kalerkantho

মঙ্গলবার । ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ । ২ জুন ২০২০। ৯ শাওয়াল ১৪৪১

বৈশাখী পাতে ঘরের নাশতা

এই বৈশাখ ঘরে কাটানোর প্রস্তুতি নিচ্ছেন সবাই। ঘরেই তাই তৈরি করুন সুজানা সুমির এসব নাশতা

৬ এপ্রিল, ২০২০ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



বৈশাখী পাতে ঘরের নাশতা

চিঁড়ার নাড়ু

উপকরণ

ভাজা চিঁড়া দুই কাপ, গুড় আধা কাপ, জিরা টেলে গুঁড়া আধা চা চামচ, ঘি এক টেবিল চামচ।

 

যেভাবে তৈরি করবেন

১.      চিঁড়া হালকা করে টেলে ব্লেন্ডারে বা পাটায় বেটে গুঁড়া করে নিন।

২.      চুলায় গুড়, ঘি ও জিরা গুঁড়া দিয়ে নেড়ে তাতে চিঁড়ার গুঁড়া দিয়ে নেড়ে নেড়ে আঠালো হয়ে এলে নামিয়ে নিতে হবে।

৩.     গরম থাকতেই হাতে চেপে নাড়ু আকারে গড়িয়ে নিন।

 

দুধের সন্দেশ

উপকরণ

তরল দুধ এক কাপ, গুঁড়া দুধ দুই কাপ, ঘি এক টেবিল চামচ, চিনি এক কাপ, কর্নফ্লাওয়ার এক টেবিল চামচ। 

 

যেভাবে তৈরি করবেন

১.      চুলায় গুঁড়া দুধ, তরল দুধ, ঘি, চিনি ও কর্নফ্লাওয়ার দিয়ে অনবরত নাড়তে হবে।

২.      নাড়তে নাড়তে যখন একেবারে ঘন আঠালো হয়ে আসবে তখন প্লেটে ঢেলে ফ্রিজে ১০ মিনিট রেখে দিন। তারপর পছন্দমতো আকারে তৈরি করুন সন্দেশ।

৩.     সব সন্দেশ বানানো হয়ে গেলে আধা ঘণ্টা ফ্রিজে রেখে তারপর পরিবেশন করুন।

 

নারকেল ও মুড়ির মোয়া

উপকরণ

মুড়ি ২ কাপ, নারকেল ২ কাপ, খেজুরের গুড় ১ কাপ, ঘি ১ চা চামচ, জিরা টেলে গুঁড়া আধা চা চামচ।

 

যেভাবে তৈরি করবেন 

১.      মাঝারি আঁচে প্যানে গুড়, নারকেল দিয়ে ৫ মিনিট নাড়াচাড়া করার পর মুড়ি ছাড়া বাকি সব উপকরণ দিয়ে আরো ২ মিনিট নাড়তে হবে। 

২.      গুড় উথলে ফেনার মতো হয়ে এলে মুড়ি অল্প অল্প করে মেশাতে হবে আর নাড়তে হবে। 

৩.     দলা পাকিয়ে এলে দ্রুত চুলা থেকে নামিয়ে সাবধানে গরম থাকা অবস্থায় দুই হাতে অল্প অল্প করে নিয়ে গোল মোয়া বানিয়ে নিতে হবে।  

৪.     ঠাণ্ডা হয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। এই মোয়া বায়ুরোধী বাক্সে ভরে এক মাস পর্যন্ত সংরক্ষণ করা যাবে স্বাভাবিক তাপমাত্রায়।

 

নারকেল বাদামের নাড়ু

উপকরণ

নারকেল ১ কাপ, বাদাম ভাজা ১ কাপ, খেজুরের গুড় ১ কাপ, ঘি ১ চা চামচ, গোলমরিচের গুঁড়া খুব সামান্য (অপশনাল)।

 

যেভাবে তৈরি করবেন

১.      বাদাম টেলে খোসা ছাড়িয়ে ব্লেন্ডারে গুঁড়া করে নিতে হবে।

২.      মাঝারি আঁচে প্যানে গুড়, নারকেল দিয়ে ৫ মিনিট নাড়াচাড়া করার পর নারকেল ছাড়া বাকি উপকরণ দিয়ে একত্রে আরো ২ মিনিট নাড়তে হবে।

৩.     গুড় উতলে ফেনার মতো হয়ে এলে বাদামের গুঁড়া অল্প অল্প করে মেশাতে হবে আর নাড়তে হবে।

৩.     ২-৩ মিনিট পর দলা পাকিয়ে এলে দ্রুত চুলা থেকে নামিয়ে সাবধানে গরম থাকা অবস্থায় দুই হাতে অল্প অল্প করে নিয়ে গোল শেপে নাড়ু বানিয়ে নিতে হবে।

৪.     ঠাণ্ডা হয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। ভীষণ মজার এই নাড়ু শক্তিও জোগাবে।

 

বাদাম গুড়ের মুড়কি

উপকরণ

ভাজা চিনাবাদাম দুই কাপ, গুড় এক কাপ, জিরা টেলে গুঁড়া আধা চা চামচ, ঘি এক টেবিল চামচ।

 

যেভাবে তৈরি করবেন

১. চুলায় গুড় ও ঘি দিয়ে অনবরত নাড়তে হবে।

২. গুড়ে ফেনার মতো হয়ে এলে বাদাম ও বাকি উপকরণ দিয়ে অনবরত নাড়তে থাকুন। ঝরঝরে হয়ে বাদাম ও গুড় মিশে শক্ত হয়ে আসলে নামিয়ে নিন।

৩. ঠাণ্ডা হলে পরিবেশন করুন।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা