kalerkantho

সোমবার । ২৬ আগস্ট ২০১৯। ১১ ভাদ্র ১৪২৬। ২৪ জিলহজ ১৪৪০

মমিন কোটিপতি আমিরুল লাখপতি

আবু তালহা, বেলকুচি (সিরাজগঞ্জ)   

১২ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



মমিন কোটিপতি আমিরুল লাখপতি

আসন্ন একাদশ সংসদ নির্বাচনে সিরাজগঞ্জ-৫ (বেলকুচি-চৌহালী) আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আব্দুল মমিন মণ্ডল। অন্যদিকে বিএনপি মনোনীত ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী মো. আমিরুল ইসলাম খান। তাঁদের একজন কোটিপতি, অন্যজন লাখোপতি। নির্বাচন কমিশনে জমা দেওয়া হলফনামায় নগদ ও স্থাবর-অস্থাবর সম্পদের যে বিবরণ দিয়েছেন, তা থেকে এ তথ্য পাওয়া গেছে।

হলফনামায় তাঁরা পেশা হিসেবে ব্যবসা লিখেছেন। মমিনের নামে কোনো মামলা না থাকলেও বিএনপির আলীমের নামে ৩০টি মামলা বিচারাধীন।

মমিনের নগদ অর্থের তুলনায় তাঁর স্ত্রী ১৬ গুণ বেশি অর্থের মালিক। অন্যদিকে আমিরুলের চেয়ে স্ত্রী আট গুণ বেশি অর্থের মালিক। মমিনের নামে দুই লাখ ৫০ হাজার টাকা এবং স্ত্রীর ২০০ ভরি স্বর্ণ রয়েছে। অন্যদিকে আমিরুলের নামে উপহারস্বরূপ ২০ ভরি স্বর্ণালংকার থাকলেও স্ত্রীর নামে স্বর্ণালংকার নেই।

শিক্ষাগত যোগ্যতায় মমিন বিবিএ (স্নাতক), আমিরুল এমএসএস (স্নাতকোত্তর) পাস করেন। মমিনের বার্ষিক আয় ১৩ কোটি ৪৯ লাখ ৬০ হাজার ৭৮৫ টাকা। অন্যদিকে আমিরুলের তিন লাখ ৫৮ হাজার ৮৬৭ টাকা। মমিনের নগদ টাকার পরিমাণ তিন লাখ ১৬ হাজার ৮৩৩ টাকা। কিন্তু তাঁর স্ত্রী ৫০ লাখ ৪৪ হাজার ৫০৩ টাকার মালিক। অন্যদিকে আমিরুলের নগদ দুই লাখ ২২ হাজার ৫০৫ টাকা, কিন্তু তাঁর স্ত্রী ১৭ লাখ ৫৬ হাজার ৭৭১ টাকার মালিক। এ ছাড়া মমিনের নামে প্রায় ৩৭ কোটি ৩৫ লাখ টাকার ব্যাংক, বন্ড, স্টক ব্যবসা ইত্যাদির মূলধন আছে। অন্যদিকে আমিরুলের নামে ১৭ লাখ ৯৯ হাজার ২৮১ টাকা বৈদেশিক মুদ্রার মূলধন আছে। মমিনের দুই লাখ টাকার ইলেকট্রনিক সামগ্রী থাকলেও আমিরুলের রয়েছে এক লাখ ৬১ হাজার ৪০০ টাকার ইলেকট্রনিক সামগ্রী। মমিনের এক লাখ ২৫ হাজার টাকার আসবাবপত্র আছে, অন্যদিকে আমিরুল এক লাখ ৮৫ হাজার টাকার আসবাবপত্রের মালিক। অন্যান্য মূলধন মমিনের সাত লাখ ১২ হাজার ১৮৪ টাকা এবং আমিরুলের ১৫ লাখ ৭৬ হাজার ৯০২ টাকা।

এ আসনে স্বতন্ত্র হিসেবে অধ্যক্ষ আলী আলম নির্বাচন করছেন, যিনি পেশায় অবসরপ্রাপ্ত বেসরকারি চাকরিজীবী। তাঁর বার্ষিক আয় ৪০ হাজার টাকা। মোটরসাইকেল, ইলেকট্রনিক সামগ্রী, আসবাবপত্র সব মিলিয়ে তাঁর মোট সম্পদের মূল্য এক লাখ ৯৫ হাজার টাকা। এ ছাড়া ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের হাত পাখা মার্কার প্রার্থী মো. লোকমান হোসেনের আয় বছরে দুই লাখ ৪০ হাজার টাকা। নগদ অর্থ এক লাখ টাকা, ২০ হাজার টাকার একটি রেফ্রিজারেটর এবং ৫০ হাজার টাকা দামের তিন বিঘা জমির মালিক তিনি।

 

 

 

মন্তব্য