ক , ছবি : মোহাম্মদ আসাদ

শীত কম বলে এখনো ভারী শীত পোশাকে ঝোঁক নেই ক্রেতাদের। হালকা শীতে পরা যায় এমন পোশাকই বেশি কিনছেন ক্রেতারা। শীত উপলক্ষে নতুন পোশাক নিয়ে এসেছে ফ্যাশন হাউস জেন্টল পার্ক। এ বছর শীত পোশাকে দেওয়া হয়েছে উজ্জ্বল রঙের প্রাধান্য। হাউসটির স্বত্বাধিকারী ডিজাইনার শাহাদত্ হোসেন চৌধুরী বলেন, ‘শীত এখনো সেভাবে পড়তে শুরু করেনি। তাই এখন হালকা শীত উপযোগী পোশাক বেশি আনা হয়েছে। ধীরে ধীরে ভারী শীতের কাপড় আসবে। তবে এখনই যাঁরা ভারী শীতের কাপড় কিনতে চান তাঁরা যাতে নিরাশ না হন সে জন্য কিছু ভারী কাপড়ও রাখা হচ্ছে।’

শাহাদাত্ হোসেন চৌধুরী জানান, পরিবেশ ও প্রয়োজনীয়তা বুঝেই পোশাক কেনেন ক্রেতারা। হালকা শীতে যেমন ভারী শীতের পোশাক বেমানান, তেমনি ভারী শীতে হালকা পোশাক পরাও ঠিক নয়। সব সময় শরীরের জন্য আরামদায়ক পোশাক বেছে নেওয়া জরুরি। এখন আবহাওয়ার ধরন একটু বিচিত্র। দিনের শুরু আর শেষে শীতের আবেশটা বেশ বোঝা যায়। দুপুরের কিছু আগে-পরে গরম লাগে। যাঁরা শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত অফিসে বসে কাজ করেন তাঁদের ক্ষেত্রে ঝামেলা কম। হালকা শীতের পোশাক পরলেই দিনটা আরামে চলে যায়। কিন্তু যাঁরা বাইরে কাজ করেন তাঁদের এই সময় পোশাক বাছাইয়ে বুদ্ধির পরিচয় দিতে হবে। এমন পোশাক বেছে নিতে হবে যেটাতে সকাল-সন্ধ্যায় শীতে এবং দুপুরের একটু রোদেও আরামদায়ক হয়।

এমন আবহাওয়ায় উলেন শার্ট, ফুল স্লিভ

টি-শার্ট, সোয়েটার, জিন্সের শার্ট আরামদায়ক বলে জানালেন ইজি ফ্যাশনের স্বত্বাধিকারী ডিজাইনার তৌহিদ চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘এবার আমাদের করা শীত পোশাকের কাপড়গুলো আরামদায়ক। হালকা শীতে যে কেউ পরতে পারেন এমনভাবেই বানানো। তা ছাড়া সচরাচর আমাদের দেশে শীত খুব একটা জেঁকে বসে না। তাই সেভাবেই তৈরি এই পোশাকগুলো। এ ছাড়া ব্লেজারও পরা যাবে এ সময়। সকালে গায়ে চাপিয়ে বের হয়ে দুপুরে গরম লাগলে খুলে রাখা যাবে। আবার বিকেলে অফিস থেকে ফেরার পথে গায়ে চাপিয়ে নিলেই হয়।’

প্রায় সব ফ্যাশন হাউসেই পাওয়া যাচ্ছে শীতের নতুন পোশাক। শীত পোশাকের ডিজাইনে শুধু আরাম নয়, ফ্যাশনের কথাও মাথায় রাখা হয়েছে। কলারের সঙ্গে সংযুক্ত হুডি এনেছে ইজি ফ্যাশনসহ বেশ কয়েকটি ফ্যাশন হাউস। তৌহিদ চৌধুরী বলেন, ‘তরুণরা কয়েক বছর ধরেই স্মার্টফোনে অভ্যস্ত। দিন দিন এই প্রবণতা বাড়ছে। চলতি পথে অনেকেই গান শুনতে পছন্দ করেন। এ সময় আলাদা হেডফোন নিয়ে তাঁদের যেন অসুবিধেয় পড়তে না হয় সে জন্যই হেডফোন সংযুক্ত হুডি এনেছে ইজি। এমনভাবে ডিজাইন করা হয়েছে যে কেউ চাইলে হুডি অংশটা আলাদা রেখেও ব্যবহার করতে পারবেন।’

তরুণদের শীত পোশাকে বৈচিত্র্য আনতে অভিনব ডিজাইনের হুডি ও জ্যাকেট এনেছে বেশ কিছু ফ্যাশন হাউস। এগুলোয় কোনো উল্টোসিধে নেই। দুই পাশই ব্যবহার করা যায়। এতে একটা হুডি অথবা জ্যাকেটেই দুই নকশার রূপ পাওয়া যাবে। ভিন্নতা দেখাতে এসব পোশাকের উল্টোসিধে দুই পাশে দুই রকম ডিজাইন ও নকশা রাখা হয়েছে।

এখন এমন পোশাক বেছে নিন, যাতে বেশি শীত বা বেশি গরম অনুভূত না হয়। প্রায় সব ধরনের পোশাকই পাওয়া যাবে ফ্যাশন হাউসগুলোতে। প্রয়োজন ও ব্যবহারের ধরন বুঝে পছন্দের পোশাক বেছে নিন। ব্র্যান্ডের শীত পোশাকের দাম একটু বেশি। তবে চাইলে কমের মধ্যেও কিনতে পারবেন। সে জন্য যেতে হবে গুলিস্তান, বঙ্গবাজার, নিউ মার্কেট, গাউছিয়ার দোকানগুলোতে।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা