kalerkantho

মঙ্গলবার । ১১ কার্তিক ১৪২৭। ২৭ অক্টোবর ২০২০। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

চোখে কৃত্রিম পাপড়ি

তরুণীদের চোখের সাজে কৃত্রিম পাপড়ির [আইল্যাশ] ব্যবহার দিন দিন বাড়ছে। চোখে আকর্ষণীয় লুক দিতে কৃত্রিম পাপড়ি বেছে নেয় তারা। বিষয়টি সম্পর্কে জানালেন রেড বিউটি স্যালনের রূপ বিশেষজ্ঞ আফরোজা পারভীন। লিখেছেন মোনালিসা মেহরিন

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চোখে কৃত্রিম পাপড়ি

চোখের পাপড়ি শুধু সৌন্দর্যবর্ধনই করে না, ধুলা-দূষণ ও বাতাস থেকে আমাদের চোখের সুরক্ষায় ঢাল হিসেবেও কাজ করে। অন্যের সঙ্গে যোগাযোগ ও মানুষের মুখভঙ্গি বুঝতেও চোখের পাপড়ির প্রভাব রয়েছে। জার্নাল দ্য রয়াল সোসাইটি ইন্টারফেস সাময়িকীতে প্রকাশিত এক গবেষণা প্রতিবেদন মতে, বাতাসে মিশে থাকা ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র কণা, সংক্রামক জীবাণু, অণুজীব ছাঁকার কাজ করে চোখের পাপড়ি। এরপর ছাঁকনকৃত বাতাস চোখের ভেতর প্রবাহিত হতে সাহায্য করে। এ ছাড়া অক্ষিগোলকে মিউকাস, তেল ও পানির সংমিশ্রণে যে তরল প্রলেপ থাকে সেটা শুকিয়ে যাওয়া থেকে রক্ষা করে চোখের পাপড়ি। ফলে চোখ শুকিয়ে যাওয়া থেকে রক্ষা পায়।

এ তো গেল চোখে থাকা আসল পাপড়ির কাজের কথা। কিন্তু এই পাপড়িই আবার নারীর সৌন্দর্য প্রকাশের অন্যতম নিয়ামক। কালো হরিণ চোখের স্বপ্ন দেখে না এমন নারী খুঁজে পাওয়া ভার। কিন্তু সবাই তো আর হরিণ কালো চোখের অধিকারী হয় না। মূলত তাদের জন্যই কৃত্রিম পাপড়ি বা আইল্যাশ। যে নারীর চোখের পাপড়ি যত ঘন আর বেশি তার চোখ তত বেশি কালো আর আকর্ষণীয় লাগে। এ জন্যই চোখ মায়াময় ও আবেদনময়ী করে তুলতে কৃত্রিম পাপড়ি বা আইল্যাশের ব্যবহার করে তরুণীরা।

চোখে কৃত্রিম পাপড়ি পরানো বেশ দুরূহ একটি কাজ। আবার চোখ খুবই সংবেদনশীল ও স্পর্শকাতর একটি প্রত্যঙ্গ। এ জন্য কৃত্রিম চোখের পাপড়ি ব্যবহারের সময় সচেতন থাকা খুব জরুরি। সাধারণত পার্টি, বিয়েসহ জাঁকজমকপূর্ণ কোনো অনুষ্ঠানে যেতে কৃত্রিম চোখের পাপড়ি বেশি ব্যবহার করে তরুণীরা। এসব অনুষ্ঠানে হৈ-হুল্লোড় আর তুমুল আড্ডাবাজি হয়ে থাকে। পার্টিতে গানের তালে নাচেও মেতে ওঠে কেউ কেউ। তবে মনে রাখবেন, চোখে আইল্যাশ পরলে, সে অনুষ্ঠান হোক বা এমনি ঘুরতে যাওয়া, যে কোনো পরিস্থিতিতেই সতর্ক থাকা উচিত।

চোখের কৃত্রিম পাপড়ি কেনার সময় সঠিক মাপ বুঝে কিনুন। ভালো ব্র্যান্ড এবং গুড রিভিউ দেখে কিনুন। কারণ অনেক আইল্যাশে ক্ষতিকর রাসায়নিক মেশানো থাকে। এটা চোখের জন্য ক্ষতিকর। ব্যবহারের সময় মোড়কের নির্দেশনা মেনে পরিমাণমতো আঠা ব্যবহার করুন। আঠা কম হলে যেমন চোখ থেকে খুলে আসতে পারে তেমনি বেশি হলে চোখের ক্ষতি করতে পারে। সোজা আয়নার দিকে তাকিয়ে পাপড়ি পরবেন না। আয়নায় নিচের দিকে তাকিয়ে পরুন। এটাই কৃত্রিম পাপড়ি পরার নিয়ম। ব্যবহার শেষে নরম তুলির সাহায্যে আইল্যাশ ভালো করে পরিষ্কার করে সংরক্ষণ করুন। আইল্যাশের কারণে চোখে কোনো অসুবিধা অনুভব করলে অবশ্যই একজন চক্ষু বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।

মন্তব্য