kalerkantho

রবিবার। ১৮ আগস্ট ২০১৯। ৩ ভাদ্র ১৪২৬। ১৬ জিলহজ ১৪৪০

এমপির স্ত্রীদের অঢেল টাকা

ফখরে আলম, যশোর   

১০ ডিসেম্বর, ২০১৮ ০০:০০ | পড়া যাবে ৩ মিনিটে



এমপির স্ত্রীদের অঢেল টাকা

যশোরের দুজন এমপির স্ত্রীর কোষাগারে অঢেল টাকা। তাঁদের একজন গৃহিণী, আরেকজন নতুন ব্যবসায়ী। ব্যাংকে তাঁদের লাখ লাখ টাকা জামানত রয়েছে। পাশাপাশি আছে দামি বাড়ি, গাড়ি ও ফ্ল্যাট। অন্যদিকে যশোর-৬ আসনের এমপি ইসমাত আরা সাদেকের শুধু ব্যাংকেই জমা আছে ৬৭ কোটি ৪৩ লাখ টাকা। প্রতিদিন তাঁর আয় সোয়া লাখ টাকা। নির্বাচনী হলফনামা থেকে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

যশোর-৫ আসনের এমপি স্বপন ভট্টাচার্য। একাদশ সংসদ নির্বাচনী হলফনামা থেকে জানা যায়, তাঁর স্ত্রী তন্দ্রা ভট্টাচার্যের ব্যাংকে জমা আছে ৫৭ লাখ ৫৫ হাজার টাকা। এখন তাঁর বার্ষিক আয় ১৭ লাখ ৩৪ হাজার টাকা।

তাঁর নামে ৬৩ শতাংশ অকৃষি জমি রয়েছে, যার মূল্য দেখানো হয়েছে তিন লাখ ৩৫ হাজার টাকা। কিন্তু মজার ব্যাপার হচ্ছে, পাঁচ বছর আগে নির্বাচনী হলফনামায় এই একই জমির মূল্য দেখানো হয়েছিল ৬০ লাখ টাকা। আর ওই সময় তন্দ্রা ভট্টাচার্যের ব্যাংকে জমা ছিল মাত্র এক লাখ ১৫ হাজার টাকা। তখন তিনি গৃহিণী ছিলেন। এখন ব্যবসায়ী।

তবে তন্দ্রা ভট্টাচার্যের চেয়ে কয়েকগুণ ধনী যশোর-৪ আসনের এমপি রণজিৎ রায়ের স্ত্রী নিয়তি রায়। নির্বাচনী হফলনামা থেকে জানা যায়, পেশায় গৃহিণী নিয়তি রায়ের রয়েছে আড়াই কোটি টাকার বাড়ি, গাড়ি, ফ্ল্যাট ও ডিপিএস। এর মধ্যে বর্তমানে তাঁর হাতে আছে ৩৪ লাখ টাকা। রয়েছে ১৬ লাখ ১০ হাজার টাকা মূল্যের প্রাইভেটকার, ৫০ লাখ টাকা দামের দুটি ফ্ল্যাট। এক কোটি ৪৬ লাখ ৭২ হাজার টাকা মূল্যের তিনটি বাড়িও আছে। ডিপিএস রয়েছে ১৪ লাখ ৯০ হাজার টাকার। অথচ নবম সংসদ নির্বাচনে দাখিল করা হলফনামায় নিয়তি রায়ের হাতে নগদ টাকার পরিমাণ ছিল ৭০ হাজার। তখনকার হলফনামায় তাঁর নামে কোনো ধরনের সঞ্চয়ী বা স্থায়ী আমানত ছিল না। এখন তাঁর সবকিছু হয়েছে।

তন্দ্রা ও নিয়তির মতো একসময় এমপির স্ত্রী ছিলেন ইসমাত আরা সাদেক। এখন তিনি নিজেই এমপি। এবারের নির্বাচনী হলফনামা অনুযায়ী তিনি এখন ৬৯ কোটি ৫৯ লাখ ৫২ হাজার টাকার সম্পদের মালিক। এর মধ্যে ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানে জমা রয়েছে ৬৭ কোটি ৪৩ লাখ ৮১ হাজার টাকা। হাতে রয়েছে দুই লাখ টাকা।

তাঁর বার্ষিক আয় চার কোটি ৭১ লাখ টাকা। মাসে আয় করেন প্রায় ৪০ লাখ টাকা। সে হিসেবে গড়ে প্রতিদিন আয় করেন সোয়া লাখ টাকা।

মন্তব্য