kalerkantho

মঙ্গলবার । ৪ কার্তিক ১৪২৭। ২০ অক্টোবর ২০২০। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

জলখাবারে মন ভরে

ঢাকার একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কাজ করলেও অসিত কর্মকারের অন্যতম শখ রান্না করা। শখ থেকেই কুকিং, বেকিং, ফুড প্রসেসিং ও প্রিজারভেশনের উপর লেভেল ১ ও ২ শেষ করেছেন বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ড থেকে। সেখানে তিনি একজন পরীক্ষকও। পূজায় অতিথি আপ্যায়নে জলখাবারের রেসিপি দিয়েছেন তিনি।

১৯ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



জলখাবারে মন ভরে

ভাপা সন্দেশ

উপকরণ

ছানা ১ কাপ, গুঁড়া দুধ ২ টেবিল চামচ, এলাচি গুঁড়া ১ চিমটি, চিনি ১ কাপ, পেস্তা ও কাজু কুচি সাজানোর জন্য, কলাপাতা ১টি।

যেভাবে তৈরি করবেন

১. ছানায় চিনি দিয়ে ভালো করে মেখে নিন। এলাচি গুঁড়া দিয়ে আরেকবার মাখুন।

২. এর সঙ্গে গুঁড়া দুধ ও ছানা ভালো করে মিশিয়ে কলাপাতায় মুড়ে স্টিমারে স্টিম করে নিন।

৩. ঠাণ্ডা হলে বাদাম দিয়ে সাজিয়ে ফ্রিজে রাখুন। এবার পরিবেশন করুন হিমশীতল সন্দেশ।

 

নারকেল নাড়ু

 

উপকরণ

নারকেল কোরা ২ কাপ, গুড় ১ কাপ, এলাচি গুঁড়া আধা চা চামচ, নারকেল গুঁড়া ১ কাপ, ঘি ১ টেবিল চামচ।

যেভাবে তৈরি করবেন

১. একটা কড়াইয়ে ঘি গরম করুন। এতে নারকেল কোরা দিয়ে এক মিনিট ভাজুন। এবার গুড় দিয়ে ১৫ মিনিটের মতো জ্বাল দিন।

২. একেবারে আঠালো হয়ে এলে চুলা থেকে নামিয়ে এলাচি গুঁড়া মিশিয়ে হালকা ঠাণ্ডা করে নিন।

৩. এবার হাতে সামান্য ঘি মেখে অল্প মিশ্রণ নিয়ে লাড্ডুর আকার দিয়ে নারকেলের গুঁড়ায় গড়িয়ে পছন্দমতো সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

 

পদ্ম-লুচির পায়েস

 

উপকরণ

লুচির জন্য—ময়দা ৩ কাপ, ঘি ২ চা চামচ, চিনি ১ চা চামচ, তরল দুধ ২ কাপ, ঘি ১ কাপ, তেল ২ কাপ। পুরের জন্য—নারকেল কোরা ২ কাপ, খোয়া ক্ষীর ২৫০ গ্রাম, আধাভাঙা কাজু ও পেস্তা বাদাম ১ কাপ, কিশমিশ কুচি আধা কাপ। পায়েসের জন্য—তরল দুধ ২ লিটার, নলেন গুড় ২৫০ গ্রাম।

যেভাবে তৈরি করবেন

১. একটি বাটিতে পুরের উপকরণ ভালোভাবে মেখে আলাদা করে রাখুন।

২. একটি বড় সাইজের কড়াইয়ে তরল দুধ জ্বাল দিন। কিছুটা ঘন হয়ে এলে এক কাপ পরিমাণ দুধ আলাদা পাত্রে তুলে নলেন গুড় ভালো করে মিশিয়ে নিন। এই মিশ্রণ ফুটন্ত তরল দুধের সঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে নিন। পায়েসের মতো ঘন হয়ে এলে চুলা বন্ধ করে ঢেকে দিন।

৩. একটি বড় থালায় ময়দা, চিনি, সামান্য ঘি ও পরিমাণমতো তরল দুধ দিয়ে ময়ান করে রাখুন। ময়ান থেকে দুটি লেচি কাটুন।

৪. একটি লেচিতে পুর বিছিয়ে ওপর থেকে আরেকটি লেচি দিয়ে ঢেকে চারপাশ মুড়ে পদ্মফুলের ভাঁজ দিয়ে ঘি ও তেলের মিশ্রণে সোনালি রং করে ভেজে দুধের পায়েসে ছেড়ে ১০ মিনিট ঢিমে আঁচে রাখুন। এরপর নামিয়ে ঠাণ্ডা করে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

 

তিলের নাড়ু

উপকরণ

সাদা তিল ২৫০ গ্রাম, পাটালি গুড় ১২০ গ্রাম, ঘি সামান্য।

যেভাবে তৈরি করবেন

১. সাদা তিল শুকনো খোলায় ভেজে নিন।

২. কড়াইয়ে পাটালি গুড় সামান্য পানিসহ ভালো করে পাক দিতে থাকুন।

৩. বারবার নাড়ার পর যখন গুড় খুন্তি থেকে একটা সুতার মতো করে পড়বে, ঠিক সেই সময় ভেজে রাখা তিলের মধ্যে ভালোভাবে মিশিয়ে একটি থালায় নামিয়ে নিন।

৪. হাতে সামান্য ঘি মেখে অল্প করে গুড় ও তিলের মিশ্রণ নিয়ে গোল আকারে গড়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন ঐতিহ্যবাহী তিলের নাড়ু।

 

দই-চিড়ার শরবত

উপকরণ

টক দই সিকি কাপ, চিড়া সিকি কাপ, গুড় আধা কাপ, নারকেলের পানি ২ কাপ, লেবুর রস আধা চা চামচ।

যেভাবে তৈরি করবেন

১. সব উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে ব্লেন্ড করুন।

২. পছন্দমতো তরল বা ঘন করে গ্লাসে ঢেলে সাজিয়ে পরিবেশন করুন দই-চিড়ার শরবত।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা