kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২১ নভেম্বর ২০১৯। ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬। ২৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪১     

রূপচর্চা

চুলের যত্নের ভুলগুলো

১৪ অক্টোবর, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



চুলের যত্নের ভুলগুলো

চুলের যত্ন নিতে গিয়ে কত কী-ই তো করছেন। এবার মিলিয়ে নিন যত্ন নিতে গিয়ে কোনো ভুল করছেন কি না। চুলের যত্নের ভুল ধরিয়ে দিয়েছেন বিন্দিয়া বিউটি কেয়ারের রূপ বিশেষজ্ঞ শারমিন কচি

শ্যাম্পু করার আগে চুল না আঁচড়ানো

এই ভুলটা প্রায় সবাই করে থাকেন। শ্যাম্পু করার আগে চুল আঁচড়ান না। মনে করেন, শ্যাম্পু তো করবই, তার আগে আবার চুলে চিরুনি চালানোর কী দরকার। মনে রাখতে হবে, সারা দিনের ধুলাবালি চুলে লেগে থাকে, সেই সঙ্গে থাকে জট। চুলে জট থাকা অবস্থায় শ্যাম্পু করার ফলে জট আরো বাড়ে। এতে চুল ঝরে পড়ার আশঙ্কা থাকে। তাই শ্যাম্পু করার আগে চুল ভালো করে আঁচড়ে নিন। এতে চুলের জট থাকে না, সহজেই শ্যাম্পু করা যায়।

 

ভেজা চুল আঁচড়ানো

এ কাজটাও অনেক নারী নিয়মিত করে থাকেন। আর যাঁদের অফিসে বা বাইরে যাওয়ার তাড়া থাকে, তাঁদের তো নিত্য ভেজা চুলেই চিরুনি চালাতে হয়। নারীরা নিজের ভুলে চুলের যে ক্ষতি করে তার মধ্যে ভেজা চুল আঁচড়ানো একটি। এটা চুলের যত্নের বড় এক ভুল। কারণ ভেজা অবস্থায় চুল নরম থাকে। ভেজা চুল আঁচড়ালে চুল খুব সহজে চিরুনিতে উঠে আসে। ভেজা চুল না আঁচড়ে বেশি প্রয়োজন হলে চুলের মধ্যে আঙুল দিয়ে ঠিক করে নিন। আর পুরোপুরি শুকালে চুল আঁচড়ান।

 

শ্যাম্পু করার পর কন্ডিশনার না দেওয়া

শ্যাম্পু তো আমরা হরহামেশাই করে থাকি; কিন্তু কন্ডিশনারের বেলায় যেন একটু উদাসীন। মনে রাখতে হবে, প্রতিদিন শ্যাম্পু করলে চুলের গোড়ার প্রাকৃতিক তেল চলে যায়। ফলে চুল রুক্ষ হয়ে যায়। আর শ্যাম্পুর কেমিক্যাল চুলকে যথেষ্ট ভঙ্গুর করে ফেলে। তাই শ্যাম্পুর পর অবশ্যই কন্ডিশনার লাগানো উচিত।

চিরুনি পরিষ্কার না করা

চুল আঁচড়ানোর সময় চুলের সব ময়লা, ধুলাবালি চিরুনিতে লেগে যায়। এই ময়লা চিরুনি দিয়ে চুল আঁচড়ালে চুলের গোড়ায় সেই ময়লা আবার পৌঁছে যায়। তাই প্রতি সপ্তাহে চিরুনি পরিষ্কার করুন। আর কয়েক মাস পর পর চিরুনি পরিবর্তন করুন। চিরুনি ভালোভাবে পরিষ্কারের জন্য ভিনেগার ব্যবহার করতে পারেন।

 

দীর্ঘক্ষণ মাথায় টাওয়েল বা গামছা পেঁচিয়ে রাখা

গোসলের পর চুলের পানি শুকিয়ে নিতে অনেকেই গামছা বা টাওয়েলে দীর্ঘ সময় চুল পেঁচিয়ে রাখেন। এটি চুলের জন্য বেশ ক্ষতিকর। অনেকক্ষণ ভেজা টাওয়েল বা গামছা পেঁচিয়ে রাখার কারণে চুলের গোড়া দুর্বল হয়ে যায়। ফলে চুল ঝরে পড়ে। এ জন্য বেশি সময় চুল গামছা বা টাওয়েলে পেঁচিয়ে রাখা থেকে বিরত থাকুন।

 

একই শ্যাম্পু ব্যবহার

এই কাজটি আমরা বেশির ভাগই করে থাকি। একটি শ্যাম্পু যদি চুলে মানিয়ে যায় তো সেটা থেকে যেন আর সরতেই চাই না। কিন্তু বারবার একই শ্যাম্পু ব্যবহার করা হলে তা চুলের জন্য ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। মাথার ত্বকের ফাঙ্গাস এই শ্যাম্পুতে অভ্যস্ত হয়ে যায়। ফলে সেই শ্যাম্পুতে আর আগের সমস্যাটি দূরীভূত হয় না। তাই দুই মাস পর পর শ্যাম্পু পরিবর্তন করা উচিত।

 

হেয়ার স্ট্রেইটনার ও হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার

ঝটপট চুল সাজাতে অনেকেই হেয়ার ড্রায়ার ও স্ট্রেইটনার ব্যবহার করেন। এগুলো ব্যবহার করা চুলের জন্য অনেক ক্ষতিকর। এগুলোর অতিরিক্ত তাপমাত্রা খুব সহজেই চুলকে নিষ্প্রাণ করে ফেলে। নিয়মিত ব্যবহারে চুল ভঙ্গুর হয়ে পড়ার আশঙ্কা তৈরি হয়।

মন্তব্য



সাতদিনের সেরা