kalerkantho

বুধবার । ৫ কার্তিক ১৪২৭। ২১ অক্টোবর ২০২০। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

পূজার ফ্যাশন, ফ্যাশনের পূজা

পূজা উত্সবে মেতে উঠতে যেমন চলতি ফ্যাশন ধারণ করা চাই, তেমনি করোনা সংকটের মধ্যে পূজার কেনাকাটা, সাজসজ্জা ও ঘোরাঘুরিতে স্বাস্থ্যবিধির কথা মাথায় রাখতে হবে। হাল ফ্যাশনের চলতি ধারার খোঁজ নিয়েছেন আতিফ আতাউর

১৯ অক্টোবর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



পূজার ফ্যাশন, ফ্যাশনের পূজা

প্রতিবছর শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে নতুন ডিজাইনের বৈচিত্র্যময় পোশাক নিয়ে আসে দেশি ফ্যাশন হাউসগুলো। বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারির মধ্যে এবারের চিত্র ভিন্ন হলেও বাদ যায়নি তাদের পূজার আয়োজন। পূজার ট্রেন্ডে মেয়েদের শাড়ি ও ছেলেদের পাঞ্জাবির জয়জয়কার থাকলেও শার্ট, টি-শার্ট, পলো, কুর্তি, ফতুয়া, ধুতি, টপস, থ্রিপিস, কামিজসহ প্রায় সব ধরনের পোশাকেই থাকছে নতুনত্বের ছোঁয়া। পোশাকে উত্সবের আমেজ আনতে কাটিং, প্যাটার্ন ও ডিজাইনে ভিন্নতা আনার পাশাপাশি উজ্জ্বল রং প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে। মসলিন, সিল্ক, হাফ সিল্ক, কটন, অ্যান্ডি কটন, লিনেন ও সুতি কাপড়ের পোশাকে একেক ফ্যাশন হাউস একেক থিম নিয়ে কাজ করেছে। উত্সবের পোশাক বলে পোশাকের থিমে প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে শারদীয় দুর্গাপূজার বিভিন্ন দিক। বরাবরের মতোই পূজার পোশাকে উজ্জ্বল রং আর দেবী দুর্গার থিমের ডিজাইনের পোশাক রয়েছে ট্রেন্ডে। পূজার চিরায়ত লাল-সাদা শাড়ির আবেদনও পিছিয়ে নেই। এবার পূজার পোশাকে আরামের বিষয়টিও প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে বলে জানালেন ফ্যাশন হাউসগুলোর ডিজাইনাররা।

তবে করোনাকালে স্বাস্থ্যবিধির কথা মাথায় রেখে পূজার পোশাক নির্বাচন করা উচিত। কেননা এখন পোশাক বারবার ধোয়ার বিষয়টি মাথায় রাখতে হবে। পাশাপাশি আরামের কথা মাথায় রেখে সুতি কাপড়ের পোশাক বেছে নিন। নান্দনিক পোশাক ও সুন্দর সাজের সঙ্গে পারস্পরিক দূরত্ব যতটা সম্ভব বজায় রাখার চেষ্টা করুন এখন। ভিড় এড়াতে একটু আগেই সেরে ফেলতে পারেন প্রয়োজনীয় কেনাকাটা। বসুন্ধরা সিটি শপিং মল, যমুনা ফিউচার পার্ক, নিউ মার্কেট, বনানী, গুলশান, মিরপুর, উত্তরার শপিং মলগুলোতে পাওয়া যাবে পূজার পোশাক ও প্রয়োজনীয় পণ্য। সরাসরি গিয়ে কিনতে পারবেন। এ ছাড়া প্রায় সব ব্র্যান্ডই দিচ্ছে অনলাইনে পণ্য কেনার সুযোগ। সব হাউসই ক্রেতাদের কেনাকাটার সুবিধায় ছাড়ের সুবিধা দিচ্ছে। করোনার এই সংকটে ক্রেতাদের কেনাকাটায় গ্রামীণফোনও স্টার কাস্টমারদের জন্য দিচ্ছে বিশেষ ছাড়। প্রতিষ্ঠানটির স্টার গ্রাহকরা তাঁদের নির্ধারিত আউটলেটগুলোয় কেনাকাটায় পাবেন ২২ শতাংশ পর্যন্ত মূল্যছাড়। লোটোর মার্কেটিং অ্যান্ড ব্রান্ড কমিউনিকেশন বিভাগের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ কামরুল হাসান বলেন, ‘যারা জিপি স্টার গ্রাহক তারা এখান থেকে কেনাকাটায় পাচ্ছেন ২০ শতাংশ ছাড়।’ অরিয়ন ফুটওয়্যারের বিজনেস ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার মোহাম্মদ মিনহাজ উদ্দীন বলেন, ‘আমাদের শোরুমগুলোতে কেনাকাটায় স্টার গ্রাহকরা ১২ শতাংশ ছাড় পাবেন। আর অনলাইনের কেনাকাটায় পাবেন ১৫ শতাংশ ছাড়।’ এছাড়া অনলাইন শপ আদিডটকম থেকে সব ধরনের কেনাকাটার ওপর পাবেন ১০ শতাংশ মূল্যছাড়। ফ্যাশন হাউস বোলিং ও ভাইব্র্যান্ড থেকে কেনাকাটায় পাবেন ১৫ শতাংশ মূল্যছাড়। কেজেড থেকে কেনাকাটায় পাবেন ১০ শতাংশ ছাড়। জর্দানো থেকে ২২ শতাংশ, মিরর থেকে কেনাকাটার ওপর পাবেন ১২ শতাংশ আর ফ্যাশন হাউস মেনজ ক্লাব থেকে ছেলেদের ও শিশুদের কেনাকাটায় পাবেন ২০ শতাংশ মূল্যছাড়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা