kalerkantho

ইন্টেরিয়র

ঘর সাজবে, জায়গা বাঁচবে

অল্প জায়গায় বসার ব্যবস্থা করতে মোড়ার জুড়ি নেই। নান্দনিক নকশার মোড়া ও টুল ঘরের সাজে যোগ করবে বাড়তি মাত্রা। ঘর সাজে মোড়ার ব্যবহার নিয়ে বিস্তারিত জানিয়েছেন রেডিয়েন্ট ইনস্টিটিউট অব ডিজাইনের কর্ণধার গুলসান নাসরীন চৌধুরী। লিখেছেন নাঈম সিনহা

২৬ আগস্ট, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



ঘর সাজবে, জায়গা বাঁচবে

ছোট্ট ঘরে যেখানে দুটি সোফা বসাতে হিমশিম খেতে হবে, সেখানে অনায়াসে চার-পাঁচজন টুল বা মোড়ায় বসতে পারবে। শুধু স্থানসংকুলানের জন্যই টুল উপযোগী তা নয়, ঘর সাজে যে কোন থিমের সঙ্গেও সহজেই মানিয়ে যায়। মূলত ঘর সাজের থিমের সঙ্গে মিলিয়ে বেছে নিতে হবে মোড়া বা টুল। এখন বিভিন্ন উপকরণের ও নানা ডিজাইনের টুল ও মোড়া বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। আছে প্লাস্টিক, কাঠ, বেত, বাঁশ, পাট, নাইলন, রড আয়রন, চামড়ার তৈরি মোড়া।

ঘর যদি দেশীয় থিমে সাজানো হয়, সে ক্ষেত্রে কাঠ, বেত ও বাঁশের মোড়াই বেশি মানানসই। এখন বেতের মতো দেখতে প্লাস্টিকের মোড়াও বাজারে পাওয়া যায়, সেগুলোও ব্যবহার করতে পারেন। ঘরে যদি কাঠের আসবাব বেশি থাকে, সে ক্ষেত্রে কাঠ, বেত বা বাঁশের মোড়া বেছে নিতে পারেন। আবার বেশির ভাগ আসবাব যদি মেটাল বা গ্লাসের হয়, সে ক্ষেত্রে রেক্সিন বা চামড়ায় মোড়ানো টুল বেছে নিন। আর রং নির্বাচনে পর্দার রঙের সঙ্গে মিলিয়ে নিন। বিশেষ করে বসার ঘরে কাচের নিচু টেবিল হলে তার চারপাশে এ ধরনের টুল বেশি মানানসই।

ঘরের সাজের থিম পরিবর্তন করতে চাইলে সহজেই বদলে নেওয়া যায় মোড়াও। সে ক্ষেত্রে টুল বা মোড়ার কুশন বদলে ফেলতে পারেন। কোন ঘরে কেমন মোড়া মানাবে এ নিয়েও অনেকে চিন্তায় থাকেন। বসার ঘরে যদি সোফা থাকে তাহলে তার সঙ্গে মিলিয়ে মোড়া বেছে নিন। রং, ডিজাইন ও ম্যাটেরিয়াল এ ক্ষেত্রে প্রাধান্য পাবে। আর সোফা না থাকলে টেবিলের উচ্চতার সঙ্গে মিলিয়ে মাঝারি সাইজের মোড়া বেছে নিন। ঘরের থিমের সঙ্গে মানানসই কাঠ, বেত, চামড়া, স্টেইনলেস স্টিল বা ফোমের যেকোনো টুল রাখতে পারেন। এ ক্ষেত্রে বসার আরামের জন্য ফোম বা কাঠের ফ্রেমে চামড়া কিংবা রেক্সিন দিয়ে বাঁধাই করা মোড়া বেছে নিতে পারেন। ঘরে জায়গা কম থাকলে চারকোনা টুল বেছে নেওয়াই ভালো। এতে এক কোনে সাজিয়ে রাখতে সুবিধা হবে।

ভেতরের ঘর বা শোবার ঘরে সাধারণত খাটের পাশে একটি-দুটি মোড়া থাকতে পারে, বিশেষ করে জানালার পাশে। মাঝারি বা বড় যে কোন আকারের মোড়া রাখতে পারেন এ ঘরে। খাটের সঙ্গে রং মিলিয়ে রাখুন মোড়া বা টুল।

বাচ্চাদের ঘরে ম্যাজিক টুল রাখতে পারেন। প্লাস্টিকের ম্যাজিক টুল বসার পরে ভাঁজ করে রাখতে পারবেন। এটি সোফা বা চেয়ারের মতো কাজ শেষে সরিয়ে রাখতে পারবেন। বাচ্চার ছোটাছুটিতে সমস্যা হবে না। শিশুর ঘরের জন্য  রং বাহারি মোড়া মানানসই। বিকেলে চায়ের কাপ হাতে বারান্দায় বসার জন্য ছোট বা মাঝারি সাইজের প্লাস্টিক, বেত বা স্টেইনলেস স্টিলের টুল ও মোড়া বেছে নিতে পারেন। এগুলো সহজে পানিতে নষ্ট হয় না, ঘুণ ধরে না। রান্নাঘর বা বাথরুমের গৃহস্থালি কাজের জন্য সাধারণত ছোট আকৃতির টুল জনপ্রিয়। এ ক্ষেত্রে কাঠের চেয়ে প্লাস্টিক, নাইলন বা স্টেইনলেস স্টিলের মোড়া বেশি স্বস্তিদায়ক। উপকরণের ওপর ভিত্তি করে ১৫০ থেকে আড়াই হাজার টাকায় মোড়া কিনতে পাবেন। আড়ং, যাত্রাসহ বিভিন্ন সুপারস্টোরে বাহারি ডিজাইনের মোড়া পাওয়া যায়। এ ছাড়া ঢাকার পান্থপথ, নিউ মার্কেট, গ্রিন রোড, কলাবাগান, যাত্রাবাড়ী, মিরপুর, মালিবাগ, খিলগাঁও, রামপুরা, মৌচাক, আজিমপুর, গুলশান লিংকরোডসহ বিভিন্ন এলাকায় মোড়ার দোকান রয়েছে।

 

মন্তব্য