kalerkantho

সোমবার । ২৬ আগস্ট ২০১৯। ১১ ভাদ্র ১৪২৬। ২৪ জিলহজ ১৪৪০

সাবান নয় বডিওয়াশ

গরমে ত্বকের জন্য সাবানের চেয়ে বেশি উপকারী বডিওয়াশ। কারণ এতে ক্ষারের পরিমাণ সাবানের চেয়ে কম থাকে। তবে বডিওয়াশ বাছতে হবে ত্বকের ধরন অনুযায়ী। শোভন মেকওভারের রূপবিশেষজ্ঞ শোভন সাহার পরামর্শ শুনে লিখেছেন নাঈম সিনহা

৮ জুলাই, ২০১৯ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে




সাবান নয় বডিওয়াশ

বেশির ভাগ সাবানে ক্ষারের মাত্রা বেশি থাকে, যা ত্বকের প্রাকৃতিক তেল নষ্ট করে। ফলে ত্বকের শুষ্কতাসহ নানা সমস্যার সৃষ্টি হয়। বডিওয়াশ, লিকুইড সোপ বা শাওয়ার জেলে ক্ষার থাকে সঠিক পরিমাণে। এগুলো সাবানের চেয়ে বেশ হালকা হয়। তাই শুধু গরমে নয়, সারা বছরই সাবানের পরিবর্তে বডিওয়াশ ব্যবহার করা ভালো। ত্বকের ধরন বুঝে বেছে নিতে হবে বডিওয়াশ। মুখ ও শরীরের ত্বকের মধ্যে রয়েছে বিশেষ পার্থক্য। মুখ নয়, হাত-পা ও শরীরের ত্বকের ওপর ভিত্তি করেই বেছে নিন বডিওয়াশ।

শুষ্ক ত্বকে

রুক্ষ ও শুষ্ক ত্বকের জন্য পিএইচ বা ক্ষারের মাত্রা বুঝে বেছে নিতে হবে বডিওয়াশ। অন্যথায় অ্যালার্জি, র্যাশসহ নানা সমস্যা হতে পারে। এ ক্ষেত্রে পিএইচ মাত্র ৫.৫-এর নিচে হলেই ভালো। শুষ্ক ত্বকের জন্য অয়েল বেইজড বডিওয়াশ বেশি উপকারী। তাই বডিওয়াশ কেনার সময় দেখে নিনি এর মূল উপাদানে দুধ, বাটার বা ময়েশ্চারাইজার আছে কি না।

 

রোদে পোড়া ত্বকে

যাদের নিয়মিত রোদে বের হতে হয় তাদের জন্য হাইড্রা এজেন্ট ইআর সমৃদ্ধ বডিওয়াশ ভালো। এই বডি ওয়াশ ত্বকের রোদে পোড়া দাগ দূর করতে সাহায্য করে। এ ছাড়া বডিওয়াশে গ্লোয়িং ও ব্রাইটেনিং এজেন্ট থাকতে হবে, যা আপনার ত্বকে বাড়তি সৌন্দর্য যোগ করবে।

 

সেনসিটিভ ত্বকে

যাঁদের ত্বক খুবই সেনসিটিভ, তাঁদের বডিওয়াশ ব্যবহার করতে হবে ভেবে-চিন্তে। প্রথমেই ক্ষারের বিষয়ে লক্ষ রাখুন। বডিওয়াশ খুব হালকা ধরনের হলেই ভালো। এখন বাজারে সেনসিটিভ স্কিনের জন্য বিশেষ বডিওয়াশ পাওয়া যায়। এ ধরনের ত্বকের জন্য অ্যালোভেরা, নিম ও তুলসিসমৃদ্ধ বডিওয়াশ উপকারী। তবে যাঁদের অ্যালার্জি রয়েছে তাঁদের ডাক্তারের পরামর্শ ছাড়া বডিওয়াশ ব্যবহার না করাই ভালো।

 

পূর্ণবয়স্কদের ত্বকে

ত্বকে বয়সের ছাপ ও বলিরেখা থাকলে বেছে নিতে হবে অ্যান্টি অ্যাজিংসমৃদ্ধ বডিওয়াশ।

প্রোটিনযুক্ত বডিওয়াশ এ ক্ষেত্রে বেশ কার্যকর। যা ত্বকের বলিরেখা কিংবা ভাঁজ পড়ার সমস্যা দূর করবে। এ ক্ষেত্রে ওটস, টক দই কিংবা মধুর গুণসম্পন্ন বডিওয়াশ বেছে নিতে পারেন।

 

অ্যারোমা থেরাপি

যাঁরা অনেক বেশি দুশ্চিন্তায় ভোগেন, ক্লান্ত ও বিষণ্ন থাকেন, তাঁদের জন্য অ্যারোমা থেরাপির বডিওয়াশ বেশ উপকারী। এটি ব্যবহারে শরীরে দুর্গন্ধ তো দূর হবেই; উপরন্তু প্রসাধনীর কাজও করবে। এর সদা সুবাশে মন থাকবে প্রফুল্ল। অ্যারোমা থেরাপির বডিওয়াশ মূলত হারবাল উপাদান ও বিভিন্ন ফুলের নির্যাস থেকে তৈরি করা হয়।

মন্তব্য