kalerkantho

শনিবার । ৫ আষাঢ় ১৪২৮। ১৯ জুন ২০২১। ৭ জিলকদ ১৪৪২

জরুরি সেবা

কেন টিন সার্টিফিকেট?

   

৩০ জুন, ২০১৪ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



TIN (Taxpayer Identification Numbers) হলো ১০ সংখ্যার একটি বিশেষ নম্বর, যা সংশ্লিষ্ট কর অফিস প্রদান করে। এর প্রথম তিনটি সংখ্যা দ্বারা করদাতার অঞ্চল, মাঝের তিনটি সংখ্যা দ্বারা করদাতার পদমর্যাদা এবং শেষ চারটি দ্বারা করদাতাকে বিশেষভাবে চিহ্নিত করা হয়।

টিনের প্রকারভেদ

টিন পাঁচ প্রকার হয়ে থাকে।

SSN : সামাজিক নিরাপত্তা কার্ড তৈরির জন্য প্রয়োজন।

EIN : একজন কর্মীর ব্যবসাসংক্রান্ত বিষয়াবলিতে প্রয়োজন।

ITIN : একজন ব্যক্তির আবাসিক, অনাবাসিক, বাসস্থান, তার বৈবাহিক অবস্থান প্রভৃতির জন্য প্রয়োজন (যদি তার কাছে ঝঝঘ নম্বর না থাকে)।

ATIN ও PTIN :

বাংলাদেশে এ দুটি টিন সার্টিফিকেটের প্রয়োজন বা প্রয়োগক্ষেত্র নেই।

এ ক্ষেত্রে লক্ষণীয়, আপনি যদি বিবাহিত না হন, তবে ঝঝঘ নম্বর না নিলেও চলবে। তবে এর পরিবর্তে SSN নম্বর নিতে হবে। যদি চলতি কর প্রদান বছরে আপনার শিশু জন্মে আবার মৃত্যুবরণ করে, তবে তার জন্য ITIN অথবা ITIN নম্বর প্রয়োজন নেই।

আপনাকে কর ফেরত পাওয়ার জন্য শুধু শিশুটির জন্ম নিবন্ধনপত্র বা মৃত নামে একটি কপি সংযুক্ত করতে হবে।

টিন কেন প্রয়োজন

* আমদানি করার ক্ষেত্রে আমদানিপত্র রেজিস্ট্রেশন করার জন্য।

* বিভাগীয় জেলা শহর অথবা পৌরসভায় ট্রেড লাইসেন্স নবায়ন করার জন্য।

* মাল সরবরাহ, চুক্তিনামা অথবা অন্যান্য যেকোনো বাণিজ্যের দরপত্রের জন্য।

* সাধারণ বীমা তালিকাভুক্তকরণ অথবা লাইসেন্স নবায়ন করার জন্য।

* এক লাখ টাকার ওপরে সিটি করপোরেশনভুক্ত অঞ্চলে যেকোনো জমি বা ভবন রেজিস্ট্রেশনের জন্য।

* ক্রেডিট কার্ড ইস্যু করার ক্ষেত্রে।

* কম্পানি রেজিস্ট্রেশনের জন্য।

* ড্রাগ লাইসেন্সের জন্য।

* যেকোনো ব্যবসায়িক সমিতির সদস্য হওয়ার জন্য কিংবা সদস্যপদ নবায়ন করার জন্য।

* আইএসডি টেলিফোন সংযোগের জন্য।

* মুসলিম বিবাহ ও তালাকনামা রেজিস্ট্রেশনের জন্য।

* কর্তৃপক্ষের অনুমোদন সাপেক্ষে ভবন নির্মাণের পরিকল্পনা জমা দেওয়ার জন্য।

* গাড়ি, জিপ অথবা মাইক্রোবাসের রেজিস্ট্রেশন কিংবা মালিকানা পরিবর্তন ও ফিটনেস লাইসেন্সের জন্য।

* কোনো ব্যক্তির কমার্শিয়াল ব্যাংক অথবা লিজিং কম্পানি থেকে ঋণ গ্রহণ অথবা ঋণ অনুমোদনের জন্য।

টিন গ্রহণকারী হিসেবে আপনার সুবিধা

* কর-সংক্রান্ত যেকোনো বিষয়ে আপনি নিজেই উপস্থিত থাকতে পারবেন।

* কর্তৃপক্ষ কোনো বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিলে আপনি তার বিপরীতে কোনো আবেদন করার অধিকার রাখেন।

* কর্তৃপক্ষ সব বিষয়ে আপনাকে তথ্য প্রদানে বাধ্য থাকবে।

* আপনাকে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ভাউচার প্রদান করা হবে।

* টিন-সংক্রান্ত যথাযথ নীতিমালা থাকায় আপনি আশঙ্কামুক্ত থাকবেন।

টিন গ্রহীতার বাধ্যবাধকতা

* কর প্রদানের নীতিমালা অনুযায়ী আপনাকে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র প্রদান করতে হবে এবং নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে বকেয়া কর পরিশোধ করতে হবে।

* আপনার আয় দুই লাখ টাকার ওপরে হলে আপনাকে আয়ের চতুর্থাংশের এক ভাগ অগ্রিম কর প্রদান করতে হবে।

* একজন টিন গ্রহণকারীকে অবশ্যই তাঁর সম্পত্তি এবং দায়বদ্ধতা সম্পর্কে সঠিক তথ্য জানতে হবে।

* আপনার ব্যক্তিগত আয় সম্পর্কে সঠিক তথ্য দিতে হবে।

* ব্যবসায়িক লেনদেন সম্পর্কিত তথ্য সঠিক হতে হবে।

* আপনার টিন সার্টিফিকেট অনুমোদন, চুক্তিনামা হিসাবসংক্রান্ত তথ্য আইন অনুযায়ী হবে।

* ব্যবসাসংক্রান্ত বিষয়ে আপনাকে অবশ্যই টিন সার্টিফিকেট প্রদর্শন করতে হবে।



সাতদিনের সেরা