kalerkantho

সোমবার ।  ২৩ মে ২০২২ । ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ । ২১ শাওয়াল ১৪৪৩  

ছেলেদের চুলে জেল

চুল ঠিক রাখতে ও পছন্দমতো স্টাইলের জন্য চুলে জেল ব্যবহার করে ছেলেরা। চুলে জেল ব্যবহার নিয়ে কথা বলেছেন ওমেন্স ওয়ার্ল্ডের পরিচালক ও রূপবিশেষজ্ঞ ফারনাজ আলম। শুনেছেন এ এস এম সাদ

১৭ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ৪ মিনিটে



ছেলেদের চুলে জেল

কোথায় জেল ব্যবহার করবেন

শীতে ছেলেরা জেল একটু বেশিই ব্যবহার করে থাকেন। ব্লেজার আর স্যুটের সঙ্গে চুল উজ্জ্বল না দেখালে যে বেমানান লাগে!

ছেলেরা সাধারণত গোসলের পর ভেজা চুলেই জেল ব্যবহার করে থাকেন, যেটা একেবারে অনুচিত। গোসলের পর খুব ভালো করে চুল মুছতে হবে। এরপর চুল বাতাসে শুকিয়ে জেল দিতে হবে।

বিজ্ঞাপন

 

চুলে জেল ব্যবহারের আগে চুল ভালো করে পরিষ্কার করে নিতে হবে। চুলে কোনো রকমের ময়লা থাকলে জেল ব্যবহার করা যাবে না।

চুলে তেল দেওয়ার মতো করে হেয়ার জেল লাগানো যাবে না। লাগিয়ে সারা দিন রাখাও যাবে না। আবার জেল চুলে নিয়েই ঘুমাতে যাওয়াও যাবে না। এর প্রতিটি কারণেই চুলের ক্ষতি হবে। ঠিকমতো ব্যবহার না করলে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া তো থাকবেই। চুলের গোড়া এবং মাথার চামড়ায় জেল লাগাবেন না। এতে মাথার চামড়ার ওপর জেলের একটি আবরণ তৈরি হয়, যা চামড়াকে বাতাসের স্পর্শ থেকে দূরে রাখে এবং চামড়া থেকে পানি ও তেল নিঃসরণ হতে দেয় না। এতে মাথার চামড়ার যে ক্ষতি হয় সে থেকেই চুলের ক্ষতি হয়ে থাকে। জেল লাগিয়ে বাইরে গেলে ঘরে ফিরে চুল ধুয়ে ফেলতে হবে। ঝরনার পানিতে ৫-৭ মিনিট মাথা ধুতে হবে অথবা গোসল করে নিতে হবে। পানি মৃদু গরম হলে ভালো হয়।

যেভাবে লাগাবেন : চুলের গোড়ায় বা মাথার ত্বকে যেন এই জেল না লাগে, এ জন্য আঙুলে জেল নিয়ে চুলের মাঝে আঙুল দিয়ে বিলি কাটতে হবে, শ্যাম্পু করার মতো যেন চুলের গোড়া ম্যাসাজ না করা হয়। দরকার হলে আঙুলের মাথায় একটু জেল আলাদা করে নিয়ে চুলের প্রান্ত ধরে টেনে পছন্দমতো স্টাইল করতে পারেন।

ব্র্যান্ড : ভালো ব্র্যান্ডের নতুন জেল কেনা উচিত।   ব্যবহারের সঠিক নিয়ম মেনে চলা উচিত। দরকারে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন।

 

করবেন না

♦ ছেলেরা চুলে শ্যাম্পু করার পর ভালোভাবে পরিষ্কার করে না। এর ফলে চুল আঠালো হয়ে থাকে এবং চুলের গোড়া নরম হয়ে যায়। এ কারণে অনেক দ্রুত চুল পড়ে যায়। তাই যখনই শ্যাম্পু করবেন, পানি দিয়ে চুল ভালোভাবে পরিষ্কার করে নেবেন।

♦ চুলে শ্যাম্পু করার পর ভালোভাবে না শুকিয়ে জেল ব্যবহার করে ছেলেরা, যা চুলের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। যদি মাথায় টাক পড়াতে না চান, তাহলে স্টাইল করার আগে চুল ভালো করে শুকিয়ে নিন।

♦ ভুল হেয়ারস্টাইল বাছাই করা। ইন্টারনেট থেকে চুলের কোনো একটা কাটিং ভালো লাগলে সেলুনে গিয়ে ঠিক সেভাবে নিজের চুল কাটিয়ে ফেলে ছেলেরা। এটা ভাবে না, তার চেহারার সঙ্গে কাটিংটা যাচ্ছে কি না। মনে রাখবেন, হেয়ারকাট সব সময় নিজের চেহারার ধরন অনুযায়ী করবেন।

♦ মাথায় যেন টাক না পড়ে, এ কারণে ছেলেরা সামনের দিকের চুল খুব একটা কাটতে চায় না। এর ফলে এই চুলগুলো রুক্ষ হয়ে ঝরে যেতে শুরু করে। তাই নিয়ম করে সামনে-পেছনে দুই দিকের চুলই কাটুন।

♦ চুলের ধরন বুঝে, কী ধরনের প্রসাধনী ব্যবহার করবেন তার ওপর নির্ভর করে চুল পরিষ্কার রাখতে হয়। এমনকি মাথার তালুতে ঘামের পরিমাণ বেশি হলেও নিয়মিত চুল ধুয়ে পরিষ্কার রাখা জরুরি। ছেলেরা হয় অনেক বেশি চুল ধোয় কিংবা চুল সহজে ধুয়ে পরিষ্কার করেই না। দুই অভ্যাসের কারণেই চুল পড়ে যেতে শুরু করে।

♦ চুলে শ্যাম্পু করার সময় হাতের নখ দিয়ে মাথার তালু চুলকানোর অভ্যাস আছে অনেকেরই। এটি আপনার চুলের গোড়া নরম করে ফেলে। তাই নখ নয়, হাতের আঙুল দিয়ে আলতোভাবে মাথার ত্বক ম্যাসাজ করুন, যাতে মাথার ত্বকের রক্ত সঞ্চালন ভালো হয়।

 

মনে রাখুন

♦ প্রতিদিন চুলের গোড়া বা মাথা হালকা হাতে মালিশ করলে মাথার তালুতে রক্ত চলাচল বৃদ্ধি পায়।

♦ প্রচুর পানি পান করবেন।



সাতদিনের সেরা